ঢাকা, বুধবার, ২৪ আষাঢ় ১৪২৭, ০৮ জুলাই ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় গৃহবধূর মাথার চুল কেটে দিয়েছে স্বামী

নওগাঁ সংবাদদাতা : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৫-২৬ ৯:৩৫:৩৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৫-২৬ ৯:৩৮:০৭ পিএম

নওগাঁ সাপাহারে কুপ্রস্তাবে রাজি না হওয়ায় জেসমিন (৩৩) নামে এক গৃহবধূর ওপর পাশবিক নির্যাতন চালিয়ে মাথার চুল কেটে ফেলেছে স্বামী। 

মঙ্গলবার (২৬ মে) বিকেলে সাপাহার থানা পুলিশের উপ-পরির্দশক (এসআই) ইমরান হোসেন বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

এর আগে সোমবার বিকেলে সাপাহারের হাপানিয়া গ্রামের ওই গৃহবধূ পুকুর ঘাটে গেলে বিষয়টি এলাকায় জানাজানি হয়।

গৃহবধূ জেসমিন চাঁপাইনবাবগঞ্জ জেলার শিবগঞ্জ উপজেলার চাঁনপুর সাহেব গ্রামের নূরল ইসলামের মেয়ে।

আর অভিযুক্ত স্বামী রফিকুল ইসলাম (৪০) উপজেলার হাপানিয়া গ্রামের হোসেন আলীর ছেলে।

ঘটনার পর থেকে অভিযুক্ত জেসমিন স্বামী রফিকুল ও শাশুড়ি রাজিয়া বেগম (৭০) পলাতক রয়েছেন।

ভুক্তভোগী ও এলাকাবাসীর বরাত দিয়ে এসআই ইমরান হোসেন জানান, প্রায় এক বছর আগে রফিকুলের সঙ্গে জেসমিনের বিয়ে হয়। বিয়ের পর ২/৩ মাস ভালোই কেটেছে তাদের দাম্পত্য জীবন। এরপর থেকেই শুরু হয় স্বামী ও শাশুড়ির মানসিক এবং শারীরিক নির্যাতন।

এরপর গত ২৩ মে পার্শ্ববর্তী এক ধর্ণাঢ্য ব্যক্তিকে জড়িয়ে মিথ্যা ও বানোয়াট কুৎসা রটানোর জন্য ওই জেসমিনকে কুপ্রস্তাব দেন রফিকুল।

ওই কুপ্রস্তাব না মানার কারণে তার ওপর নেমে আসে রফিকুলের নির্মম নির্যাতন।  এরপরও কুপ্রস্তাবে রাজি হন না জেসমিন। এতে এক পর্যায়ে রেগে গিয়ে জেসমিনের মাথার চুল কাচি দিয়ে কেটে ফেলেন রফিকুল।

এরপর ঘটনাটি ধামাচাপা দিতে বিভিন্ন ভয়ভীতি ও প্রাণে মেরে ফেলার হুমকি দেন রফিকুল ও তার মা রাজিয়া। স্বামী ও শাশুড়ির হুমকিতে প্রাণ হারানোর ভয়ে ঘটনাটি তিনদিন গোপন রাখেন জেসমিন।

পরে, সোমবার বিকেলে জেসমিন বাড়ির কাজে পুকুর ঘাটে গেলে এলাকাবাসী বিষয়টি জানতে পারে। বিষয়টি জানাজানি হবার পর থেকেই জেসমিনের স্বামী ও শাশুড়ি পালাতক রয়েছে।

ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে জেসমিনের শ্বশুর হোসেন আলী বলেন, ‘আমি বৃদ্ধ মানুষ, আমার ছেলে ও স্ত্রীর এমন অমানবিক আচরণের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে গেলে আমাকেও বিভিন্নভাবে নির্যাতিত হতে হয়। এ কারণে তাদের অন্যায় অত্যাচারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করতে পারিনি। এমন ঘটনার দৃষ্টান্ত মূলক শাস্তি হওয়া উচিত।’

সাপাহার থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আব্দুল হাই নিউটন জানান, ঘটনা জানাজানি হবার পর মঙ্গলবার দুপুরে সাপাহার থানা পুলিশের এসআই ইমরান হোসেন সঙ্গীয় ফোর্সসহ ঘটনাস্থল পরির্দশন করেছেন। এ বিষয়ে মামলার প্রক্রিয়া চলছে।

 

সাজু/বুলাকী