ঢাকা, সোমবার, ২৩ চৈত্র ১৪২৬, ০৬ এপ্রিল ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

জোহা দিবসকে ‘জাতীয় শিক্ষক দিবস’ ঘোষণার দাবি

বিশ্ববিদ্যালয় সংবাদদাতা : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-১৮ ৪:০০:৩৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-১৮ ৪:০০:৩৯ পিএম

দেশের প্রথম শহীদ বুদ্ধিজীবী ড. শামসুজ্জোহার ৫১তম মৃত্যুবার্ষিকীতে জোহা দিবসকে ‘জাতীয় শিক্ষক দিবস’ ঘোষণার দাবি জানিয়েছে রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের (রাবি) শিক্ষক-শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার দিবসটি উপলক্ষে দিনব্যাপী নানা কর্মসূচিতে শিক্ষক-শিক্ষার্থীদের মুখে এ শিক্ষক দিবস ঘোষণার দাবি উঠে আসে।

সকাল ১০টায় বিশ্ববিদ্যালয়ের শহীদ তাজউদ্দীন আহমদ সিনেট ভবনে জোহা স্মারক বক্তৃতা অনুষ্ঠিত হয়েছে। এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে বিশ্ববিদ্যালয়ের রসায়ন বিভাগ।

অনুষ্ঠানে স্মারক বক্তা হিসেবে যুক্তরাজ্যে বাংলাদেশের সাবেক হাইকমিশনার ও রাবির সাবেক উপাচার্য অধ্যাপক এম সাইদুর রহমান বলেন, ‘ভাষা আন্দোলনের পর থেকে বিভিন্ন ঘটনাকে কেন্দ্র করে উত্তাপ হয়ে ওঠে রাজনৈতিক অঙ্গন। ছাত্রনেতা আসাদ ও জহুরুল হকের মৃত্যুর প্রতিবাদে ছাত্ররা মিছিল নিয়ে শহরের দিকে অগ্রসর হয়। তখন ছাত্রদের উপর হামলা হয়। জোহা তখন ঘটনাস্থলে গিয়ে ছাত্রদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যান। ছাত্র-শিক্ষক সম্পর্কে যে সম্প্রীতি, তার প্রকৃষ্ট উদাহরণ হচ্ছে ড. শামসুজ্জোহা। শিক্ষক হিসেবে জোহা স্যারকে আমাদের অনুসরণ করা উচিত।’

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এম আব্দুস সোবহান বলেন, ‘শহীদ ড. জোহা একজন নির্ভীক শিক্ষক ছিলেন। পাকিস্তানি হানাদার বাহিনীর হাত থেকে শিক্ষার্থীদের বাঁচাতে বলিষ্ঠ কণ্ঠে তিনি বলেছিলেন, কোনো ছাত্রের গায়ে গুলি লাগার আগে, যেন আমার গায়ে গুলি লাগে। তার আত্মত্যাগ বিফলে যায়নি। তার আত্মত্যাগের মধ্য দিয়ে দেশের স্বাধীনতা সংগ্রাম আরো বেগবান হয়েছে। তিনি আমাদের অনুপ্রেরণার উৎস হয়ে থাকবেন।’

এ সময় রসায়ন বিভাগের সভাপতি অধ্যাপক বেলায়েত হোসেন হাওলাদারের সভাপতিত্বে বিশ্ববিদ্যালয়ের উপ-উপাচার্য অধ্যাপক আনন্দ কুমার সাহা ও চৌধুরী মো. জাকারিয়া, কোষাধ্যাক্ষ অধ্যাপক এ কে এম মোস্তাফিজুর রহমান, রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত) অধ্যাপক এম এ বারী, জনসংযোগ দপ্তরের প্রশাসক অধ্যাপক প্রভাষ কুমার কর্মকার উপস্থিত ছিলেন।

এদিকে জোহা দিবসকে ‘জাতীয় শিক্ষক দিবস’ ঘোষণার দাবিতে সাধারণ শিক্ষার্থীরা মানবন্ধন, বিশ্ববিদ্যালয় শাখা ছাত্র ফেডারেশনের সংবাদ সম্মেলন, প্রথম আলো বন্ধুসভার গণস্বাক্ষরসহ নানা কর্মসূচি পালিত হয়েছে।

দিবসটি উপলক্ষে ভোরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রশাসন ভবনসহ অন্যান্য ভবনে কালো পতাকা উত্তোলন করা হয়। সকাল ৭টায় শহীদ ড. শামসুজ্জোহার সমাধিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করে এক মিনিট নীরবতা পালন করে বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। এছাড়া শহীদ শামসুজ্জোহা হল ও অন্যান্য আবাসিক হল, বিভাগসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের বিভিন্ন সংগঠন প্রভাতফেরিসহ শহীদ জোহার সমাধিতে পুস্পস্তবক অর্পণ করে।


রাবি/সাইফুর/মাহি