ঢাকা, মঙ্গলবার, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৯ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ইরানে যুক্তরাষ্ট্রের সাইবার হামলা

এনএ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৬-২৩ ১২:৪১:৪০ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-২৪ ৮:১২:২৪ এএম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ইরানের অস্ত্র ব্যবস্থার ওপর সাইবার হামলা চালিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র। প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ইরানে বিমান হামলার সিদ্ধান্ত থেকে সরে আসার পর বৃহস্পতিবার দেশটির বিরুদ্ধে এই সাইবার হামলা হয়।

ওয়াশিংটন পোস্টের বরাত দিয়ে রোববার বিবিসি জানিয়েছে, ইরানের রকেট ও ক্ষেপণাস্ত্র ব্যবস্থা নিয়ন্ত্রণকারী কম্পিউটার সিস্টেমে সাইবার হামলা চালিয়ে তা অকার্যকর করে দিয়েছে যুক্তরাষ্ট্র।

নিউ ইয়র্ক টাইমসের এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ওমান সাগরে দু'টি তেলের ট্যাঙ্কারে বিস্ফোরণ এবং একটি মার্কিন ড্রোন ভূপাতিত করার প্রতিশোধ হিসেবে যুক্তরাষ্ট্র এই সাইবার হামলা চালিয়েছে।

এ ছাড়া ট্রাম্প সরকার ইরানের বিরুদ্ধে বড় ধরনের অবরোধও আরোপ করেছে। এ বিষয়ে ট্রাম্প বলেন, ইরানের পরমাণু অস্ত্র তৈরি ঠেকাতে এবং তাদের ওপর অর্থনৈতিক চাপ প্রয়োগের জন্য এই নিষেধাজ্ঞার প্রয়োজন রয়েছে।

ড্রোন ভূপাতিত করার কথা স্বীকার করলেও তেলের ট্যাঙ্কারের বিস্ফোরণের ঘটনা বরাবরই অস্বীকার করে আসছে ইরান। কিন্তু ওই বিস্ফোরণের জন্য ইরানকেই দোষারোপ করছে যুক্তরাষ্ট্র এবং তাদের মিত্র দেশ সৌদি আরব।

এসব ঘটনাকে কেন্দ্র করে সাম্প্রতিক সময়ে যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে নতুন করে উত্তেজনা শুরু হয়েছে। এর মধ্যেই ইরানের ওপর আরও গুরুতর নিষেধাজ্ঞার ঘোষণা দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

প্রসঙ্গত, ইরানের পরমাণু কার্যক্রম বিষয়ে বিশ্বের পরাশক্তিগুলোর সঙ্গে ২০১৫ সালে চুক্তি হয়েছিল ইরানের। সে অনুযায়ী কিছু বিষয়ে নিষেধাজ্ঞাও তুলে নেয়া হয়েছিল এবং ইরানকে তেল রফতানির অনুমতি দেয়া হয়েছিল।

কিন্তু যুক্তরাষ্ট্র গত বছর ওই চুক্তি থেকে নিজেকে প্রত্যাহার করে নেয় এবং ইরানের ওপর নিষেধাজ্ঞা জারি করে। এতে ইরান আবারও অর্থনৈতিক মন্দার সম্মুখীন হয়। এর পর থেকে যুক্তরাষ্ট্র ও ইরানের মধ্যে উত্তেজনা বাড়তে থাকে।

তবে যুক্তরাষ্ট্র ইরানের বিরুদ্ধে যে একতরফা নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে তার নিন্দা জানায় চীন ও রাশিয়া।

এর আগে আন্তর্জাতিক আণবিক শক্তি সংস্থা (আইএইএ) এ পর্যন্ত ১৫টি প্রতিবেদনে একথার সত্যতা নিশ্চিত করেছে যে, ২০১৫ সালে পরমাণু সমঝোতা স্বাক্ষর করার পর থেকে এখন পর্যন্ত ওই সমঝোতার কাঠামোর আওতায় থেকে নিজের পরমাণু কর্মসূচি পরিচালনা করেছে ইরান।

কিন্তু প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প সেসব প্রতিবেদনের প্রতি ভ্রুক্ষেপ না করে গত বছরের মে মাসে পরমাণু সমঝোতা থেকে তার দেশের বের হয়ে যাওয়া ঘোষণা দেন। এর পর গত নভেম্বরে ইরানের বিরুদ্ধে একতরফা নিষেধাজ্ঞাও আরোপ করেন।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৩ জুন ২০১৯/এনএ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন