ঢাকা, শুক্রবার, ২ কার্তিক ১৪২৬, ১৮ অক্টোবর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

৫০ শিল্পীর বিরুদ্ধে এফআইআর: ফের নরেন্দ্র মোদিকে চিঠি

বিনোদন ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১০-০৯ ৩:৩১:৪৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১০-০৯ ৩:৩৯:১২ পিএম

কিছুদিন আগে রামচন্দ্র গুহ, মণিরত্নম, অপর্ণা সেন, সৌমিত্র চ্যাটার্জি, শ্যাম বেনেগাল, গৌতম ঘোষ, অনুরাগ কাশ্যপ, অঞ্জন দত্তসহ ভারতের ৫০জন বরেণ্য অভিনেতা ও পরিচালকের বিরুদ্ধে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। এর প্রতিবাদে ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিকে এবার খোলা চিঠি লিখলেন ১৮০জন বুদ্ধিজীবী। ভারতীয় একাধিক  সংবাদমাধ্যম এ খবর প্রকাশ করেছে।

এই খোলা চিঠিতে বলা হয়েছে, আমাদের ৪৯জন সহকর্মী, সংস্কৃতিমনস্ক বিশিষ্ট ব্যক্তির বিরুদ্ধে এফআইআর করা হয়েছে। শুধু এই অপরাধে যে তারা সমাজের সম্মানীয় ব্যক্তি হিসেবে দেশে গণপিটুনির বিরুদ্ধে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন। এটা কি নাগরিকদের চুপ করাতে রাষ্ট্রযন্ত্রের অপব্যবহার করে হেনস্থা করা নয়? আমরা সবাই ভারতীয় সংস্কৃতিমনস্ক হিসেবে, বিবেকবান নাগরিক হিসেবে এর তীব্র নিন্দা করি। আমাদের সতীর্থরা প্রধানমন্ত্রীকে যে চিঠি লিখেছিলেন, তার প্রতিটি শব্দ আমরা সমর্থন করি। সাধারণ মানুষের কণ্ঠস্বর এভাবে দমিয়ে রাখা যাবে না। তারা এই ধরনের ঘটনার প্রতিবাদ করবেই।

হিন্দি ভাষায় লেখা নতুন এই খোলা চিঠি গত সোমবার প্রকাশ্যে এসেছে। এতে ১৮০জন বুদ্ধিজীবীর স্বাক্ষর রয়েছে। এ তালিকায় রয়েছেন— অভিনেতা নাসিরুদ্দিন শাহ, ইতিহাসবিদ রোমিলা থাপার, সিনেমাটোগ্রাফার আনন্দ প্রধান, সমাজকর্মী হর্ষ মান্দার, লেখক অশোক বাজপেয়ী ও জেরি পিন্টো, শিক্ষাবিদ ইরা ভাস্কর, কবি জিৎ ঠাইল প্রমুখ।

গণপিটুনি, অসহিষ্ণুতা ইত্যাদি নিয়ে প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি লিখেছিলেন অপর্ণা সেন, সৌমিত্র চ্যাটার্জি, শ্যাম বেনেগাল, গৌতম ঘোষসহ ৫০জন বরেণ্য অভিনেতা ও পরিচালক। তারই অভিযোগে এফআইআর দায়ের করেন আইনজীবী সুধীর কুমার ওঝা।

গত ২৭ জুলাই মুজাফফরপুরের সদর পুলিশ স্টেশনে এসব তারকাদের বিরুদ্ধে অভিযোগ করেন সুধীর কুমার ওঝা। গত ২০ আগস্ট মুজাফফরপুরের চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট তার আবেদন মঞ্জুর করেন। তার ভিত্তিতেই এফআইআর দায়ের হয়েছে। সুধীর কুমার ওঝা বলেন, ‘এই ৫০জন প্রধানমন্ত্রীকে খোলা চিঠি লিখে দেশের মান নষ্ট করেছেন। প্রধানমন্ত্রীর নজরকাড়া পরিশ্রমকেও ছোট করতে চেয়েছেন। উল্টো তারা দেশদ্রোহী ও বিচ্ছিন্নতাবাদীদের সমর্থন করেছেন।’

দেশজুড়ে ধর্মীয় অসহিষ্ণুতা বন্ধের দাবিতে এবং ‘জয় শ্রীরাম’ ধ্বনি তুলে সাম্প্রদায়িক উসকানিমূলক বার্তার প্রতিবাদে গত জুলাইয়ে এসব তারকা শিল্পীরা সরব হয়েছিলেন। ‘জয় শ্রীরাম’, ‘গণপিটুনি’সহ যাবতীয় অসহিষ্ণুতামূলক বিষয় উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির দপ্তরে চিঠিও পাঠান তারা। এজন্য ক্ষমতাসীন দলের রোষানলেও পড়েছিলেন। শুধু তাই নয়, অপর্ণা সেন, কৌশিক সেনসহ একাধিক ব্যক্তিকে প্রাণনাশের হুমকি দেয়া হয়েছিল।

এ প্রসঙ্গে ভারতের বিহার পুলিশের ডিজি গুপ্তেশ্বর পাণ্ডে বলেন, ‘স্থানীয় চিফ জুডিশিয়াল ম্যাজিস্ট্রেটের নির্দেশে এফআইআর দায়ের করা হয়েছে। আমি আশ্বস্ত করতে পারি—পুরোপুরি নিয়ম মেনে তদন্ত হবে। এজন্য উদ্বিগ্ন বা আতঙ্কিত হওয়ার কিছু নেই।’


ঢাকা/শান্ত

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন