ঢাকা, মঙ্গলবার, ৫ কার্তিক ১৪২৬, ২২ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘ঢাকার বর্জ্য থেকে ৬০-৭০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন সম্ভব’

আসাদ আল মাহমুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৯-১৩ ৭:৫৭:০৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৯-১৪ ৮:৫৯:৫১ এএম

সংসদ প্রতিবেদক : বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ বলেছেন, ঢাকা দক্ষিণ এবং উত্তর সিটি করপোরেশনের আওতাধীন এলাকার বর্জ্য থেকে ৬০-৭০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা সম্ভব।

বৃহস্পতিবার জাতীয় সংসদে ঢাকা-১৫ আসনের সংসদ সদস্য কামাল আহমেদ মজুমদারের প্রশ্নের জবাবে এ তথ্য জানান তিনি।

নসরুল হামিদ বলেন, প্রাথমিক পর্যায়ে বেসরকারিভাবে উদ্যোক্তা নিয়োগের মাধ্যমে আইপিপি হিসেব বর্জ্য থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন পরিকল্পনার আওতায় ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশন থেকে ৩৫ মেগাওয়াট এবং ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশন থেকে ৩৫ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদনের প্রক্রিয়া গ্রহণ করা হচ্ছে।

মন্ত্রী বলেন, বর্জ্য সরবরাহ ও বিদ্যুৎকেন্দ্রের জন্য জমি প্রদান বিষয়ে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড এবং সিটি করপোরেশনের মধ্যে সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরের বিষয়টি প্রক্রিয়াধীন আছে। এছাড়া, নারায়ণগঞ্জ জেলায় ৫ মেগাওয়াট ক্ষমতাসম্পন্ন বর্জ্যভিত্তিক বিদ্যুৎকেন্দ্র স্থাপন করার জন্য চলতি বছরের ২৭ জুলাই দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। আগামী ২০ সেপ্টেম্বর দরপত্র উন্মুক্তকরণের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে।

নোয়াখালী-২ আসনের সংসদ সদস্য মোর্শেদ আলমের প্রশ্নের জবাবে মন্ত্রী বলেন, দেশে বর্তমানে বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ২০ হাজার ১৩৩ মেগাওয়াট (ক্যাপটিভ ও নবায়ণযোগ্য জ্বালানিসহ)। চাহিদা অনুযায়ী গড়ে প্রতিদিন ১০ হাজার ৫০০ থেকে ১১ হাজার ৪০০ মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদিত হচ্ছে। দেশে বর্তমানে সরকারি খাতে স্থাপিত কেন্দ্রে বিদ্যুৎ উৎপাদন ক্ষমতা ৮ হাজার ৯৮৬ মেগাওয়াট এবং বেসরকারি খাতে ৮ হাজার ৫৭ মেগাওয়াট। প্রতিদিন চাহিদার ওপর ভিত্তি করে মেরিট অর্ডার ডেসপাস অনুযায়ী বিদ্যুৎকেন্দ্রসমূহ থেকে বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হয়।

জাতীয় পার্টির সংসদ সদস্য ফখরুল ইমামের সম্পূরক প্রশ্নের জবাবে প্রতিমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুৎ মন্ত্রণালয় ৩০০ নির্বাচনী এলাকায় নির্দিষ্ট তারিখ দিয়ে বিদ্যুতায়নের কাজ করেছে। এখন পর্যন্ত ৯২ শতাংশ এলাকায় বিদ্যুৎ পৌঁছাতে সক্ষম হয়েছি, বাকিটাও দ্রুত শেষ করা যাবে। আমাদের টার্গেট ২০১৮ সালের মধ্যে শতভাগ বিদ্যুৎতায়ন করা। এজন্য আর দুই-এক মাস লাগবে।

তিনি আরো বলেন, আমাদের প্রতিটি এলাকায় খাল-বিল অতিক্রম করে নতুন ট্রান্সফর্মার স্থাপন, মাইলকে মাইল তার টেনে নতুন গ্রিড লাইন করে সীমিত অর্থের মধ্যে কাজ করাটা খুবই চ্যালেঞ্জের।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮/আসাদ/রফিক

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন