ঢাকা, বুধবার, ৯ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৪ জুলাই ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

কুতুবের ব্যক্তিগত হাজিরার অব্যাহতির আবেদন নামঞ্জুর

মামুন খান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৮-০৫-১৫ ৭:২১:৩৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৮-০৫-১৫ ৭:২১:৩৭ পিএম
কুতুবের ব্যক্তিগত হাজিরার অব্যাহতির আবেদন নামঞ্জুর
Voice Control HD Smart LED

নিজস্ব প্রতিবেদক : দুর্নীতির অভিযোগে দায়ের করা মামলায় ভূমিমন্ত্রীর ব্যক্তিগত কর্মকর্তা কুতুব উদ্দিন আহমেদের ব্যক্তিগত হাজিরা থেকে অব্যাহতির আবেদন নামঞ্জুর করেছেন আদালত।

মঙ্গলবার ঢাকা মহানগর হাকিম প্রণব কুমার হুই এর আদালত এ আদেশ দেন। একই সঙ্গে আগামী ২৬ জুন মামলার তদন্ত প্রতিবেদন দাখিলের তারিখ ধার্য করেছেন। ওই দিন আসামিকে আদালতে হাজির থাকতে নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

দুদকের কোর্ট ইন্সপেক্টর মো. আশিকুর রহমান এসব তথ্য জানিয়েছেন।

ফৌজদারী কার্যবিধি আইনের ২০৫ ধারায় আদালতে দাখিল করা হাজিরা অব্যাহতির আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী শাহনাজ আক্তার ও মো. শাহিম উদ্দিন। অপরদিকে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) পক্ষে এর  বিরোধিতা করেন আইনজীবী রফিকুল ইসলাম জুয়েল।

উভয়পক্ষের শুনানি শেষে আদালত আসামির আবেদন নাকচ করেন।

প্রসঙ্গত, গত ৮ এপ্রিল দুপুরে মামলা দায়েরের পর সেগুনবাগিচা এলাকা থেকে কুতুব উদ্দিনকে গ্রেপ্তার করে দুদক। ওইদিন বিকেলে আদালত তাকে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন আদালত। এরপর গত ১৯ এপ্রিল ঢাকার সিনিয়র স্পেশাল জজ আদালত থেকে জামিন পান কুতুব উদ্দিন।

মামলার এজাহার থেকে জানা যায়, গুলশান ১ নম্বরের ১ নম্বর রোডের ২০ নম্বর বাড়ি পরস্পর যোগসাজশে আত্মসাৎ করেন কুতুব। ১০ কাঠার ওপর বাড়িটির দলিলে শ্বশুর আবদুল জলিল মৃধার নাম থাকলেও প্রকৃত মালিক কুতুব উদ্দিন। ভূমি মন্ত্রণালয়ের ক্ষমতা দেখিয়ে ও অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে কৌশলে গেজেট নোটিফিকেশনের মাধ্যমে রাজউকের হুকুম দখল করা সম্পত্তি অবমুক্ত করা হয়। এরপর সাঈদ নামে এক ব্যক্তিকে জমির ভুয়া আমমোক্তার সাজিয়ে শ্বশুরসহ আরো দুজনকে ক্রেতা সাজিয়ে জমিটি আত্মসাৎ করা হয়।

জানা যায়, শ্বশুরের নামে জমিটি ক্রয় দেখানো হলেও তিনি কখনও জমি ভোগ করেননি বা সেখানে বসবাস করেননি। কুতুবই জমিটি দখলে রেখেছেন। এমনকি সপরিবারে তিনি সেখানে বসবাসও করছেন। এ জমির অপর ক্রেতা হিসেবে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিক্যাল  বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রাক্তন অধ্যাপক ডা. একেএম আনোয়ার উল্লাহ ও তার স্ত্রী অধ্যাপক ডা. সামসুন্নাহারের নাম থাকলেও তারা ওই জমি ভোগদখল করেননি। এমনকি জমিটি তাদের দখলেও নেই। কুতুব তাদের প্রভাবিত ও প্ররোচিত করে কম দামে গুলশানে জমি কিনে দেওয়ার প্রলোভন দেখিয়ে তাদের কাছ থেকে টাকা নিয়ে তাদের নাম দলিলে ক্রেতা হিসেবে অন্তর্ভুক্ত করেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৫ মে ২০১৮/মামুন খান/সাইফ

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge