ঢাকা, সোমবার, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

বিশ্বকাপের ইতিহাসে সেরা দশ রান সংগ্রাহক : পর্ব-২

মো. নুরুল আমিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৬-১৩ ৯:৫৬:৩৯ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-১৩ ৩:২২:০৮ পিএম
বিশ্বকাপের ইতিহাসে সেরা দশ রান সংগ্রাহক : পর্ব-২
Walton E-plaza

ক্রিকেট হয়তো দিনে দিনে ছোট হয়ে আসছে কিন্তু ৪৪ বছর পর এসেও ওডিআই বিশ্বকাপ এখনো সীমিত ওভার ক্রিকেটে ব্যাটিং কারিশমা প্রদর্শনের সবচেয়ে বড় জায়গা। টি-টোয়েন্টি এর প্রসার ব্যাটিং এ বিপ্লব নিয়ে আসলেও ওডিআই বিশ্বকাপের কাছে তা এখনো নস্যি। চলমান দ্বাদশ বিশ্বকাপ উপলক্ষে দেখে নেয়া যাক ক্রিকেটের সর্বোচ্চ এই মর্যাদার আসরের ১০ সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকেদের। আজ প্রকাশিত হল দ্বিতীয় ও শেষ পর্ব।

এবি ডি ভিলিয়ার্স ( ৬৩.৫২ গড়ে ১২০৭ রান, শতক ৪ টি, অর্ধশতক ৬ টি)
তিনটি বিশ্বকাপ খেলে একবারও ট্রফি ঘরে তুলতে না পারলেও ১ হাজার ২০৭ রান নিয়ে দক্ষিন আফ্রিকার হয়ে বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রানের মালিক ভিলিয়ার্স। গড়ও ঈর্ষনীয় ৬৩.৫২ যা এই তালিকার ১০ ব্যাটসম্যানের মধ্যেও সর্বোচ্চ। তার সফলতম বিশ্বকাপ ২০১৫ আসরে ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে ১৬২ রানের অনবদ্য ইনিংস সহ মোট তুলেছিলেন ৪৮২ রান।

ব্রায়ান লারা ( ৪২.২৪ গড়ে ১২২৫ রান, শতক ২ টি, অর্ধ শতক ৭ টি)
দলীয় ব্যর্থতায় শেষ পর্যন্ত কোনবারই খুব বেশিদুর না যেতে পারলেও প্রায় প্রতিবারই ব্যক্তিগত পারফরম্যান্সে উজ্জ্বল ছিলেন ৫ টি বিশ্বকাপ খেলা ক্রিকেটের বরপুত্র খ্যাত ব্রায়ান লারা। ১৯৯৯ আসর ছাড়া প্রতিবারই ব্যাট হাতে করেছেন অন্তত ২০০ রান। বিশ্বকাপে তার ব্যক্তিগত সর্বোচ্চ স্কোর ২০০৩ সালে স্বাগতিক দক্ষিন আফ্রিকার বিপক্ষে ১১৬ রান। ২০০৭ সালে সুপার এইটে ইংল্যান্ডের কাছে হেরে বাদ পড়ার আগ পর্যন্ত বিশ্বকাপে খেলেছেন মোট  ৩৪ ম্যাচ। 

কুমার সাঙ্গাকারা (৫৬.৭৪ গড়ে ১৫৩২ রান, শতক ৫ টি, অর্ধ শতক ৭ টি)
বিশ্বকাপে সফলতম উইকেটরক্ষক কুমার সাঙ্গাকারা ক্রিকেটের এই মর্যাদার আসরে ১৫০০ এর বেশি রানের মালিক তিনজনের মধ্যে একজন। ২০১৫ সালে তার শেষ বিশ্বকাপ ছিল তার সফলতম বিশ্বকাপ। বিশ্বরেকর্ড গড়ে টানা ৪ সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে সেবার ১০৮ গড়ে মোট সংগহ করেছিলেন ৫৪১ রান। তার অধিনায়কত্বে ২০১১ সালে ফাইনালে উঠেছিল শ্রীলঙ্কা।

রিকি পন্টিং ( ৪৫.৮৬ গড়ে ১৭৪৩ রান, শতক ৫ টি, অর্ধ শতক ৬ টি)
তিনবারের বিশ্ব চ্যাম্পিয়ন রিকি পন্টিং টুর্নামেন্টের ইতিহাসের সফলতম অধিনায়ক। তার নেতৃত্বে ২০০৩ ও ২০০৭ সালে বিশ্বকাপ জেতে অস্ট্রেলিয়া। পাঁচটি বিশ্বকাপ খেলা রিকি পন্টিং এর শতকও পাঁচটি। তার সবচেয়ে স্মরনীয় ইনিংস ২০০৩ ফাইনালে ভারতের বিপক্ষে ১৪০ রান যা তাকে এনে দেয় ম্যান অফ দ্যা ফাইনালের স্বীকৃতি।  তবে ব্যাট হাতে তিনি সবচেয়ে উজ্জ্বল ছিলেন ২০০৭ সালে যেখানে এক শতক ও ৪ অর্ধ শতকে তার উইলো থেকে আসে মোট ৫৩৯ রান।

শচীন টেন্ডুলকার ( ৫৬.৯৫ গড়ে ২২৭৮ রান, শতক ৬ টি, অর্ধ শতক ১৫ টি)
বিশ্বকাপে ব্যাটিং এর প্রায় বেশিরভাগ রেকর্ডের মালিক শচীন টেন্ডুলকার ভারতের বিশ্বকাপে অংশ নিয়েছেন মোট ৬ বার। ২০০৩ সালে তার করা ৬৭৩ রান এখনো পর্যন্ত এক আসরে কোন ব্যাটসম্যানের সর্বোচ্চ। টুর্নামেন্টের ইতিহাসে সবচেয়ে বেশি শতক ও অর্ধ শতকের রেকর্ডও দুইবার ফাইনাল খেলা ও একবার বিশ্বকাপ জেতা শচীন এর দখলে।




রাইজিংবিডি/ঢাকা/১২ জুন ২০১৯/ নুরুল/শামীম

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       
Walton AC
Marcel Fridge