ঢাকা, শুক্রবার, ২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

দ্বিতীয় ম্যাচেও এইচপি দলের জয়

আব্দুল্লাহ এম রুবেল : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৭-১৮ ১০:৩৩:৩৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৭-১৮ ১০:৩৩:৩৯ পিএম

আবদুল্লাহ এম রুবেল : খুলনায় অনূর্ধ্ব-১৯ দলের বিপক্ষে টানা দ্বিতীয় জয় পেয়েছে হাই পারফরম্যান্স (এইচপি) দল।

বুধবার শেখ আবু নাসের স্টেডিয়ামে তিন ম্যাচ সিরিজের দ্বিতীয় প্রস্তুতি ম্যাচে তারা ৭ উইকেটের জয় পেয়েছে। প্রথম ম্যাচের মতো এ ম্যাচেও বৃষ্টিতে খেলা বিঘ্নিত হয়। পরে বৃষ্টিআইনে ফল নির্ধারিত হয়।

এদিন আগে ব্যাট করতে নেমে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দল নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২০৫ রান সংগ্রহ করে। জবাবে এইচপি দল ব্যাট করতে নেমে কিছুক্ষণ খেলার পর বৃষ্টি নামে। পরে ৪৫ ওভারে ১৯৭ রানের নতুন লক্ষ্য পায় এইচপি। ৪১.১ ওভারে ৩ উইকেট হারিয়ে লক্ষ্যে পৌঁছে যায় তারা।

টস হেরে আগে ব্যাট করতে নেমে শুরুটা মোটেও ভালো হয়নি এইচপি দলের। স্কোরবোর্ডে এক রান যোগ হতেই প্রথম উইকেট হারায় তারা। তবে দ্বিতীয় উইকেট জুটিতে পারভেজ হোসেন ও মাহমুদুল হাসানের ব্যাটে ঘুরে দাঁড়ায় তারা। এই জুটিতে যোগ হয় ৮৯ রান। ভালো খেলতে থাকা পারভেজ হাসান আউট হয়ে যান ৩৪ রান করে। এরপর বেশিক্ষণ ব্যাট করতে পারেননি মাহমুদুল হাসানও। তবে আউট হওয়ার আগে ফিফটি পূর্ণ করেন তিনি।

দলীয় ৯৪ রানে ব্যক্তিগত ৫০ রান করে কাজী অনিকের বলে আব্দুল মজিদের হাতে ধরা পড়েন। ৮২ বলে ৪টি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে এ রান করেন তিনি। তবে এরপরেও ব্যাটিং ব্যর্থতায় পড়েনি বাংলাদেশের যুব দলটি। দলের হাল ধরেন অমিত হাসান ও শামীম পাটওয়ারী। এই জুটিই দলকে ভালো সংগ্রহের ভিত গড়ে দেয়। শেষ পর্যন্ত অনূর্ধ্ব-১৯ দল নির্ধারিত ৫০ ওভারে ৭ উইকেট হারিয়ে ২০৫ রান করতে সমর্থ হয়।

দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৫৩ রান করেন অমিত হাসান। ৬৩ বলের ইনিংসে ৪টি বাউন্ডারি ছিল তার। এইচপি টিমের হয়ে পেসার আল আমিন হোসেন নেন ২ উইকেট। এ ছাড়া একটি করে উইকেট নেন কাজী অনিক, জোবায়ের হোসেন লিখন, ইনাম ও তানভীর হায়দার।

জবাবে ব্যাট করতে নেমে দারুণ সূচনা করে এইচপি দল। উদ্বোধনী জুটিতেই তারা সংগ্রহ করে ১২০ রান। এই জুটিতেই মূলত জয়ের ভিত হয়ে যায়। আব্দুল মজিদের আউটে জুটি ভাঙে। ৭৭ বলে ৬টি বাউন্ডারি ও ২টি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে দলের পক্ষে সর্বোচ্চ ৬১ রান করেন তিনি। এরপর দ্রুত আউট হয়ে যান আরেক ওপেনার সাদমান ইসলামও। ১০১ বলে ৫টি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারির সাহায্যে ৬০ রান করেন তিনি।

এরপর বৃষ্টি শুরু হলে খেলা কিছুক্ষণ বন্ধ থাকে। পরে ৪৫ ওভারে ১৯৭ রানের নতুন লক্ষ্য পায় এইচপি দল। মেহেদী আর হৃদয় জুটি দলকে জয়ের বন্দরে নিয়ে যান। যদিও শেষ দিকে মেহেদী আউট হয়ে যান। তার ব্যাট থেকে আসে ৩৬ রান। ২টি বাউন্ডারি ও একটি ওভার বাউন্ডারি ছিল তার ৩২ বলের ইনিংসে।

আর হৃদয় শেষ পর্যন্ত অপরাজিত থেকে করেন ৪০ রান। ৩৪ বলে ৩টি ওভার বাউন্ডারি ছিল তার ইনিংসে। বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-১৯ দলের হয়ে মৃত্যুঞ্জয়, শাহাদাত হোসেন ও রকিবুল হাসান একটি করে উইকেট নেন।

আগামী শুক্রবার একই মাঠে সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুই দল।



রাইজিংবিডি/খুলনা/১৮ জুলাই ২০১৮/আব্দুল্লাহ এম রুবেল/পরাগ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন