ঢাকা, সোমবার, ৬ শ্রাবণ ১৪২৬, ২২ জুলাই ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:
বুক রিভিউ

শব্দ শতক গল্প কতক: বিচিত্র গল্পের জগত

সাইফ বরকতুল্লাহ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৩-০৯ ৬:১৪:০৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৩-০৯ ৬:১৪:০৭ পিএম
শব্দ শতক গল্প কতক: বিচিত্র গল্পের জগত
Voice Control HD Smart LED

সাইফ বরকতুল্লাহ : ‘ছোট প্রাণ, ছোট ব্যথা, ছোট ছোট দুঃখকথা নিতান্তই সহজ সরল, ...নাহি তত্ত্ব নাহি উপদেশ। অন্তরে অতৃপ্তি রবে, সাঙ্গ করি মনে হবে শেষ হয়ে হইলো না শেষ।’ ছোটগল্প নিয়ে রবীন্দ্রনাথ ঠাকুরের এই পঙ্‌ক্তিমালা সার্বজনীনতা পেয়েছে। যুগে যুগে গল্পকার চেষ্টা করেছেন ছোটগল্পের মূল এই কথাগুলো ধারণ করতে। কিন্তু সেই ছোটগল্প কত ছোট? বিশ্বসাহিত্যে গল্প এখন এক বাক্যে এসে ঠেকেছে। যদিও সেগুলো গল্প হয়ে উঠছে কিনা এ নিয়ে বিতর্ক রয়েছে। অনেক সাহিত্যপ্রাণ ভাবেন ছোটগল্পে রবীন্দ্রনাথ সবিশেষ। এই ভাবনা অমূলক নয়। এরপর ঠিক ছোটগল্প নয়, ছোট ছোট গল্প দিয়ে বাংলাসাহিত্যে পাকা জায়গা করে নিলেন বনফুল। তার লেখা সেই ছোটগল্প সাহিত্যবাগানে এখনও ফুলের সৌরভ ছড়াচ্ছে। আমরা যদি বিশ্বসাহিত্যের দিকে তাকাই তাহলে দেখব, অণুগল্প বিভিন্ন দেশে খুবই সমাদৃত। কিন্তু গল্প কি ঠিক সনেটের মতো শব্দবন্ধের ছাঁচে ফেলা যায়? এই অসাধ্য কাজটিই করেছেন বদরুল মিল্লাত। না। তিনি এখানে লেখক নন। ঠিক একশ শব্দে লেখা অসাধারণ কিছু অণুগল্পের সংকলক এবং সম্পাদক। সন্দেহ নেই তিনি প্রশংসনীয় কাজ করেছেন।

শত শব্দের গল্প দিনদিন পাঠকপ্রিয় হচ্ছে। বাংলাসাহিত্যের দিকপাল অনেকেরই এমন গল্প রয়েছে। গত কয়েক বছর অমর একুশে গ্রন্থমেলায় এরকম অণুগল্প সংকলন নিয়মিত প্রকাশিত হচ্ছে। কিন্তু সেগুলো সবই যে একশ শব্দের গল্প এমন জানা যায় না। সংকলনগ্রন্থ ‘শব্দ শতক গল্প কতক’-এ আমরা এই অভিনব গল্প আয়োজন দেখি এবং পড়ে মুগ্ধ হই। এই সংকলনে অণুগল্পগুলো পাঠককে নতুন জগতে নিয়ে যাবে। গল্পগুলো আয়তনে ছোট হলেও ভাবনায় বিস্তৃত। উদাহরণ হিসেবে বলা যায়, ‘হুজুগ’ গল্পের কথা। গল্পটি এরকম, ‘সাঁই করে গাড়িটা পেরিয়ে যাওয়ার প্রায় সাথে সাথেই রিকশাটা উল্টে গেল। ‘ধর..., ধর শালারে, রিসকাডারে একসিডেন কইরা ভাগতাছে!’ ভদ্রলোক সম্ভবত রিয়ারভিউ মিররে ব্যাপারটা দেখেছেন, সজোরে ব্রেক করে গাড়িটা রাস্তার পাশে রেখে, দৌড়ে গিয়ে তিনি আহত রিকশাওয়ালাকে ধরলেন।’ (হুজুগ, শব্দ শতক গল্প কতক, পৃষ্ঠা ১৭)। এই গল্পে জয় হয় মানবিকতার। এটি বইটির প্রথম গল্প। ফলে এই গল্প একটি বার্তা দেয় সচেতন পাঠককে। আর তা হলো আসুন, আমরা মানবিক হয়ে উঠি।

১৬৭ জন নবীন লেখকের গল্প স্থান পেয়েছে বইটিতে। মোট ১৯০টি গল্প রয়েছে। প্রতিটি গল্পই একশ শব্দে লেখা। অধিকাংশ গল্পের শেষটি এমন এক টুইস্ট দিয়ে করা হয়েছে যে, পড়ে আপনি চমকে উঠবেন। যেমন, ‘ঘুম ভাঙলে আবারো সাবধানে উঠতে গিয়ে মনে পড়ে দশ দিন আগে সাত মাসের বাচ্চাটা জন্মের পর মাত্র ছত্রিশ ঘণ্টা বেঁচে ছিল। পেটের মাঝে বাচ্চা নড়ার অভ্যাসটা এখনো যায়নি।’ (অভ্যাস, শব্দ শতক গল্প কতক, পৃষ্ঠা ৫৭)। সংকলনের গল্পগুলোতে রয়েছে থ্রিল, সামাজিক সংকট, রোমান্স, কমেডি, হরর এবং অ্যাডভেঞ্চার। যেমন, ‘মহাজনকে দেখে বুকটা ধক করে ওঠে। বিচ্ছিরি হেসে মহাজন বলে, তোর মাইয়াটা একদম পরীর মতো হইছে। বছর আটেক গেলেই তোর থেইকা ভালো দাম দেবে খদ্দের। কমলার স্বপ্নচারী দীর্ঘশ্বাস- ‘মেয়ে রাজরানি হইব।’ (রাজরানি, শব্দ শতক গল্প কতক, পৃষ্ঠা ৪৭)।

এই সংকলন প্রকাশ নিঃসন্দেহে একটি ব্যতিক্রমী আয়োজন। সৃজনশীলতা চর্চার এই ধারা নতুন একটি মাত্রা যোগ করেছে সাহিত্যাঙ্গনে। বলতে দ্বিধা নেই এই পরিচর্যায় গল্পের জগত আরো বিস্তৃত হবে। ফলে সম্পাদক এখানে দূরদর্শী একটি কাজ করেছেন। ছোট কথার ভেতরে বড় ভাবসম্পদ লুকিয়ে থাকতে পারে। অসামান্য আলোর স্ফুরণ ঘটাতে পারে ছোটগল্পে। তেমনি একটি গল্প এরকম, ‘তার স্বামীর মুখে রা নেই। ক্ষমা চাইতে জানে না সে। তবে আজই প্রথমবারের মতো নিচে বসে স্ত্রীর হাতটি হাতে তুলে নেয়।’ (নিম্নবর্গীয় আবেগ, শব্দ শতক গল্প কতক, পৃষ্ঠা ২৯)।

এরকম আরো অনেক গল্প রয়েছে এই সংকলনে। গল্পগুলো পড়লে মনে হবে গল্প যেন আমাদের জীবনেরই অ্যাখ্যান। বাস্তব আর কল্পনামিশেলে গল্পগুলো হৃদয় ছুঁয়ে যাবে। পাঠক পড়ে পাবেন নতুন চিন্তার খোরাক। গ্রন্থটি পাঠক প্রিয় হোক এ প্রত্যাশা রইল। গ্রন্থটি প্রকাশ করেছে নহলী। এর অর্থ নবীন বা নতুন। এটি একটি সংগঠনও। সাহিত্যসৃষ্টি, নবীন লেখক সৃষ্টি এই সংগঠনের আরেকটি উদ্দেশ্য। সেই উদ্দেশ্য সফলে তারা ভালোভাবেই অগ্রসর হয়েছে তা এই গ্রন্থ আয়োজনে বোঝা যায়। বইটির প্রচ্ছদ এঁকেছেন আহমেদ ফারুক। মূল্য ২২০ টাকা।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/৯ মার্চ ২০১৯/তারা

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge