ঢাকা, রবিবার, ১৭ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ৩১ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

আম্ফানের প্রভাবে বাগেরহাটে বৃষ্টি, ঝড়ো হাওয়া

বাগেরহাট সংবাদদাতা : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৫-১৯ ৩:৩৬:২৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৫-১৯ ৩:৩৬:২৯ পিএম

বঙ্গোপসাগরে সৃষ্ট ঘূর্ণিঝড় আম্ফানের প্রভাবে উপকূলীয় জেলা বাগেরহাটে বৃষ্টি হচ্ছে। বৃষ্টির সঙ্গে কোথাও কোথাও ঝড়ো হাওয়া বইছে।

মঙ্গলবার (১৯ মে) দুপুর সাড়ে ১২টা থেকে বৃষ্টি শুরু হয়। শরণখোলা ও মোরেলগঞ্জ উপজেলায় বৃষ্টির সঙ্গে ঝড়ো হাওয়া বইছে। বাগেরহাটের নদ-নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে।

সকাল থেকে রোদ থাকলেও হঠাৎ বৃষ্টি ও বাতাস শুরু হলে মাঠের পাকা ধান ও বাড়িতে উঠানো শুকানো ধান নিয়ে বিপাকে পড়েছে কৃষকরা। কচুয়া উপজেলার রকি শেখ বলেন, অনেক কৃষক শ্রমিক নিয়ে ধান কাটছিলেন। বৃষ্টিতে ধানের ক্ষতি হবে।

শরণখোলা, মোরেলগঞ্জ ও মোংলা উপজেলার আশ্রয়কেন্দ্রগুলো খুলে দেওয়া হয়েছে।

শরণখোলা উপজেলার রায়েন্দা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান আছাদুজ্জামান মিলন বলেন, দুপুর থেকে বৃষ্টির সঙ্গে ঝড়ো হাওয়া বইছে। তারা স্থানীয়দের আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে বলেছেন। ইতোমধ্যে প্রতিবন্ধী ও বৃদ্ধদের স্বেচ্ছাসেকদের সহায়তায় আশ্রয়কেন্দ্রে নেওয়া হয়েছে।  এলাকায় সতর্কতামূলক মাইকিং চলছে।

বাগেরহাটের জেলা প্রশাসক মামুনুর রশীদ বলেন, ঘূর্ণিঝড় মোকাবিলায় সর্বোচ্চ প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। ৪১০টি আশ্রয়কেন্দ্রের পাশাপাশি সুবিধাজনক শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলো ব্যবহার করা হচ্ছে। এই নিয়ে ৯৭৭টি আশ্রয়কেন্দ্র প্রস্তুত রয়েছে। এসব আশ্রয়কেন্দ্রে করোনার কারণে সামাজিক দূরত্ব মেনে ৭ লক্ষাধিক মানুষ আশ্রয় নিতে পারবেন।

তিনি জানান, সার্বিক যোগাযোগ রক্ষার জন্য ১০টি কন্ট্রোলরুম খোলা হয়েছে। ৮৪ মেডিকেল টিম প্রস্তুত রয়েছে। পর্যাপ্ত সংখ্যক স্বেচ্ছাসেবক প্রস্তুত রাখা হয়েছে। প্রয়োজনীয় শুকনো খাবার মজুদ রয়েছে।

 

টুটুল/বকুল

     
 

আরো খবর জানতে ক্লিক করুন : বাগেরহাট, খুলনা বিভাগ