ঢাকা, মঙ্গলবার, ৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ১৯ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

দুটি লাশের জন্য অপেক্ষা

শাহেদ হোসেন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৬-৩০ ৯:১০:২৭ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৭-১৬ ৫:৫১:৫৬ পিএম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : একসঙ্গেই তারা নেমেছিলেন রিও গ্রান্দে নদীতে। কিন্তু বিশ্বাসঘাতক রিও গ্রান্দের স্রোত স্বামী অস্কার আলবার্তো মার্টিনেজ রামিরেজ (২৫) আর দুই বছরের ফুটফুটে মেয়ে অ্যাঙ্গি ভ্যালেরিয়াকে তীরে জীবিত ভীড়তে দেয়নি। বেঁচে যাওয়া তানিয়া ভানেসা আভালোসকে স্বামী-সন্তানের কফিনবন্দী লাশ নিতে শেষ পর্যন্ত ফিরতে হয়েছে জন্মভূমি এল সালভাদরে।

অবৈধ পথে যুক্তরাষ্ট্রে যাওয়ার জন্য এল সালভাদরের নাগরিক অস্কার গত রোববার বিকেলে মেয়ে ভ্যালেরিয়া ও স্ত্রী তানিয়াকে নিয়ে  মেক্সিকোর মাতামোরোসের তামালিপাস প্রদেশের রিও গ্রান্দে নদীর তীরে এসেছিলেন। মেয়েকে ওপারে বসিয়ে রেখে স্ত্রীকে আনতে ফের উত্তাল নদীতে নামেন অস্কার। ছোট্ট ভ্যালেরিয়া বাবাকে ছাড়তে চাইছিল না। বাবার সঙ্গে সেও নদীতে ঝাঁপ দেয় । অস্কার তখন নিজের টি-শার্টটিকে ক্যারিয়ার বানিয়ে এর ভেতরে মেয়েকে ঢুকিয়ে নিয়েছিলেন। কিন্তু স্রোতের টানে পানিতে ডুবে যায় দুজনই। তানিয়ার চোখের সামনেই ভেসে যায় স্বামী-সন্তান।

বাবা-মেয়ের করুণ মৃত্যুর এই ছবি দ্রুত ছড়িয়ে পড়ে ইন্টারনেট দুনিয়ায়। তীব্র সমালোচনা শুরু হয় মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের অভিবাসন নীতির বিরুদ্ধে।

মেক্সিকো সরকার জানিয়েছে, স্বামী-সন্তানের দাফনের জন্য তানিয়াকে এল-সালভাদরে ফিরতে হয়েছে। রোববার দুজনের কফিনবন্দী লাশ দেশে ফেরার কথা। মেক্সিকোর পররাষ্ট্র সম্পর্ক বিষয়ক উপমন্ত্রী মাউরিসিও ক্যাবরেরার পাশে থাকা তানিয়া গণমাধ্যমের সামনে কোনো মন্তব্য করতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন।

তবে ক্যাবরেরা দেশবাসীর উদ্দেশ্যে বলেছেন, ‘আপনার ও আপনার শিশুর জীবন ঝুঁকিতে ফেলবেন না। মানবপাচারকারীদের বিশ্বাস করবেন না, যারা স্রেফ নিজেদের মুনাফা খোঁজে এবং  যারা প্রায়ই তাদের প্রতিশ্রুতি রাখতে ব্যর্থ হয়।’


রাইজিংবিডি/ঢাকা/৩০ জুন ২০১৯/শাহেদ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন