ঢাকা, বুধবার, ৭ কার্তিক ১৪২৬, ২৩ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

মাশরাফির আস্থা হতে তৈরি অভিজ্ঞ রুবেল

শামীম হোসেন পাটোয়ারি : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-২৫ ১২:১২:৫৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-২৫ ৭:৩১:৩২ পিএম

ওদের হাতে বিশ্বকাপ মশাল। ওদের কাছে ১৬ কোটির প্রত্যাশা। ওরাই স্বপ্নের ধারক। ওরা বাংলার টাইগার। ওরা বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্বপ্নসারথি। ওদেরই একজন রুবেল হোসেন।

ইংল্যান্ড বিশ্বকাপে বাংলাদেশের ১৫ খেলোয়াড়কে নিয়ে প্রতিদিন লেখা প্রকাশ করছে রাইজিংবিডি’র ক্রীড়া বিভাগ। আজ পড়ুন রুবেল হোসেনের গল্প, লিখেছেন শামীম  হোসেন পাটোয়ারি।

গত বিশ্বকাপে অস্ট্রেলিয়ায় কলঙ্কের বোঝা মাথায় নিয়ে খেলেতে গিয়েছিলেন রুবেল হোসেন। অনাকাঙ্ক্ষিত এক ঘটনা ওলট-পালট করে দিয়েছিল তার পৃথিবী। নায়িকা হ্যাপী কাণ্ডে সারাদেশে ভিলেন বনে যাওয়া মানুষটাকে সেখানে দিতে হয়েছে কঠিন পরীক্ষা। বিশ্বকাপ শুরুর দুই মাস আগে দুঃসহ পরিস্থিতির মধ্যে দিয়ে যেতে হয়েছে তাকে। বান্ধবীর করা ধর্ষণ ও নির্যাতন মামলায় আদালতের চৌকাট পেরিয়ে কারাভোগও করতে হয়েছে এ পেসারকে।

অস্ট্রেলিয়ায় খেলতে গিয়ে সেবার বাজিতে জিতে গিয়েছিলেন রুবেল। তার হাত থেকে বেরিয়ে আসা অগ্নিগোলার সাহায্যেই ইংলিশদের হারিয়ে প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের কোয়ার্টার ফাইনাল খেলেছিল বাংলাদেশ ক্রিকেট দল।
 


গত বিশ্বকাপে পূণর্জন্ম হয় বাংলাদেশ দলের পেসার রুবেল হোসেনের। চার বছর পেরিয়ে পুরনো কলঙ্কের যন্ত্রণা এখন অতীত। বিয়ে করে থিতু হয়েছেন। এখন ক্রিকেটের শর্টার ফরমেট রুবেল হোসেনের ধ্যান-জ্ঞান। শেষ বিশ্বকাপের পর চার বছর ধরে রুবেল খেলে যাচ্ছেন দাপটের সঙ্গে, খেলতে নামবেন এবারের বিশ্বকাপেও। তবে এবার আর বাড়তি কোনো চাপ নেই তার ওপর। মাঠ এবং মাঠের বাইরে- সবখানেই দারুণ অবস্থায় থেকে খেলতে নামবেন ক্রিকেটের বিশ্ব মঞ্চে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট দশ বছর পাড়ি দিলেও দলে অবস্থান পোক্ত করতে পারেননি এখনো। তবে গেল বিশ্বকাপের অবিস্মরনীয় জয়ের নায়ক রুবেল হোসেন নিজের তৃতীয় আসরে বিশ্ব জয়ের লক্ষ্য নিয়ে গেছেন ইংল্যান্ডে। সুইং ও ইয়র্কে দারুণ দক্ষ রুবেল পুরোনো বলে এবার মাশরাফির আস্থা হতে তৈরি।

পড়ুন: রুবেলের সাক্ষাৎকার (জাতীয় দলের কাছে তার অনেক ঋণ)

বাংলাদেশের বিশ্বকাপ স্মৃতির সেরা মুহুর্তটা মনে হয় রুবেলই উপহার দিয়েছেন। ২০১৫ বিশ্বকাপে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে তার ওই দুই মুহূর্তটাকে নিজের ক্রিকেট জীবনেরই টার্নিং পয়েন্ট মনে করেন রুবেল। সারা দেশে ভিলেন হয়ে যাওয়া সেই বোলার এক ঝটকায় হয়ে যান নায়ক।

সীমিত ওভারের ক্রিকেট নিয়েই এখন রুবেলের যত ভাবনা। ৫ ফুট ১০ ইঞ্চি উচ্চতার এ ক্রিকেটারের জন্ম বাগেরহাটে। পেসার হান্টে টেকার পর অনূর্ধ্ব-১৯ দল ও ‘এ’ দল হয়ে লাল সবুজ জার্সিতে তার অভিষেক হয় ২০০৯ সালের জানুয়ারিতে। শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে ওয়ানডেতে অভিষেকের একই বছরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে টেস্টে অভিষেক হয় ডানহাতি এ পেসারের। ওয়ানডে অভিষেকে ৪ উইকেট নিয়েই সাড়া ফেলে দেন তিনি।
 


২০১০ সালে নিউজিল্যান্ডকে বাংলাওয়াশের নেপথ্য নায়কও রুবেল। বাংলাদেশে ব্ল্যাক ক্যাপসদের পরের সফরে আরো ভোগালেন রুবেল। তৃতীয় টাইগার বোলার হিসেবে ওয়ানডেতে হ্যাটট্রিক। ওই ম্যাচেই ক্যারিয়ার সেরা বোলিং।

সুইং আর ইয়ার্কারই রুবেলর শক্তি। পুরোনো বলে কার্যকর হলেও নতুন বলে বিবর্ণ। রান দেওয়ার ক্ষেত্রেও মাঝে মাঝে থাকেন বেহিসেবী। ৯৭ ওয়ানডেতে ১২৩ উইকেট নিয়ে রুবেলের অর্জনটা মোটামুটি খারাপ না।

২০১১ বিশ্বকাপের পর খেলেছেন ২০১৫তেও। দুই আসরে মোট ১২ ম্যাচে নিয়েছেন ১৩ উইকেট। পাইপ লাইন থেকে কখনো বিচ্যুত না হওয়া ক্রিকেটার রুবেল। তাই টানা দুটি বিশ্বকাপের পরও এবার ইংল্যান্ড বিশ্বকাপেও ডাক পেয়েছেন তিনি। তবে বাংলাদেশের খেলা সবশেষ ১৩ ওয়ানডের ৯টিতেই সেরা একাদশে ছিলেন না ডানহাতি এ পেসার। কন্ডিশন আর টিম কম্বিনেশন যোগ সূত্রে মিললেই এবারের বিশ্বকাপে মাঠে দেখা যেতে পারে তাকে।

আন্তর্জাতিক ক্রিকেট দশ বছর পেরিয়ে মাশরাফিও সাকিবদের সঙ্গে সিনিয়রের তকমা রুবেলের পাশেও। নিজের সাফল্যের ব্যাপারে যতটা প্রত্যয়ী রুবেল ততটাই বিশ্বাস বাংলাদেশের বিশ্বকাপ জয়ের পক্ষেও। গত বিশ্বকাপের মতো এবারের আসরেও তার কাছ থেকে দুর্দান্ত কিছুর প্রত্যাশা থাকবে টাইগার ভক্তদের।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৫ মে ২০১৯/শামীম/ইয়াসিন

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন