ঢাকা, বুধবার, ৩ আশ্বিন ১৪২৬, ১৮ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

চাটমোহরে ১১ দিনে ৪ মোটর সাইকেল চুরি

শাহীন রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-২২ ১০:১১:৪৪ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-২২ ১০:১১:৪৪ এএম
চাটমোহরে ১১ দিনে ৪ মোটর সাইকেল চুরি
Walton E-plaza

পাবনা প্রতিনিধি: পাবনার চাটমোহরে হঠাৎ করেই বেড়ে গেছে মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা। গত ১১ দিনের ব্যবধানে চুরি গেছে ৪টি। এর মধ্যে পরপর তিনদিনে চুরি হয়েছে ৩টি।

চুরি হওয়া এসব মোটর সাইকেলের ৩টির মডেল বাজাজ ডিসকভার ও একটির মডেল বাজাজ প্লাটিনা।

এসব চুরির ঘটনায় থানায় অভিযোগ দেওয়া হলেও পুলিশ জড়িত কাউকে এখন পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার কিংবা চুরি যাওয়া মোটর সাইকেল উদ্ধার করতে পারেনি।

থানায় দায়েরকৃত অভিযোগ সুত্রে জানা যায়, মঙ্গলবার উপজেলার ধুলাউড়ি গ্রামের মুদি ব্যবসায়ী আব্দুল মতিনের মোটর সাইকেল চুরি হয় গ্রামের বাড়ির সামনে থেকে। দুপুর ২টার দিকে বাড়ির সামনে মোটর সাইকেল রেখে বাড়ির ভেতরে যান তিনি। ঘন্টাখানেক পরে এসে দেখেন তার নীল-কালো রঙের বাজাজ ডিসকভার ১৩৫ সিসি মোটর সাইকেলটি হাওয়া। রেজিঃ নং পাবনা-ল ১১-১৫০২। অনেক খুঁজেও আর মোটর সাইকেলটির সন্ধান পাননি তিনি।

গত সোমবার (২০ মে) দুপুরে চাটমোহর পৌর শহরের কালীসাগর পাড় এলাকা থেকে সুব্রত কুমার দাস নামের এক ব্যক্তির মোটর সাইকেল চুরি হয়। তার ব্যবহৃত বাজার ডিসকভার নীল-কালো রংয়ের ১৩৫ সিসি (ঢাকা মেট্রো ল-১৫-৮৭৬০) গাড়িটি কালীসাগর পাড় এলাকায় রেখে পাশেই একটি মিস্টির দোকানে যান। কাজ শেষে ফিরে এসে দেখেন গাড়িটি নেই।

এর আগেরদিন রোববার (১৯ মে) সন্ধ্যায় পৌর শহরের কাজীপাড়া মহল্লা থেকে উপজেলা ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ও সাংবাদিক বেলাল হোসেন স্বপনের মোটর সাইকেল চুরি হয়। নিজের ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের সামনে থেকে তার ব্যবহৃত বাজাজ প্লাটিনা ১০০ সিসি (পাবনা-হ-১৩-৬৪৬৮) লাল রংয়ের মোটর সাইকেলটি চুরি হয়।

এছাড়া গত ১১ মে বিকেলে পার্শ্ববর্তী ফরিদপুর উপজেলার সোনাহারা গ্রামের সামিউল ইসলাম তার বন্ধু সুদেব শীলের বিয়ের জন্য চাটমোহর পৌর শহরের দোলং গ্রামে মেয়ে দেখতে আসেন। এ সময় সামিউল ডিসকভার ১২৫ সিসি (পাবনা-হ-১৩-১৪৯৩) মোটর সাইকেলটি বাড়ির সামনে রাস্তার পাশে রেখে ভেতরে যান। পরে মেয়ে দেখা শেষ করে বাইরে এসে দেখেন মোটর সাইকেলটি নেই।

ঈদের আগে হঠাৎ করেই একের পর এক এসব মোটর সাইকেল চুরির ঘটনায় চাটমোহরে এখন চোর আতংক বিরাজ করছে। তবে এখনও পুলিশ কোন গাড়ি উদ্ধার বা জড়িত চোরকে আটক করতে পারেনি।

উপজেলা ব্যবসায়ী সমিতির সভাপতি ও সাংবাদিক বেলাল হোসেন স্বপন বলেন, ‘বিগত দিনেও এমন একাধিক মোটর সাইকেল চুরির ঘটনা চাটমোহরে হয়েছে। মাঝখানে বেশ কিছুদিন বন্ধ থাকার পর আবারও চুরি বৃদ্ধি পেয়েছে। এক্ষেত্রে পুলিশের কিছুটা দুর্বলতা আছে। আমি মনে করি পুলিশের আরো আন্তরিক হতে হবে। পুলিশ ইচ্ছা করলে চোর চক্রকে ধরতে পারে।’

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে চাটমোহর সার্কেলের সহকারি পুলিশ সুপার সজিব শাহরিন বলেন, ‘আসলে সাধারণ মানুষের মতো আমরাও খুব উদ্বিগ্ন এসব মোটর সাইকেল চুরির ঘটনায়। চারটি চুরির বিষয়ে অভিযোগ পাবার পর আমরা বিভিন্ন ক্লু মাথায় নিয়ে কাজ করছি।’

সজিব শাহরিন বলেন, ‘যেসব এলাকায় চুরি হয়েছে সেসব এলাকায় সিসিটিভি থাকলে ফুটেজ সংগ্রহ করে চোর চক্রকে সনাক্ত করা সহজ হতো। তারপরও দিনে রাতে একাধিক টিম কাজ করছে চুরি যাওয়া মোটর সাইকেল উদ্ধার বা জড়িতদের খুঁজে বের করতে। আশা করছি কয়েকদিনের মধ্যে ভাল সংবাদ পাওয়া যাবে।’




রাইজিংবিডি/পাবনা/২২ মে ২০১৯/শাহীন রহমান/টিপু

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন