ঢাকা, মঙ্গলবার, ১৯ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০২ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

বিভিন্ন দেশে যেভাবে পালিত হয় মা দিবস

মুজাহিদ বিল্লাহ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৫-১০ ৪:০৪:৩৪ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৫-১০ ৪:০৪:৩৪ এএম

‘মা কথাটি ছোট্ট অতি,

কিন্তু জেনো ভাই,

ইহার চেয়ে নামটি মধুর

তিন ভুবনে নাই।’

মাকে ভালোবাসতে কোনো বিশেষ দিনের প্রয়োজন নেই। তবুও মে মাসের দ্বিতীয় রোববার বিশ্বের অনেক দেশে মায়ের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশে পালন করা হয় ‘মা দিবস’।

একটি গোষ্ঠীর মতে, এই দিনটির সূত্রপাত প্রাচীন গ্রীসের মাতৃ আরাধনার প্রথা থেকে। যেখানে গ্রিক দেবী সিবেল-এর উদ্দেশ্যে পালন করা হতো একটি উৎসব। এশিয়া মাইনরে মহাবিষ্ণুর সময় এবং তারপর রোমে ১৫ মার্চ থেকে ১৮ মার্চের মধ্যে এই উৎসবটি পালিত হতো। প্রাচীন রোমানদের ম্যাত্রোনালিয়া নামে দেবী জুনোর প্রতি উৎসর্গিত আরো একটি ছুটির দিন ছিল। এদিন মায়েদের দেওয়া হতো উপহার।

জুলিয়া ওয়ার্ড হোই রচিত ‘মা দিবসের ঘোষণাপত্র’ মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে মা দিবস পালনের গোড়ার দিকের প্রচেষ্টাগুলোর মধ্যে অন্যতম। আমেরিকান গৃহযুদ্ধ ও ফ্রাঙ্কো-প্রুশীয় যুদ্ধের নৃশংসতার বিরুদ্ধে ১৮৭০ সালে রচিত হোই-এর মা দিবসের ঘোষণাপত্রটি ছিল একটি শান্তিকামী প্রতিক্রিয়া। যাই হোক, বিভিন্ন দেশে নানা আয়োজনে এখন মা দিবস পালন করা হয়।

যুক্তরাষ্ট্রে মা দিবস বিশেষ একটি দিন। বছরের এই দিনে তারা পরিবার এবং মায়েদের সঙ্গে দেখা করতে আসে এবং মায়ের পছন্দের ফুল উপহার দেয়।

সুইডেনে মে মাসের শেষ রোববার মা দিবস পালিত হয়। মা দিবস উপলক্ষে শিশুরা প্লাস্টিকের ফুল বিক্রি করে। ফুল বিক্রি করে যে টাকা পাওয়া যায়, তা দিয়ে মাকে নিয়ে পার্কে এবং প্রিয় রেস্তোরাঁয় খাবার খেতে যায়। তারা মায়েদের হাতে ফুলও তুলে দেয় শুভেচ্ছাস্বরূপ।

তাইওয়ানে মা দিবসের বিশেষ তাৎপর্য রয়েছে। কারণ এ দেশে মা দিবস পালিত হয় গৌতম বুদ্ধের জন্মদিন অনুসারে। এ কারণে দেশটিতে মা দিবস অত্যন্ত পবিত্র  উৎসব হিসেবে পালিত হয়। নানা উৎসাহ উদ্দীপনায় দিনটি পালিত হয়।

জাপানে দিনটি Haha-no-hi নামে পরিচিত। দিনটিতে ছেলে-মেয়েরা খুব ভোরে ঘুম থেকে উঠে ভালোবাসাময় বার্তার মাধ্যমে মাকে শুভেচ্ছা জানায়। প্রত্যেকে মাকে পছন্দের ফুল উপহার দেয়।

যুগোস্লাভিয়ায় মা দিবস উদযাপন করা হয় ডিসেম্বরে। এছাড়া দিবসটি উদযাপনও হয় ভিন্নভাবে। শিশুরা এদিন খুব ভোরে বিছানায় উঠে মাকে বেঁধে ফেলে শক্ত করে। সন্তানকে উপহার না দেওয়া পর্যন্ত এই বাঁধন থেকে মায়ের মুক্তি মেলে না।

জার্মানিতে দিনটি সরকারি ছুটির দিন। মাকে নিয়ে বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে যাওয়ার মাধ্যমে বেশ আনন্দে দিনটি পালিত হয়।

ফ্রান্সে মা দিবস পালিত হয় মে মাসের শেষ রোববার। মজার বিষয় হলো দিনটিতে সন্তানেরা মায়েদের জন্য বিভিন্ন গল্প এবং কবিতা লিখে থাকে। এর মাধ্যমে তারা মায়ের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করে।

তথ্যসূত্র: গুগল ও উইকিপিডিয়া

 

ঢাকা/মারুফ/তারা