ঢাকা, সোমবার, ১ আশ্বিন ১৪২৬, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

দৃষ্টিনন্দন নীলরাজ বা রাজন

শামীম আলী চৌধুরী : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৬-০১ ৬:১৪:২৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-০১ ৬:১৫:৩৪ পিএম
দৃষ্টিনন্দন নীলরাজ বা রাজন
Walton E-plaza

শামীম আলী চৌধুরী: ‘নীলরাজ’ বা ‘রাজন’ নামটি যেমন সুন্দর, পাখিটি দেখতেও অদ্ভুত সুন্দর এবং দৃষ্টিনন্দন। বাংলাদেশের গ্রামাঞ্চলে কম-বেশি সব জায়গায় বাঁশঝাড় দেখা যায়। আর বনের ভিতর এই বাঁশঝাড়ে নীলরাজ বা রাজন পাখির সবচেয়ে বেশি বিচরণ। কেউ কেউ আবার এই পাখিটিকে ‘কালোঘাড় রাজন’ নামেও জানে। ঘন বাঁশঝাড়েই এদের আবাসস্থল। এদের দৈর্ঘ্য ১৪ থেকে ১৬ সে.মি. আর ওজন ১০ থেকে ১২ গ্রাম হয়।

‘নীলরাজ’-এর মাথা নীল ও পেট সাদা। ঘাড়ের পিছনে কালো পট্টি ও বুকের অর্ধেকাংশ চন্দ্রকৃতি কালো। ছেলে পাখির পেট ও বগল সাদা ছাড়া, দেহ আকাশী নীল বর্ণের হয়। এদের মাথায় কালো মুকুটও থাকে। যার জন্য ইংরেজি ভাষায় একে Monarch ডাকে। ‘নীলরাণী’র দেহ ধুসর বাদামি, মাথা হালকা নীল। গলা ও বুক হালকা নীল। ছেলে ও মেয়ে পাখি উভয়ের চোখ বাদামি। এই প্রজাতির মাঝে আরো ২৩টি উপপ্রজাতি আছে। তার মধ্যে Hypothymis Ayurea গোত্রের ‘নীলরাজ’ আমাদের দেশে দেখা  যায়। ‘নীলরাজ’ বাংলাদেশের একটি সুলভ আবাসিক পাখি। দেশের সব বিভাগের সব বনে এদের বিচরণ দেখা যায়।

 



‘নীলরাজ’ বাংলাদেশ ছাড়াও ভারত, পাকিস্তান, নেপাল, শ্রীলঙ্কা, ভুটান, মিয়ানমার, মালয়েশিয়া, চীন, ইন্দোনেশিয়া, ফিলিপাইন ও ইন্দোচীনসহ দক্ষিণ-পূর্ব এশিয়ায় এর বৈশ্বিক বিস্তৃতি রয়েছে। ‘নীলরাজ’ সচারচর একাকী, জোড়ায় ও চুটকি বা ফ্লাইক্যাচার জাতীয় পাখিদের সাথে মিশ্রঝাঁকে থাকে। প্যারাডাইজ ফ্লাইক্যাচার বা দুধরাজের সঙ্গে ‘নীলরাজ’ এর একটা আদর্শগত মিল খুঁজে পাওয়া যায়। এদের বাসা বানানো পদ্ধতি থেকে শুরু করে খাবার শিকার ও গলার আওয়াজ সব কিছুতেই দারুণ সাদৃশ্য রয়েছে। উভয় প্রজাতির পাখিই পতঙ্গভুক। এরা গাছের ডাল থেকে ডালে উড়ে বেড়ায় ও উড়ন্ত অবস্থায় শিকার করে খাদ্যের ব্যবস্থা করে। প্রজাপতি, মথ ও অন্যান্য উড়ন্ত পোঁকা-মাকড় এদের পছন্দের খাবার।

মার্চ থেকে আগস্ট মাস পর্যন্ত এদের প্রজননের সময়। এই সময়ের মধ্যে এরা জুঁটি বেঁধে বাসা করে ও মেয়ে ‘নীলরাণী’ একসঙ্গে ৩-৪টি ডিম দেয়। পুরুষ ও মেয়ে পাখি মিলেমিশে ডিমে তা দেয়। ১২-১৪ দিনের মাথায় ডিম থেকে বাচ্চা ফুটে বের হয়। বাবা-মা দুজনে মিলেই বাচ্চাদের লালন পালন ও খাদ্যের বন্দোবস্ত করে। একসময় বাচ্চা বড় হয়ে প্রকৃতির সঙ্গে মিশে যায়।

 



বাংলা নাম: নীলরাজা
ইংরেজি নাম: Black-naped Monarch
বৈজ্ঞানিক না: Hypothymis Ayurea

বি.দ্র.: লেখক ছবিগুলো বগুড়ার গন্ডগোল গ্রাম থেকে তুলেছেন



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১ জুন ২০১৯/হাসনাত/তারা

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       
Marcel Fridge