ঢাকা, শনিবার, ৭ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ২৩ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

মাথা উঁচু করেই ফিরবে বাংলাদেশ: সাঙ্গাকারা

শামীম হোসেন পাটোয়ারি : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-০৬-১৬ ৪:৫০:০৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৬-১৬ ৭:৫০:৪৪ পিএম

ক্রীড়া ডেস্ক : চ্যাম্পিয়নস ট্রফি শুরুর আগেও কে ভেবেছিল, নিউজিল্যান্ড ও অস্ট্রেলিয়ার মতো শক্তিশালী দলকে পেছনে ফেলে নকআউট পর্বে খেলবে বাংলাদেশ! এশিয়ার প্রথম দল হিসেবে মর্যাদার এ আসরের সেমিফাইনাল নিশ্চিত করে টাইগাররা। শেষ চারের মঞ্চে ভারতের বিপক্ষে বাংলাদেশের পারফরম্যান্স সব মিলিয়ে বিবর্ণ হলেও মাশরাফির দলের প্রশংসা করেছেন শ্রীলঙ্কান কিংবদন্তি কুমার সাঙ্গাকারা।

বৃহস্পতিবার সেমিফাইনালে ভারতের কাছে ৯ উইকেটে হেরে চ্যাম্পিয়নস ট্রফিতে স্বপ্নযাত্রা শেষ হয়েছে বাংলাদেশের। আইসিসির টানা দুটি ৫০ ওভারের টুর্নামেন্টে নকআউট পর্বে খেলায় বাংলাদেশের পারফরম্যান্সে মুগ্ধ সাঙ্গাকারা। সেমিফাইনালে বাংলাদেশ হারলেও মাথা উঁচু করেই দেশে ফিরবে বলে মনে করেন লঙ্কান গ্রেট ক্রিকেটার সঙ্গাকারা। এ প্রসঙ্গে আইসিসির এক কলামে তিনি লেখেন, ‘এই ম্যাচে (ভারতের বিপক্ষে) বাংলাদেশ সব বিভাগে পরাজিত হয়েছিল। তবে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে পরবর্তী সিরিজকে সামনে রেখে তারা মাথা উঁচু করেই ঢাকায় ফিরতে পারবে।’

বাংলাদেশের সাম্প্রতিক সাফল্যে সাঙ্গাকারার দেশিয় কোচ চন্ডিকা হাথুরুসিংহে এবং বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসানদের মতো ক্রিকেটারদের প্রশংসা করেন সাঙ্গাকরা। এ প্রসঙ্গে তিনি জানান, ‘গত কয়েক বছরে চন্ডিকা হাথুরুসিংহের বিচক্ষণ কোচিং সহায়তা, সহায়ক ক্রিকেট বোর্ড এবং সাকিব আল হাসানের মতো মানসম্পন্ন খেলোয়াড় দ্বারা বাংলাদেশ অনেক উন্নতি সাধন করেছে।’

চ্যাম্পিয়নস ট্রফি শুরুর আগেই ওয়ানডে র‌্যাঙ্কিংয়ে ছয়ে অবস্থান ছিল বাংলাদেশের। দারুন সাফল্যে সেমিফাইনাল থেকে আসর শেষ হলেও অবস্থানের পরিবর্তন হয়নি টাইগারদের। ২০১৯ ওয়ানডে বিশ্বকাপেও বাংলাদেশ বড় প্রতিপক্ষ হবে বলে বিশ্বাস লঙ্কান এ গ্রেট ক্রিকেটারের। এ প্রসঙ্গে সাঙ্গাকারা লেখেন, ‘আইসিসির সর্বশেষ দুই ইভেন্টের নকআউট পর্বে উঠেছে বাংলাদেশ। এখন তারা সত্যিকার প্রধান প্রতিদ্বন্দ্বী হওয়ার আশা নিয়ে ২০১৯ বিশ্বকাপের পরিকল্পনা শুরু করে দিতে পারে। বাংলাদেশ তাদের শক্তিমত্তার প্রমাণ দিয়েছে। অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ম্যাচে বৃষ্টির কারণে বেঁচে যায়। কিন্তু এরপর নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে যে সাহসী মনোভাব তারা দেখায়, তা ১৯৯৬ বিশ্বকাপে শ্রীলঙ্কার বিশ্বকাপজয়ী দলের কথা মনে করিয়ে দেয়। ছোট দলও কখনো নায়কে পরিণত হতে পারে।’

 


সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাটিংয়ে কিছুটা আলো ছড়ালেও বিশেষ করে চ্যাম্পিয়নস ট্রফির পুরো আসরে নিষ্প্রভ দেখা গেছে টাইগার বোলারদের। বাঁহাতি পেসার মুস্তাফিজুর রহমান পুরো আসরে কেবল ১টি উইকেট পেয়েছেন, যা তার নামের পাশে পুরোই বেমানান। জাদুকরী সেই কাটার আর স্লোয়ার ভুলে কোথাও যেন নিজেকে হারিয়ে খুঁজছেন তিনি। অন্য বোলাররাও সেভাবে আলো ছড়াতে পারেননি। তবে ২০১৯ বিশ্বকাপের আগেই শক্তিশালী দলের মতো বাংলাদেশ বোলিংয়েও নিজেদের সক্ষমতায় বাড়িয়ে নিতে পারবে বলে বিশ্বাস সাঙ্গাকারার।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৬ জুন ২০১৭/শামীম

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন