ঢাকা, সোমবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

বুলবুলের ক্ষয়ক্ষতি কমাতে অপুর প্রার্থনা

বিনোদন প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১১-০৯ ৭:২৮:০৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১১-০৯ ৭:৪৯:২৭ পিএম

উত্তর-পশ্চিম বঙ্গোপসাগর ও তৎসংলগ্ন এলাকায় অবস্থানরত প্রলয়ঙ্করী ঘূর্ণিঝড় ‘বুলবুল’ আরো শক্তিশালী হয়ে উঠেছে। আবহাওয়া অধিদপ্তরের সবশেষ বিশেষ বুলেটিনে বলা হয়েছে, এটি উত্তর-উত্তরপূর্ব দিকে প্রায় ১৫ কিমি/ঘণ্টা বেগে অগ্রসর হয়ে একই এলাকায় অবস্থান করছে। এই অবস্থায় সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা জানিয়ে ফেসবুকে স্ট্যাটাস দিয়েছেন জনপ্রিয় চিত্রনায়িকা অপু বিশ্বাস।

তিনি লিখেছেন: ‘ঘূর্ণিঝড় বুলবুল এখন বাংলাদেশের উপকূলীয় অঞ্চলের মানুষের কাছে একটি আতঙ্ক। অনিশ্চয়তা ও শঙ্কায় তাদের সময় কাটছে। সৃষ্টিকর্তার কাছে প্রার্থনা করি, তিনি যেন সকলকে ক্ষয়-ক্ষতি থেকে রক্ষা করেন। আমরা যতটুকু পারি, নিজ নিজ অবস্থান থেকে যেন অসহায় মানুষের পাশে দাঁড়াই। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের কাছে আহ্বান, আপনারা অতীতে যেমন নিষ্ঠার সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেছেন, এবারো একইভাবে এই দুর্যোগ মোকাবেলা করতে উপকূলীয় মানুষদের সাহায্য করবেন।’

আজ রাত ৮টা-১২টার মধ্যে সাগরদ্বীপ থেকে বাংলাদেশের খেপুপাড়ায় আঘাত হানবে বুলবুল। আবহাওয়াবিদদের ধারণা, বুলবুল আছড়ে পড়ার সময় এর গতিবেগ থাকবে প্রায় ১২০ কিলোমিটার। কোথাও কোথাও এর গতিবেগ হতে পারে ১৪০ কিলোমিটার পর্যন্ত।

এ সময় নদ-নদী এবং সাগরে জোয়ার থাকবে। জোয়ারের পানি বৃদ্ধির প্রভাবে জলোচ্ছ্বাসের মাত্রা বেশি হবে। এজন্য উপকূলের আট জেলা- সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, বরগুনা, পিরোজপুর, পটুয়াখালী, ভোলা ও চাঁদপুর ঝুঁকিপূর্ণ অবস্থায় রয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় ও মুন ফেজ-এর প্রভাবে উপকূলীয় জেলা চট্টগ্রাম, নোয়াখালী, লক্ষীপুর, ফেনী, চাঁদপুর, বরগুনা, ভোলা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং জেলাসমূহের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহের নিম্নাঞ্চল ৫-৭ ফুট অধিক উচ্চতার জলোচ্ছ্বাসে প্লাবিত হতে পারে। শেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত সাগর খুবই বিক্ষুব্ধ রয়েছে। ভারতের পশ্চিমবঙ্গ ও বাংলাদেশের খুলনা উপকূলে আঘাত হানার পর ঘূর্ণিঝড় বুলবুল দেশের মধ্যাঞ্চলের ওপর দিয়ে বয়ে যাবে। এর প্রভাবে আগামীকাল রোববার ঢাকাসহ বিভিন্ন অঞ্চলে ভারী বৃষ্টি হতে পারে।

বুলবুলের কারণে মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরসমূহকে ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। উপকূলীয় জেলা ভোলা, বরগুনা, পটুয়াখালী, বরিশাল, পিরোজপুর, ঝালকাঠি, বাগেরহাট, খুলনা, সাতক্ষীরা এবং তাদের অদূরবর্তী দ্বীপ ও চরসমূহ ১০ নম্বর মহাবিপদ সংকেতের আওতায় থাকবে। চট্টগ্রাম সমুদ্র বন্দরকে ৯ নম্বর মহাবিপদ সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে। কক্সবাজার সমুদ্রবন্দরকে ৪ নম্বর স্থানীয় হুঁশিয়ারি সংকেত দেখিয়ে যেতে বলা হয়েছে।


ঢাকা/রাহাত সাইফুল/তারা

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন