ঢাকা, মঙ্গলবার, ৩০ আশ্বিন ১৪২৬, ১৫ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

আইসিটিতে বরাদ্দ বেড়েছে ২৬৬২ কোটি টাকা

এসকে রেজা পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৬-১৩ ৬:৩২:২৫ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-১৩ ৮:১১:০৬ পিএম

জ্যেষ্ঠ প্রতিবেদক : ডিজিটাল বাংলাদেশের রূপকার ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগ সরকার দেশের আইসিটি খাতকে আরো এগিয়ে নিতে এই খাতে বরাদ্দ বাড়িয়েছে। ২০১৯-২০ অর্থবছরে আইসিটি খাতে বরাদ্দ দেয়ার প্রস্তাব রাখা হয়েছে ১৫ হাজার ৭৭৩ কোটি টাকা। গত অর্থবছরের এই খাতে বরাদ্দ ছিলো ১৩ হাজার ১১১ কোটি টাকা। যা গত বছরের তুলনায় ২ হাজার ৬৬২ কোটি টাকা বেশি।

দেশের আইসিটি খাতকে সরকার খুব গুরুত্ব দিচ্ছে তা গত পাঁচ বছরের বাজেট বরাদ্দ দেখলেই স্পষ্ট হবে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে আইসিটি খাতের উন্নয়নে সার্বিক বরাদ্দ ছিলো ৬ হাজার ১০৭ কোটি টাকা। পাঁচ বছরে বরাদ্দের পরিমাণ প্রায় ২.৫৮ গুন বৃদ্ধি পেয়েছে। পাঁচ বছরের মধ্যে এটি সর্বোচ্চ বাজেট বরাদ্দ। এ বরাদ্দ প্রস্তাব ২০১৮-১৯ অর্থবছরের জিডিপি’র ০.৫৫ শতাংশ এবং ২০১৯-২০ অর্থবছরের জাতীয় বাজেটের প্রায় ৩.০১ শতাংশ।

উন্নয়ন প্রকল্পের বরাদ্দ বিশ্লেষণে দেখা যায় প্রতিবছর এই খাতে বরাদ্দের পরিমাণ বৃদ্ধি পাচ্ছে। ২০১৫-১৬ অর্থবছরে এ খাতে বরাদ্দ ছিলো ৪ হাজার ৮৪৩ কোটি টাকা। পাঁচ বছরে ২.৭০ গুন বৃদ্ধি পেয়ে ২০১৯-২০ অর্থবছরে এই খাতে বরাদ্দের পরিমাণ (থোক বরাদ্দসহ) দাঁড়ায় ১৩ হাজার ৮৭ কোটি টাকায়।

নতুন অর্থবছের এই বাজেট দেশের ৪৮তম এবং বর্তমান সরকারের তৃতীয় মেয়াদের প্রথম। ‘সমৃদ্ধ আগামীর পথযাত্রায় বাংলাদেশ : সময় এখন আমাদের, সময় এখন বাংলাদেশের’ শিরোনামে প্রস্তাবিত বাজেটের আকার ধরা হয়েছে ৫ লাখ ২৩ হাজার ১৯০ কোটি টাকা, যা দেশের ৪৮ বছরের ইতিহাসে সবচেয়ে বড় বাজেট।

এর আগে বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে এ অধিবেশন শুরু হয়। অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বাজেট উপস্থাপন শুরু করেন।  কিন্তু তিনি অসুস্থ হয়ে পড়েল প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা নিজে বাকি বাজেট উপস্থাপন করেন। বাংলাদেশের বাজেট উপস্থাপনের ইতিহাসে এই প্রথম কোনো প্রধানমন্ত্রী বাজেট উপস্থাপন করলেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৩ জুন ২০১৯/রেজা/শাহনেওয়াজ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন