ঢাকা, বুধবার, ১৮ চৈত্র ১৪২৬, ০১ এপ্রিল ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

কোরিয়ান অভিনেতাদের অবাক করা পারিশ্রমিক (পর্ব-১)

রুহুল আমিন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-০৪-২২ ৭:৪৭:৫৭ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৪-২২ ১১:২৭:২৫ এএম
ছবির কোলাজ

রুহুল আমিন : টেলিভিশন ও সিনেমা মিলিয়ে দক্ষিণ কোরিয়ান ইন্ডাস্ট্রিতে বেশ কিছু প্রতিভাবান, দক্ষ ও পরিশ্রমী অভিনেতা রয়েছে। দর্শকদের কাছেও তারা বেশ জনপ্রিয়। সুদর্শন চেহারার পাশাপাশি অভিনয় দক্ষতা তাদের এই পর্যায়ে নিয়ে এসেছে।

অভিনয় করে শুধু যে ভক্ত অনুসারী পেয়েছেন তা কিন্তু নয়, অবাক করা পারিশ্রমিকও পেয়ে থাকেন তারা। আর তাদের অভিনয়শিল্পীদের নারী ও পুরুষের পারিশ্রমিকের বৈষম্যও খুব একটা লক্ষ্য করা যায় না। সাধারণত প্রতি পর্বের হিসেবে পারিশ্রমিক পেয়ে থাকেন দক্ষিণ কোরিয়ান অভিনয়শিল্পীরা। জনপ্রিয়তার ওপর তাদের পারিশ্রমিকও ওঠা-নামা করে।

এ প্রতিবেদনে দক্ষিণ কোরিয়ার কয়েকজন শীর্ষ টিভি অভিনেতার তালিকা দেওয়া হলো, যারা সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক পেয়ে থাকেন।

কিম সো হ্যায়ুন : কিম সো দক্ষিণ কোরিয়ান অভিনেতাদের মধ্যে সবচেয়ে জনপ্রিয়। তিনি ১৯৮৮ সালের ১৬ ফেব্রুয়ারি দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলে জন্মগ্রহণ করেন। উচ্চতায় তিনি ১৭৭ সেন্টিমিটার। তিনি সিরিয়ালের প্রতি পর্বের জন্য ৮৩ হাজার ৯০০ মার্কিন ডলার বা প্রায় ৭০ লাখ টাকা নিয়ে থাকেন। ‘ড্রিম হাই’, ‘মাই লাভ ফ্রম দ্য স্টার’ ও ‘মুন এম্বারাসিং দ্য সান’ সিরিয়ালে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন। এ ছাড়া তিনি বেশ কয়েকটি সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন। এর মধ্যে রয়েছে -‘দ্য থিভস’,  ‘গ্রেটলি’ ও  ‘সিক্রেটলি’। ছেলেবেলায় তিনি খুব অন্তর্মুখী ছিলেন। কেউ কল্পনাও করেনি সেই অন্তর্মুখী শিশু কিম সো কোরিয়ান ইন্ডাস্ট্রিতে ঢুকে এমন জনপ্রিয় হবেন। তার এই সাফল্যের পেছনে তার মায়ের ভূমিকা সবচেয়ে বেশি। কারণ অন্তর্মুখী সেই ছেলেটিকে মা অভিনয় ক্লাসে নিয়ে গিয়েছিলেন এই ভেবে যে, সেখানে গেলে ছেলের ব্যক্তিত্বে কিছুটা পরিবর্তন আসবে। তার মাও বোধহয় কল্পনা করেননি যে, তার ছেলে অভিনয় করে এতটা সফল হবেন এবং কোরিয়ান টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রির সর্বোচ্চ পারিশ্রমিক নেওয়া অভিনেতা হবেন।

হ্যায়ুন বিন : দক্ষিণ কোরিয়ার আরেক জনপ্রিয় অভিনেতা হ্যায়ুন বিন। তিনি বেশ কয়েকটি কোরিয়ান টেলিভিশন সিরিয়ালে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেছেন। তিনিও প্রতি পর্বের জন্য ৮৩ হাজার ৯০০ মার্কিন ডলার অর্থাৎ প্রায় ৭০ লাখ টাকা নিয়ে থাকেন। ‘সিক্রেট গার্ডেন’, ‘মাই নেম ইজ কিম’ ও ‘স্যাম-সুন’সহ বেশ কয়েকটি সিরিয়ালে গুরুত্বপূর্ণ প্রধান চরিত্রে অভিনয় করেন তিনি। যার মাধ্যমে তিনি জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন।

হ্যায়ুন বিন ১৯৮২ সালের ২৫ সেপ্টেম্বর দক্ষিণ কোরিয়ার জামশিলে জন্মগ্রহণ করেন। উচ্চতায় তিনি ১৮০ সেন্টিমিটার।

জো ইন সুং : ‘হোয়াট হ্যাপেনড ইন বালি’, ‘দ্য উইন্ড ব্লোউস দ্যাট উইন্টার’ ও  ‘ইটস ওকে’র মতো বেশ কয়েকটি টেলিভিশন সিরিয়ালে গুরুত্বপূর্ণ চরিত্রে অভিনয় করেছেন জো ইন সুং। এইসব সিরিয়ালে অভিনয় করে এবং নিজের মেধার স্বাক্ষর রেখে দর্শকদের কাছে জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন।

বিশেষ করে ‘ইটস ওকে’ সিরিয়ালে অভিনয় করে তিনি কোরিয়ায় বেশ জনপ্রিয় হয়ে ওঠেন। সুদর্শন চেহারা আর প্রাণবন্ত অভিনয় দক্ষতা তাকে এই জনপ্রিয়তা দেয়। কোরিয়ান টেলিভিশন ইন্ডাস্ট্রির বেশ কয়েকটি পুরস্কার ও মনোনয়ন পেয়েছেন তিনি।

জো ইন সুং ১৯৮১ সালের ২৮ জুলাই দক্ষিণ কোরিয়ার চিনহোরে জন্মগ্রহণ করেন। উচ্চতায় তিনি ১৮৪ সেন্টিমিটার। তিনি প্রতি পর্বের জন্য ৬৭ হাজার ১০০ মার্কিন ডলার অর্থাৎ প্রায় ৫৬ লাখ টাকা নিয়ে থাকেন।

সো জি সাব : ১৯৭৭ সালের ৪ নভেম্বর দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলে জন্মগ্রহণ করেন সো জি। উচ্চতায় তিনি ১৮৫ সেন্টিমিটার। সো জি খুব জনপ্রিয় অভিনেতা, বিশেষ করে তিনি  ‘ওহ মাই ভেনাস’,  ‘কেইন অ্যান্ড অ্যাবেল’ ও  ‘মাস্টার্স সান’সহ বেশ কয়েকটি সিরিয়ালে প্রধান চরিত্রে অভিনয় করে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে ওঠেন। এই সিরিয়ালগুলো কোরিয়াতে অনেক জনপ্রিয় হয়। তিনি প্রতি পর্বের জন্য ৬৭ হাজার মার্কিন ডলার অর্থাৎ প্রায় সাড়ে ৫৫ লাখ টাকা নিয়ে থাকেন। প্রতিভাবান এই অভিনেতা কোরিয়ান দর্শকদের কাছে খুবই জনপ্রিয়।

লি সাং জিআই : ১৯৮৭ সালের ১৩ জানুয়ারি দক্ষিণ কোরিয়ার সিউলে জন্মগ্রহণ করেন লি সাং। তিনি উচ্চতায় ১৮০ সেন্টিমিটার। লি সাং একাধারে অভিনেতা ও জনপ্রিয় গায়ক। তিনি প্রতি পর্বের জন্য ৫৮ হাজার ৭০০ মার্কিন ডলার অর্থাৎ প্রায় ৪৯ লাখ টাকা নিয়ে থাকেন। তিনি গানের সঙ্গে নিজের অভিনয় দক্ষতার সংমিশ্রণের জন্যও দর্শকদের কাছে খুবই জনপ্রিয়।

তথ্যসূত্র : টেনইনসাইডার ডটকম




রাইজিংবিডি/ঢাকা/২২ এপ্রিল ২০১৭/মারুফ/ফিরোজ