ঢাকা, শুক্রবার, ৩০ কার্তিক ১৪২৬, ১৫ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

আন্তর্জাতিকমানের ওয়ালটন পণ্যে মুগ্ধ কূটনীতিকরা

অগাস্টিন সুজন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১০-২৭ ১:৫৮:১৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১০-২৮ ৫:১৮:৪২ পিএম

উপলক্ষ্যটা ছিল ফুটবল। যা পরিণত হয়েছিল বাংলাদেশে নিযুক্ত বিশ্বের বিভিন্ন দেশের কূটনীতিকদের মিলনমেলায়। খেলার গণ্ডি পেরিয়ে বাংলাদেশে তৈরি উচ্চমানের ওয়ালটন পণ্য আকৃষ্ট করে কূটনীতিকদের। ওয়ালটন পণ্যের ডিজাইন ও মানে তারা মুগ্ধ, অভিভূত। তাদের মুখে ছিল ওয়ালটনের ভূয়সী প্রশংসা।

অ্যাম্বাসি কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০১৯ উপলক্ষে উত্তরার আর্মড পুলিশ ব্যাটালিয়ন হেডকোয়ার্টার্স মাঠে একত্রিত হয়েছিলেন বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত ও কূটনীতিকরা। পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের উদ্যোগে আয়োজিত ‘স্পোর্টস ফর পিস’ স্লোগানে শুক্র ও শনিবার দুই দিনব্যাপী চলে এই প্রতিযোগিতা। এতে অংশ নেয় যুক্তরাষ্ট্র, সৌদি আরব, অস্ট্রেলিয়া, সুইডেন, নরওয়ে, কোরিয়া, ইরাক, পাকিস্তান, শ্রীলঙ্কা, ভিয়েতনাম, মালদীপ, ভূটান, ফিলিস্তিন দূতাবাসের ১৩টি দল। ছিল  জাতিসংঘ, বাংলাদেশ সরকারের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয় এবং কূটনৈতিক পুলিশের আরো ৩টি দল। প্রতিযোগিতার টাইটেল স্পন্সর ছিল বাংলাদেশি মাল্টিন্যাশনাল ব্র্যান্ড ওয়ালটন।

ওয়ালটনের ইন্টারন্যাশনাল বিজনেস ইউনিট (আইবিইউ) প্রেসিডেন্ট এডওয়ার্ড কিম জানান, প্রতিযোগিতা চলাকালে মাঠে অবস্থিত ওয়ালটনের সুসজ্জ্বিত প্যাভিলিয়ন পরিদর্শন করেন বাংলাদেশে নিযুক্ত বিভিন্ন দেশের রাষ্ট্রদূত, কূটনীতিক এবং খোলোয়াড়রা। প্রদর্শিত হয় ওয়ালটনের বিভিন্ন পণ্য। কূটনীতিক ও দর্শনার্থীরা আন্তর্জাতিকমানের ওয়ালটন পণ্য দেখে অভিভূত হন। বিশেষ করে সাইড বাই সাইড ডোরের ওয়ালটন ফ্রিজ, আইওটি বেজড স্মার্ট ইনভার্টার এসি, বাংলা এবং ইংরেজি ভাষায় ভয়েস কমান্ডযুক্ত স্মার্ট টিভির অকুণ্ঠ প্রশংসা করেন। এসব পণ্যের উদ্ভাবনী ডিজাইন তাদের দারুণভাবে আকৃষ্ট করে।

প্রতিযোগিতার উদ্বোধনী দিনে ওয়ালটন প্যাভিলিয়ন পরিদর্শন করেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবাট মিলার। তাকে জানানো হয় ওয়ালটন বাংলাদেশেই বিশ্বমানের টিভি, ফ্রিজ, এসি তৈরি করছে। বিশ্বের শীর্ষ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আমাজনের মাধ্যমে আমেরিকার বাজারে ওয়ালটন পণ্য বিক্রি হতে যাচ্ছে শুনে তিনি ভীষণ খুশি হন।

ওয়ালটন প্যাভিলিয়ন পরিদর্শন করছেন যুক্তরাষ্ট্রের রাষ্ট্রদূত আর্ল রবাট মিলার

 

বাংলাদেশ নিযুক্ত সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত আবদুল্লাহ বিন এইচএম আল-মুতাইরি উচ্চমানের ওয়ালটন পণ্যের অকুণ্ঠ প্রশংসা করেন।

তিনি জানান, তার ঢাকার বাসভবনে ব্যবহৃত টিভি, ফ্রিজ এসিসহ সব পণ্যই ওয়ালটনের।

এছাড়া বাংলাদেশে নিযুক্ত সুইডেন, নরওয়ে, অস্ট্রেলিয়া, ইরাক ও কোরিয়ার রাষ্ট্রদূত ওয়ালটন প্যাভিলিয়ন পরিদর্শন করেন। আসেন জাতিসংঘ এবং শ্রীলঙ্কা দলের খেলোয়াড়রা। সবার মুখেই ছিল ওয়ালটনের প্রশংসা।

