ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৮ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

টাংগন : স্বরূপ হারিয়ে ফেলা এক নদী

তানভীর হাসান তানু : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-১০-১০ ৯:৩২:৪৩ এএম     ||     আপডেট: ২০১৮-১০-১০ ১১:৫২:৩৭ এএম

ঠাকুরগাঁও সংবাদদাতা: নদীর নাম টাংগন। এই নদীকে ঘিরেই গড়ে ওঠে ঠাকুরগাঁও শহর। এক সময়ের প্রমত্তা এই নদীতে এখন বর্ষাতেও পানি থাকে না।

শহরের মধ্য দিয়ে বয়ে যাওয়া টাংগন এরই মধ্যে শুকিয়ে গেছে। দখল হতে হতে নদী পরিণত হয়েছে খালে।  নালার মতো হয়ে যাওয়া টাংগন নদী দেখলেও বোঝার উপায় নেই সেটি এক সময়কার প্রমত্তা টাংগন নদী।

বলা হয়, ভারতে একতরফা বাঁধ নির্মাণের কারণেই দিনে দিনে নাব্যতা হারিয়েছে টাংগন । কিন্তু সচল করার কোন উদ্যোগ নেওয়া হয়নি বলে অভিযোগ এলাকাবাসীর।  খননের মাধ্যমে এর নাব্যতা ফিরিয়ে আনার দাবি দীর্ঘদিনের।

ঠাকুরগাঁও পৌর এলাকায় হোটেল, বাসা-বাড়ির সকল আবর্জনা ফেলে একদিকে যেমন ভরাট হচ্ছে নদী, অপরদিকে দূষিত হচ্ছে নদীর পানিসহ আশে পাশের পরিবেশ। কিন্তু এ নিয়ে কারো কোন মাথা ব্যাথা নেই, নেই কোন নজরদারি। এখন নদীতে আর মাছ পায় না জেলেরা। তাই জেলেরা জীবিকার তাগিদে অন্য পেশায় চলে যাচ্ছে।

একটি সুবিধাভোগী মহল টাংগন নদীর আশে-পাশের জমি দখল করে গৃহ নির্মাণ করে বসতিতে পরিনত করেছে। সরকারি দলের কতিপয় প্রভাবশালী নেতা নদীর পাশের সরকারি খাল জমি দখল করে বিক্রিও করছে বলে অভিযোগ রয়েছে।

নদীর আশে-পাশের বাসিন্দাদের অভিযোগ, শহরের বাসা বাড়ি ও হোটেলের সব ময়লা-আবর্জনা নদীতে ফেলা হচ্ছে প্রতিদিন। ফলে দুর্গন্ধে ও মশা-মাছিতে অতিষ্ঠ হয়ে উঠেছে এলাকার মানুষ। পৌর কর্তৃপক্ষকে বারবার অবগত করলেও কোন ব্যবস্থা গ্রহন করেনি।

ঠাকুরগাঁও পৌর মেয়র মির্জা ফয়সল আমিনের কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি অস্বীকার করে বলেন, ‘আগে কিছুদিন ফেলা হয়েছিল বর্তমান কোন প্রকার ময়লা ফেলা হচ্ছে না।’

তবে পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী রবিউল ইসলাম বলেন, ‘সংকট মোকাবেলায় কয়েকটি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। নাব্যতা হারানো টাংগন নদীসহ জেলার অন্যান্য নদীতে শীঘ্রই ড্রেজিংয়ের কাজ শুরু হবে।’




রাইজিংবিডি/ঠাকুরগাঁও/১০ অক্টোবর ২০১৮/তানভীর হাসান তানু/টিপু

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : ঠাকুরগাঁও, রংপুর বিভাগ