ঢাকা, সোমবার, ৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

আমি অনিমেষের চেয়ে ম্যাচিউর

স্বরলিপি : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-১৪ ১১:১১:০৮ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-১৪ ১২:১৩:০৩ পিএম
অনিমেষ আইচের সঙ্গে আশনা হাবিব ভাবনা

কোনো পুরুষকে ভালোবাসা আমার জন্য খুবই কঠিন। কাউকে ভালোবাসার আগে বুঝতে চাই, সে আমাকে সম্মান করে কি না। আর একটি বিষয়—সে আমার আশেপাশের নারীদের কীভাবে দেখে। এই দুই বিবেচনায় অনিমেষকে দেখে মনে হয়েছে, হ্যাঁ ওকে ভালোবাসা যায়।

অনিমেষ বয়সে আমার থেকে বড় কিন্তু ভালোবাসায় আমি ওর থেকে ম্যাচিউর। আমার বাবা-মায়ের বিয়ে হয়েছে ১৯৮৮ সালে। এখন ২০২০ সাল চলছে। আমরা দুই বোন। মা-বাবার অনেক ঝগড়া দেখেছি। ছোটবেলায় তাদের ঝগড়া দেখে মনে হতো যে, আসলে কি আব্বু-আম্মুর মধ্যে ভালোবাসা আছে! আব্বু-আম্মু খুব কাছাকাছি বয়সের, তাদের মধ্যে খুব ঝগড়া হতো। পারিবারিক এই আবহ থেকে ভালোবাসা ঠিক কী তা বুঝতাম না।

ছোটবেলা থেকেই আমার ব্যস্ততার শেষ নেই। কাজ করতে করতেই অনিমেষের সঙ্গে পরিচয়। ওর সঙ্গে কাজ করার পর আমার বেস্ট ফ্রেন্ডকে বলেছিলাম ‘দিয়া, আমি এমন একজন ডিরেক্টরের সঙ্গে কাজ করলাম, যার সঙ্গে আসলে বন্ধুত্ব করা যায়।’

নিজের বয়েসি মানুষের সঙ্গে বন্ধুত্ব গড়ে ওঠে না আমার। বেশি বয়েসি মানুষের সঙ্গে ভালো বন্ধুত্ব হয়। যেমন: বাবার বন্ধুও আমার বন্ধু। আমার অনেক বন্ধু আমার মায়ের বয়েসি। বন্ধুত্বের মাঝে খুঁজি—একজন আরেকজনকে বুঝতে পারছি কি না। অনিমেষের ক্ষেত্রেও এই বিবেচনার ব্যতিক্রম হয়নি।

আমরা মানুষের সঙ্গে চলতে চলতেই বুঝে যাই-সে আসলে কেমন। বুঝি বলেই এই সম্পর্কটা আলাদা করে ম্যানেজ করার কথা মাথায় আসে না। রিয়েল সম্পর্ক যেটা, সেটা এমনিতেই টিকে থাকবে। যে মাটিতে গাছ হবে না, সে মাটিতে চারা রোপন করে লাভ নেই। মাটির গুণ থাকতে হবে। সম্পর্কের ক্ষেত্রে মানুষে মানুষে সম্মান থাকতে হবে।

আমাদের প্রতিদিন দেখা হয় না, কথা হয়। সম্পর্কের শুরু থেকেই দুজনের মধ্যে প্রচুর কথা হয়। রাত জেগে জেগে বিভিন্ন রাইটার, ফিল্মমেকার, বই নিয়ে কথা হতো। এরপর ‘ভয়ংকর সুন্দর’ সিনেমার পরিকল্পনা হলো। সিনেমা শেষ হওয়ার পরেই মূলত আমাদের প্রেমের সম্পর্ক গড়ে উঠে।

আমি যেহেতু শিল্পী হওয়ার চেষ্টা করছি, একজন শিল্পীর জীবনে ইনটেলেকচ্যুয়ালিটি বুঝতে পারে, এমন লাইফ পার্টনারের কোনো বিকল্প নেই। অনিমেষ এমন একজন। যে আমার ডিসিশনের প্রতি আস্থা রাখে, সম্মান করে। তার কাছে আমার ইচ্ছার মূল্য অনেক বেশি। ভালোবাসা তো এমনই! এমন বলে ভালোবেসে যাই। দুজন আলাদা মানুষ যে যার জগৎ নিয়ে অনেক বেশি ব্যস্ত থাকি, তারপর ঠিকই কোথায় যেন এক অভিন্ন বিন্দুতে মিলে যাই। এই বিলীন হওয়া মানেই তো প্রেম!




ঢাকা/শান্ত