ঢাকা     সোমবার   ১০ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২৬ ১৪২৭ ||  ২০ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে গার্মেন্টসকর্মীদের ঢল

|| রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:০৭, ৫ মে ২০২০  
শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে গার্মেন্টসকর্মীদের ঢল

মুন্সীগঞ্জের লৌহজং উপজেলার শিমুলিয়া-কাঁঠালবাড়ি নৌরুটে ঢাকাগামী গার্মেন্টস কর্মীদের ঢল লেগেই আছে।

মঙ্গলবার (৫ মে) সকাল থেকে নবম দিনের মতো দক্ষিণবঙ্গের এ নৌরুটে শিমুলিয়া ঘাটে শত শত ঢাকাগামী শ্রমিকের ভিড় দেখা গেছে।

করোনায় স্পিডবোট ও লঞ্চ চলাচল বন্ধ থাকায় ফেরি ও ট্রলারে করে পদ্মা পাড়ি দিয়ে শিমুলিয়া ঘাটে আসছেন তারা।

করোনা ঝুঁকির মধ্যে বিড় করেই ঢাকার উদ্দেশ্যে ছুটে যাচ্ছেন গার্মেন্টস কর্মীরা। শিমুলিয়া ঘাটে আসার পর শ্রমিকদের ঢাকায় যাওয়ার একমাত্র ভরসা হয়ে উঠেছে অটোরিকশা কিংবা রিকশা। আবার কেউ কেউ পায়ে হেঁটেই ছুটছেন কর্মস্থলের উদ্দেশ্যে।

আগামী ১০ মে থেকে শপিংমল ও বিপণী বিতানগুলো খুলে দেওয়া হচ্ছে- এমন খবরে দক্ষিণবঙ্গের বিভিন্ন জেলা থেকে ঢাকাগামী যাত্রীদের উপচেপড়া ভিড় বেড়েছে বলে জানিয়েছেন নৌ-রুটের মাওয়া নৌ-ফাঁড়ির ইনচার্জ সিরাজুল কবীর।

তিনি জানান, প্রতিদিনই এ নৌরুটে যাত্রীরা শিমুলিয়া ঘাটে ছুটে আসছেন। গত দুদিনে চাপ কিছুটা কম থাকলেও মঙ্গলবার সকালে যাত্রীর ঢল নেমেছে শিমুলিয়া ঘাটে।

তিনি আরও জানান, সকালের দিকে রো-রো ফেরি শাহ মখদুম ও মাঝারি ফেরি করবীসহ তিনটি ফেরিতে করে যাত্রীরা শিমুলিয়া ঘাটে আসেন। এদের বেশির ভাগই গার্মেন্টস কর্মী ও বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের চাকরিজীবী। গণপরিবহন চলাচল বন্ধ থাকায় এসব যাত্রী শিমুলিয়া ঘাট থেকে অটোরিকশা, মিশুক ও রিকশায় করে ভেঙে ভেঙে শত দুর্ভোগ মাথায় করে গন্তব্যে ছুটে চলেছেন।

বিআইডব্লিউটিসির শিমুলিয়া ঘাটের উপ-মহাব্যবস্থাপক মো. শফিকুল ইসলাম জানান, সকাল থেকে চারটি ফেরি দিয়ে সীমিত আকারে নৌরুট চালু রাখা হয়েছে। ফেরির পাশাপাশি ট্রলারে করে কাঁঠালবাড়ি ঘাট থেকে যাত্রীরা শিমুলিয়া ঘাটে আসছেন। এদের বেশির ভাগই শ্রমিক।


রতন/সনি

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়