ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৯ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

মুক্তিযোদ্ধার চিকিৎসায় এগিয়ে এলেন ইউএনও

ব্রাহ্মণবাড়িয়া সংবাদদাতা : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-০৮ ১২:৫২:১৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-০৮ ১২:৫২:১৬ পিএম

ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগরে এক অসুস্থ্য মুক্তিযোদ্ধার চিকিৎসায় এগিয়ে এসেছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) নাজমা আশরাফী।

শহীদ মিয়া নামের মুক্তিযোদ্ধা গত সোমবার নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিতে যান। তিনি পিএলআইডি রোগে আক্রান্ত বলে ধারণা করা হচ্ছে।

শহীদ মিয়া উপজেলার গুনিয়াউক ইউনিয়নের গুটমা আশ্রয়ন কেন্দ্রে পরিবার নিয়ে বসবাস করেন। একমাত্র ছেলে ব্রাহ্মণবাড়িয়ার এক ইটভাটায় শ্রমিকের কাজ করেন।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের চিকিৎসক মুক্তিযোদ্ধা শহীদ মিয়ায়ে ঢাকার পপুলার হাসপাতালে গিয়ে পরীক্ষা করে চিকিৎসা নিতে পরামর্শ দেন। ঢাকার বেসরকারি হাসপাতালে ব্যয়বহুল চিকিৎসার কথা শুনে অসহায় শহীদ মিয়া ইউএনওর স্মরণাপন্ন হন।

ইউএনও নাজমা আশরাফী তার অফিসের কয়েকজন কর্মচারীকে নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠিয়ে মুক্তিযোদ্ধা শহীদকে ভর্তির ব্যবস্থা করেন। এরপর তার চিকিৎসায় তিন সদস্যের মেডি‌ক‌্যাল বোর্ড গঠন করে উপজেলা হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ। এদিকে উপজেলা নির্বাহী অফিসার গত মঙ্গলবার হাসপাতালে গিয়ে শহীদ মিয়ার খোঁজখবর নেন এবং চিকিৎসকদের সঙ্গে পরামর্শ করে উন্নত

চিকিৎসার ব্যবস্থাসহ উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে সকলপ্রকার সহায়তার আশ্বাস দেন। পরে বৃহস্পতিবার হাসপাতালে গিয়ে উপজেলা মুক্তিযোদ্ধা সংসদের পক্ষ থেকে ১০ হাজার ও উপজেলা সমাজসেবা কার্যালয়ের রোগী কল্যাণ সমিতির পক্ষ থেকে পাঁচ হাজারসহ নগদ ১৫ হাজার টাকা তার পরিবারের কাছে তুলে দেন।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স সূত্রে জানা গেছে, মুক্তিযোদ্ধা শহীদ মিয়া পিএলআইডি বা লাম্বার ইন্টারভার্টিব্রাল ডিক্স প্রল্যাপস রোগে আক্রান্ত বলে তাদের ধারণা। যার ফলে তার কোমরে ব্যথা থেকে পায়ের গোড়ালি পর্যন্ত ঝিঁ ঝিঁ ও শিরশিরে অনুভূত হচ্ছে। রোগটি ভালোভাবে নিশ্চিত হতে গেলে এমআরআই করতে হবে।

মুক্তিযোদ্ধা শহীদ মিয়া জানান, কিছুদিন ধরে বেশিক্ষণ হাঁটতে বা দাঁড়িয়ে থাকতে পারিনা। শোয়া থেকে উঠে বসতেও পারিনা।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের পরিবার পরিকল্পনা অফিসার ডা. অভিজিৎ রায় জানান, মুক্তিযোদ্ধা শহীদ মিয়ার শারীরিক অবস্থার কথা চিন্তা করে তিন সদস্য বিশিষ্ট এক মেডিক‌্যাল টিম গঠন করেছি। সার্বক্ষণিক পর্যবেক্ষণে রেখে তার চিকিৎসা দেয়া হচ্ছে।


রুবেল/বুলাকী