ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৩ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৮ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

নালিতাবাড়ীতে পাহাড়ি ঢলে তিন কোটি টাকার ক্ষতি

মো. শরিফুর রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-০৫-০৭ ১২:৩২:১৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৫-০৭ ২:৩৮:২৯ পিএম

শেরপুর সংবাদদাতা : শেরপুরের নালিতাবাড়ী উপজেলায় পাহাড়ি ঢল ও টানা বর্ষণের কারণে ২ কোটি ৯৪ লাখ টাকার ফসলের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে বলে জানিয়েছে কৃষি কর্মকর্তার কার্যালয়।

প্রশাসনের পক্ষ থেকে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকের তালিকা করতে সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধিদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

সুত্র জানায়, চলতি বোরো মৌসুমে কলসপাড় ইউনিয়নের ২ হাজার ২৮০ হেক্টর ও যোগানিয়া ইউনিয়নের ৩ হাজার ৫০ হেক্টর জমিতে বোরো আবাদ করা হয়। গত ২২ এপ্রিল উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ি ঢলের পানি ও ভারী বর্ষণের কারণে মালিঝি ও চেল্লাখালী নদী দিয়ে পানি ঢুকে কলসপাড়া ইউনিয়নের উত্তর, দক্ষিণ, মধ্য নাকশি ও গাগলাজানি গ্রামের ১ হাজার ২০০ একর ও যোগানিয়া ইউনিয়নের ৫০০ একর জমির ফসল ডুবে যায়। এসব ফসল ৮ থেকে ১০ দিন পানির নিচে ছিল। বর্তমানে  নদীতে ঢলের পানি কমে যাওয়ায় ও কয়েকদিন ধরে বৃষ্টি না থাকায় এসব এলাকার অধিকাংশ জমি থেকে পানি নেমে গেছে।

কৃষি কর্মকর্তার কার্যালয়ের হিসাব অনুযায়ী, দুটি ইউনিয়নে ২৫০ একর জমির ফসল সম্পূর্ণ ও ৭৫০ একর জমির ফসল আংশিক ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। এতে ২ কোটি ৯৪ লাখ টাকার ফসলের ক্ষয়ক্ষতি হয়েছে।

উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা মো. শরিফ ইকবাল বলেন, উপজেলায় যোগানিয়া ও কলসপাড়া ইউনিয়ন তুলনামূলক নিচু এলাকা। তাই পাহাড়ি ঢল ও ভারী বর্ষণের পানিতে ফসল ডুবে গিয়েছিল। এতে দুটি ইউনিয়নের ২ কোটি ৯৪ লাখ টাকার ফসল বিনষ্ট হয়েছে বলে তথ্য পাওয়া গেছে।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) দায়িত্বে থাকা সহকারী কমিশনার (ভূমি) জাহিদুর রহমান বলেন, এরই মধ্যে ক্ষতিগ্রস্ত কৃষকদের তালিকা করতে সংশ্লিষ্ট জনপ্রতিনিধিদের বলা হয়েছে। তালিকা অনুযায়ী সরকারিভাবে তাদের সহায়তা করা হবে।




রাইজিংবিডি/শেরপুর/৭ মে ২০১৭/মো. শরিফুর রহমান/এসএন

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : শেরপুর, ময়মনসিংহ বিভাগ