ওয়ালটন কর্তৃপক্ষ জানায়, অত্যাধুনিক উৎপাদন ব্যবস্থা, উচ্চমানের পণ্য, সাশ্রয়ী মূল্য, উদ্ভাবনী ও ফলপ্রসূ বিপণন কৌশল এবং দ্রুত ও সর্বোত্তম বিক্রয়োত্তর সেবা দিয়ে দেশের বাজারে শীর্ষে ওয়ালটন। পাশাপাশি বিশ্বের ৩০টিরও বেশি দেশে রপ্তানি হচ্ছে ওয়ালটন পণ্য। এখন ওয়ালটনের টার্গেট ইউরোপ, আমেরিকা ও অস্ট্রেলিয়ার মতো উন্নত বিশ্বে বাজার সম্প্রসারণ। সেজন্য নিজস্ব ব্র্যান্ডের পণ্য রপ্তানির পাশাপাশি ওইএম (ওরিজিনাল ইক্যুপমেন্ট ম্যানুফ্যাকচারার) হিসেবে বিশ্বের বিভিন্ন খ্যাতনামা ব্র্যান্ডের পণ্য তৈরি করে দিচ্ছে তারা। সম্প্রতি দক্ষিণ কোরিয়ার ব্র্যান্ড হুন্দাই এবং ভারতের রিলায়েন্সের সঙ্গে চুক্তি করেছে ওয়ালটন। প্রতিষ্ঠান দুটিকে বিপুল পরিমাণ পণ্য সরবরাহ করবে ওয়ালটন। এছাড়া বিশ্বের শীর্ষ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান আমাজনের মাধ্যমে উত্তর আমেরিকায় যাচ্ছে ওয়ালটন পণ্য।

জানা গেছে, বিশ্বজুড়ে ওয়ালটন ব্র্যান্ডের বিজনেস ভলিউম বাড়াতে পরিকল্পনা মাফিক কাজ চলছে। সর্বাধুনিক প্রযুক্তি, ব্যাপক বিদ্যুৎ সাশ্রয়ী, পরিবেশবান্ধব ও সৃজনশীল ডিজাইনের গ্লোবাল মডেলের পণ্য তৈরি হচ্ছে। ওয়ালটন পণ্যের ডিজাইন, উৎপাদন এবং বিশ্বব্যাপী বিপণন নিয়ে কাজ করছেন ইতালি, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়ার বিশেষজ্ঞদের সমন্বয়ে গঠিত দেশ-বিদেশের খ্যাতনামা প্রকৌশলীরা। উৎপাদন প্রক্রিয়া, গবেষণা ও উন্নয়ন (আরএনডি), মান নিয়ন্ত্রণ বা কোয়ালিটি কন্ট্রোলসহ (কিউসি) বিভিন্ন বিভাগে স্থাপন করা হয়েছে অত্যাধুনিক প্রযুক্তির মেশিনারিজ।

ওয়ালটন প্যাভিলিয়নে বাংলাদেশে নিযুক্ত অস্ট্রেলিয়ার হাইকমিশনার জুলিয়া নিবলেট এবং ওয়ালটন কর্মকর্তারা

 

ওয়ালটন পণ্যে সিই, সিবি, আরওএইচএস, আরইএসিএইচ, ইএমসি, ইইউ, ইউএসএ ইত্যাদি বৈশ্বিক স্ট্যান্ডার্ড এবং কোয়ালিটি নিশ্চিত করা হয়। যার ফলে দেশের বাজারের পাশাপাশি বৈশ্বিক বাজারে ওয়ালটন পণ্যের চাহিদা ব্যাপক বাড়ছে।

এর আগে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে প্রতিযোগিতার উদ্বোধন করেছিলেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান। ভবিষ্যতেও এরকম আয়োজনে ওয়ালটনকে পাশে পাবেন বলে তিনি আশা প্রকাশ করেন।

ওয়ালটন গ্রুপের নির্বাহী পরিচালক এস এম জাহিদ হাসান জানান, অ্যাম্বাসি কাপ ফুটবল টুর্নামেন্ট-২০১৯ অংশ নেয়া খেলোয়াড় ও কূটনীতিকদের অত্যাধুনিক ওয়ালটন কারখানা পরিদর্শনের আমন্ত্রণ জানানো হয়েছে। তাদের অনেকেই ওয়ালটন কারখানা পরিদর্শনের আগ্রহ প্রকাশ করেছেন।

 

ঢাকা/অগাস্টিন সুজন/সাইফ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন