ঢাকা, শনিবার, ৫ আশ্বিন ১৪২৬, ২১ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

স্কুলে স্কুলে ভর্তিবাণিজ্য : দুদকের কঠোর নজরদারি

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-১২-১৩ ৮:০৩:৪৬ এএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১২-১৩ ৭:৪০:২৫ পিএম
স্কুলে স্কুলে ভর্তিবাণিজ্য : দুদকের কঠোর নজরদারি

এম এ রহমান মাসুম : রাজধানীতে শুরু হয়েছে বেসরকারি ৪০টি স্কুলে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তি। এরই মধ্যে কয়েক লাখ ভর্তিযোগ্য শিশুর অভিভাবক রীতিমতো যুদ্ধে নেমে পড়েছেন।

অভিযোগ রয়েছে, এসব স্কুলে ভর্তি নিয়ে লাখ লাখ টাকার বাণিজ্য হয়ে থাকে। বিভিন্ন সময় স্কুল কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে অভিভাবকদের অভিযোগ শোনা যায়। এমনকি ভর্তি পরীক্ষা বাতিল হওয়ার পরও থেমে নেই অভিযোগ।

অভিভবক কিংবা ভুক্তভোগীদের এমন অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে সম্প্রতি মাঠে নেমেছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) শিক্ষাসংক্রান্ত প্রাতিষ্ঠানিক টিম। এর মধ্যে ভর্তি প্রক্রিয়া নজরদারিতে হর-হামেশাই অভিযানে নামছে দুদক টিম।

এরই ধারবাহিকতায় মঙ্গলবার বিকেলে রাজধানীর ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজের রমনা শাখায় অভিযান পরিচালনা করে দুদক পরিচালক মীর জয়নুল আবেদীনের নেতৃত্বে শিক্ষাসংক্রান্ত প্রাতিষ্ঠানিক টিম।

অভিযানের বিষয়টি নিশ্চিত করে দুদকের উপপরিচালক (জনসংযোগ) প্রণব কুমার ভট্টাচার্য্য রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘আজ দুদকের অভিযোগ কেন্দ্র-১০৬ এ ভর্তিবাণিজ্য নিয়ে অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দুদকের প্রাতিষ্ঠানিক টিম ভিকারুননিসা স্কুল পরিদর্শনে যায়। পরিদর্শনে ভর্তি প্রক্রিয়া সরেজমিনে যাচাই-বাছাই করে। বিস্তারিত পরে বলা যাবে।’

এ বিষয়ে অভিযানে অংশ নেওয়া দুদকের এক ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তা রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে প্রথম শ্রেণির ভর্তির লটারি চলাকালীন দুদক টিম সেখানে উপস্থিত হয়। সেখানে ভর্তির পুরো প্রক্রিয়া সম্পর্কে আমরা অবগত হই। প্রাথমিকভাবে আমাদের মনে হয়েছে তাদের লটারি প্রক্রিয়ায় সচ্ছতা রয়েছে। তবে আমাদের পর্যবেক্ষণ অব্যাহত থাকবে। আমরা চাচ্ছি, ভর্তি প্রক্রিয়ায় যেন কোনো ধরনের বাণিজ্য না হয়, সে বিষয়টি নজরদারি করতে।’

তিনি বলেন, ‘ওই প্রতিষ্ঠানে এ পর্যন্ত আটটি লটারি অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতিটি লটারিতে একজন ম্যাজিস্ট্রেট উপস্থিত থাকছে। লটারি শেষ হওয়ার পরপরই ফলাফল ওয়েবসাইটে দেওয়া হচ্ছে। প্রাথমিকভাবে আমরা অভিযোগের সত্যতা পাইনি। তবে ভর্তি প্রক্রিয়া শেষ না হওয়া পর্যন্ত আমাদের নজরদারি অব্যাহত থাকবে।’

দুদক পরিচালক ও প্রতিষ্ঠানিক টিম প্রধান মীর জয়নুল আবেদীন শিবলীর কাছে এ বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি জনসংযোগ দপ্তরের সঙ্গে যোগাযোগ করার কথা বলেন।

অন্যদিকে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ সূত্রে জানা যায়, এ বছর স্কুলটিতে মোট আসন সংখ্যা ১ হাজার ৮৯২টি। রমনা (প্রধান শাখা), ধানমন্ডি, আজিমপুর ও বসুন্ধরা শাখায় এসব আসন রয়েছে। শাখাগুলোতে মোট লটারি হবে ১০টি। মোট আসনের মধ্যে প্রভাতী ও দিবায় রমনা শাখায় ৬৬০, ধানমন্ডি শাখায় ১৬০, বসুন্ধরা শাখায় ৩৯৬, আজিমপুর শাখায় ৩৯৬ ও ইংরেজি ভার্সনে দুই শাখায় ২৮০টি আসন রয়েছে।

সূত্র জানায়, ভর্তির নীতিমালা অনুযায়ী পাঠরত ছাত্র-ছাত্রীর ভাই-বোনের জন্য ১০ শতাংশ, মক্তিযোদ্ধা কোটায় পাঁচ শতাংশ, প্রতিবন্ধী কোটায় দুই শতাংশ ও শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের জন্য দুই শতাংশ সংরক্ষিত থাকে। এটি মূল লটারির পূর্বেই সম্পন্ন হয়ে থাকে।

আসনের মধ্যে শিক্ষকদের সন্তান লটারি ছাড়াই ভর্তি হতে পারবে। প্রভাতী ও দিবা শাখা মিলিয়ে ১০ ডিসেম্বর তিনটি ক্যাটাগরি, ১১ ডিসেম্বর তিনটি, ১২ ডিসেম্বর দুটি ও ১৩ ডিসেম্বর দুটি ক্যাটাগরিতে লটারি অনুষ্ঠিত হবে।

মাধ্যমিক ও উচ্চ শিক্ষা অধিদপ্তরের (মাউশি) তথ্যমতে, ঢাকা মহানগরীতে তিনটি ফিডার শাখাসহ ৩৮টি সরকারি বিদ্যালয় আছে। এসব স্কুলে প্রথম শ্রেণিতে আসন প্রায় ১০ হাজার। সরকারি বিদ্যালয়ে আসন সংখ্যা কম হওয়ায় প্রতিবছরই বেসরকারি বিদ্যালয়ের দিকে ছুটতে হয় শিক্ষার্থীদের।

রাজধানীতে প্রথম শ্রেণিতে ভর্তিযোগ্য শিশু রয়েছে প্রায় ২ লাখ। রাজধানীর মতিঝিল আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মতিঝিল মডেল হাই স্কুল অ্যান্ড কলেজ, উদয়ন উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, রেসিডেন্সিয়াল মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, বীরশ্রেষ্ঠ মুন্সী আ. রউফ পাবলিক কলেজ, বীরশ্রেষ্ঠ নূর মোহাম্মদ পাবলিক স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মনিপুর উচ্চ বিদ্যালয়, বিএফ শাহীন স্কুল, রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ, হলিক্রস উচ্চ বালিকা স্কুল ও কলেজ, মোহাম্মদপুর প্রিপারেটরি উচ্চ মাধ্যমিক বিদ্যালয়, অগ্রণী স্কুল ও কলেজ, সেন্ট জোসেফ উচ্চ বিদ্যালয়, মোহাম্মদপুর মডেল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, উইলস লিটল ফ্লাওয়ার স্কুল অ্যান্ড কলেজ, জুনিয়র ল্যাবরেটরি স্কুল ও কলেজ, গ্রিনফিল্ড স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মাইলস্টোন কলেজ, ন্যাশনাল আইডিয়াল স্কুলসহ ৪০টি বেসরকারি স্কুলে ভর্তি নিয়ে অভিভাবকরা রীতিমতো যুদ্ধে নেমে পড়েছেন।

এ বিষয়ে ভিকারুননিসা স্কুল অ্যান্ড কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যক্ষ নাজনীন ফেরদৌসকে অনেকবার মোবাইলফোনে কল করা হলেও তিনি রিসিভ করেননি।

তবে ভর্তিসংক্রান্ত বিষয়ে ভিকারুননিসা নূন স্কুল অ্যান্ড কলেজে লটারির দায়িত্বরত ম্যাজিস্ট্রেট মো. মশিউর রহমান বলেন, ‘আজ সকাল থেকে মূল প্রভাতী শাখার প্রথম শ্রেণির ভর্তি লটারি আয়োজন করা হয়েছে। সম্পূর্ণ স্বচ্ছ ও নিরপেক্ষভাবে ভর্তি লটারি কার্যক্রম অনুষ্ঠিত হচ্ছে। প্রথমে ভিকারুননিসা নূন স্কুলের বসুন্ধরা প্রভাতী শাখা এবং পরে দিবা শাখার লটারি কার্যক্রম শুরু করা হয়েছে। লটারির ফলাফল একাধিক রেজিস্ট্রার খাতা ও ভিডিও সিডিতে রেকর্ড করা হচ্ছে। কেউ যদি অনিয়ম বা ভুল হয়েছে এমন অভিযোগ করেন তবে তা আবারো পরীক্ষা-নিরীক্ষা করে দেখা হবে।’

চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি থেকে দুদক ঢাকার শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোতে ভর্তিবাণিজ্য, কোচিংবাণিজ্য ও নিয়োগবাণিজ্যের নামে কোটি কোটি টাকা আত্মসাতের অভিযোগ অনুসন্ধান শুরু করে। দুদকের পরিচালক মীর মো. জয়নুল আবেদীন শিবলীর নেতৃত্বে পাঁচ সদস্যের একটি দল এ দায়িত্ব পালন করছেন।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৩ ডিসেম্বর ২০১৭/এম এ রহমান/সাইফুল

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন