ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ কার্তিক ১৪২৬, ২২ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ধর্ষণে ব্যর্থ হয়ে হত্যা, দায় স্বীকার রাজমিস্ত্রির

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৯-১৬ ২:৩৪:৫১ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৯-১৬ ৪:২৭:৫৮ পিএম

রংপুরের পীরগঞ্জে স্কুলছাত্রীকে ধর্ষণ চেষ্টায় ব্যর্থ হয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে পুলিশ ও আদালতে দায় স্বীকার করেছে হত্যাকারী রাজমিস্ত্রি মামুন।

শনিবার সকালে প্রাইভেট পড়ে বাড়ি ফেরার পথে সুরভী নামে ওই স্কুল ছাত্রীকে ধর্ষণের চেষ্টায় ব্যর্থ হলে তাকে হত্যা করা হয়। পুলিশ ওই দিনরাতেই হত্যায় জড়িত থাকার অভিযোগে চন্ডিপুর গ্রামের মকবুল হোসেনের পুত্র মামুন কে (১৮) গ্রেপ্তার করে।

পুলিশ ও এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে, উপজেলার কুমেদপুর ইউনিয়নের চন্ডিপুর সাহাপাড়া গ্রামের মোয়াজ্জেম হোসেনের জামাতা হিরু মিয়া তার বাড়ীতে ঘর জামাই হিসেবে বসবাস করতেন। অভাবী সংসারে সুরভীকে তার নানা বাড়ীতে রেখে মা শিউলী বেগম ও বাবা হিরু মিয়া ঢাকায় গার্মেন্টসে চাকরি করতেন। ঘটনার দিন সকালে সুরভী তার আঁখি নামের এক বান্ধবীকে সাথে নিয়ে চন্ডিপুর স্কুলের শিক্ষক মিজানুর রহমানের বাড়িতে প্রাইভেট পড়তে যায়। প্রাইভেট শেষে আঁখির সাথে বাড়িতে ফেরার পথে পথিমধ্যে ওৎ পেতে থাকা মামুন সুরভীকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করলে সুরভী চিৎকার করতে থাকে। এসময় প্রাইভেট পড়তে যাওয়া সহপাঠী আঁখি তার চিৎকার করে গ্রামবাসীকে খবর দেয়। লোকজন এসে জঙ্গলের ভিতরে সুরভীর নিথর দেহ গলায় ওড়না পেঁচানো অবস্থায় দেখতে পায়। এঘটনায় নিহতের বাবা অজ্ঞাত কয়েকজনকে আসামি করে একটি হত্যা মামলা দায়ের করেন।

পীরগজ্ঞ থানার ওসি সরেশ চন্দ্র রাইজিংবিডিকে জানান, শনিবার সকালে প্রাইভেট পড়ে বাসায় ফেরার পথে চন্ডিপুর গ্রামের হিরু মিয়ার মেয়েকে অস্ত্রের মুখে অপহরণ করে রাস্তার পাশের জঙ্গলে নিয়ে ধর্ষণের চেষ্টা করে মামুন। ব্যর্থ হয়ে মেয়েটিকে শ্বাসরোধে হত্যা করা হয়। ঘটনার পর পুলিশ অভিযান চালিয়ে মামুনকে গ্রেপ্তার করে। এরপর থানায় নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদের এক পর্যায়ে সে হত্যার কথা স্বীকার করে। মামুন পেশায় একজন রাজমিস্ত্রি। সে বেশ কিছুদিন ধরে মেয়েটির গতিবিধি লক্ষ্য করে আসছিল। মেয়েটি প্রতিদিন বাড়ি থেকে হেঁটে প্রাইভেট পড়তে শিক্ষক মিজানুর রহমানের বাড়িতে যেতো। ঘটনার ১০ দিন আগেও সে একবার মেয়েটিকে ধর্ষণের পরিকল্পনা করেছিল কিন্তু পারেনি। মামুনকে গ্রেপ্তারের পর রোববার সন্ধ্যায় রংপুর সিনিয়র জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট ফজলে এলাহির আদালতে হাজির করা হয়। সেখানে ১৬৪ ধারা জবানবন্দি দেয়ার পর আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।


রাইজিংবিডি/রংপুর/১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯/নজরুল মৃধা/বুলাকী

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন