ঢাকা, মঙ্গলবার, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৯ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

সচিবসহ নার্সিং কাউন্সিল অবরুদ্ধ

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১০-২২ ৪:৫৭:৩৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১০-২২ ৪:৫৭:৩৭ পিএম

অবিলম্বে লাইসেন্সিং পরীক্ষা নেয়াসহ বিভিন্ন দাবিতে রাজধানীর বিজয় নগরে নার্সিং অ্যান্ড মিড ওয়াইফারি কাউন্সিল অবরুদ্ধ করে রেখেছে আন্দোলনরত নার্সরা।

মঙ্গলবার সকাল ১০টা থেকে কাউন্সিল অবরুদ্ধ করে। এর পর থেকে সেখানে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব (স্বাস্থ্য শিক্ষা) শেখ ইউসুফ হারুনসহ মন্ত্রণালয়ের একাধিক কর্মকর্তাকে অবরুদ্ধ রয়েছে।

বাংলাদেশ ইন্টার্ন নার্সেস অ্যাসোসিয়েশন, লাইসেন্সিং পরীক্ষা বাস্তবায়ন সংগ্রাম পরিষদ ও বাংলাদেশ ডিপ্লোমা স্টুডেন্ট নার্সিং ইউনিয়নের উদ্যোগে অবরোধ কর্মসূচি পালিত হচ্ছে।

নার্সিং অ্যান্ড মিডওয়াইফারি কাউন্সিলের নির্বাহী কমিটির এক বৈঠকে যোগ দিতে স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিবসহ (স্বাস্থ্য ও শিক্ষা) অন্যান্য কর্মকর্তারা সকালে সেখানে এসেছিলেন। তখন থেকে আন্দোলনকারী নার্সরা তাদের সেখানে অবরুদ্ধ করে রাখেন।  বিকেল সাড়ে ৪টায় এ প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত তারা অবরুদ্ধ ছিলেন।

বাংলাদেশ ইন্টার্ন নার্সেস অ‌্যাসোসিয়েশনের সাধারণ সম্পাদক মাহমুদা পারভীন বলেন, ‘স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের রুলস অব বিজনেস অ্যান্ড অনুসরণ না করে এবং বাংলাদেশ নার্সিং ও মিডওয়াইফারি কাউন্সিল আইন ভঙ্গ করে ভিন্ন কোর্স, ভিন্ন নাম, ভিন্ন শিক্ষাগত যোগ্যতা, ভিন্ন কারিকুলাম, ভিন্ন বিভাগ, অভিন্ন নীতিমালা শর্ত, কারিগরি বোর্ডের পেশেন্ট কেয়ার টেকনোলজিস্টদের ডিপ্লোমা ইন নার্সিং সায়েন্স অ্যান্ড মিডওয়াইফারি কোর্সে নিবন্ধনের দাবির মাধ্যমে সৃষ্ট জটিলতার কারণে আট হাজারের বেশি শিক্ষার্থী কম্প্রিহেনসিভ বা লাইসেন্স পরীক্ষা গত এক বছর ধরে দিতে পারছেন না।’

তিনি বলেন, ‘দ্রুত কম্প্রিহেনসিভ বা লাইসেন্সিং পরীক্ষা গ্রহণের দাবিতে আজ এই স্বাস্থ্য সচিবসহ নার্সিং কাউন্সিল অবরুদ্ধ করে রাখা হয়েছে।’

স্বাধীনতা নার্সেস পরিষদের মহাসচিব মো. ইকবাল হোসেন সবুজ বলেন, ‘এক বছর ধরে নার্সিংয়ের শিক্ষার্থীরা কমপ্রিহেনসিভ পরীক্ষা দিতে পারছে না। আমি প্রধানমন্ত্রী, স্বাস্থ্যমন্ত্রীসহ সংশ্লিষ্ট সবার কাছে অনুরোধ করব যেন তাদের পরীক্ষার সুযোগ করে দেওয়া হয়।’


ঢাকা/সাওন/সনি

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন