ঢাকা, শনিবার, ২১ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৭ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

নিজেকে ভারতের মেয়ে মনে করেন তসলিমা

শাহেদ হোসেন : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৭-২৩ ১০:৪৯:০৮ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৭-২৩ ১০:৪৯:০৮ এএম

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : ভারতে স্বেচ্ছায় নির্বাসিত লেখিকা তসলিমা নাসরিন বলেছেন, তাকে ভারতে বিদেশি বলা হয়। অথচ তিনি নিজেকে ভারতের মাটির কন্যা হিসেবে অনুভব করেন। তার পোষা বিড়ালটিও ভারতীয়।

রোববার তসলিমাকে আরো এক বছর থাকার অনুমতি দিয়েছে ভারত সরকার। তবে তসলিমার দাবি এতে প্রতিবছর তাকে উদ্বেগের মধ্যে থাকতে হয়। তাই ভারত সরকার যাতে তাকে দীর্ঘ মেয়াদে কিংবা স্থায়ীভাবে সেদেশে থাকার অনুমতি দেয় সেই প্রসঙ্গে তিনি এ কথা বলেছেন।

প্রেস ট্রাস্ট অব ইন্ডিয়াকে (পিটিআই) দেওয়া সাক্ষাৎকারে তসলিমা নাসরিন বলেছেন,‘আমাকে বিদেশি ডাকা হয়। কিন্তু আমি নিজেকে এই মাটির কন্যা বলে অনুভব করি। আমি আশা করি সরকার আমাকে স্থায়ী কিংবা দীর্ঘ মেয়াদে থাকার অনুমতি দেবে। আমি ২৫ বছর নির্বাসনে পার করেছি, এখনো আমাকে প্রত্যেক বছর পায়ের নিচের মাটি নিয়ে উদ্বেগের মধ্যে থাকতে হয়। এটি আমার লেখালেখির ওপরও প্রভাব ফেলছে।’

তিনি বলেন, ‘ভারত আমার বাড়ি। সবচেয়ে ভালো হয় যদি আমাকে প্রত্যেক বছর উদ্বিগ্ন হতে না হয়। পাঁচ কিংবা ১০ বছরের জন্য থাকার অনুমতি দেওয়ারও সুযোগ আছে। আমার বাকী জীবন ভারতে কাটিয়ে দিতে চাই, যার জন্য ২০১৪ সালে প্রাক্তন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী রাজনাথ সিংকে আমি অনুরোধ জানিয়েছিলাম।’

বাকী জীবন দিল্লিতে কাটিয়ে দেওয়ার ইচ্ছা ব্যক্ত করে তসলিমা নাসরিন বলেন, ‘আপনি যদি আমাকে ভারতীয় হিসেবে বিবেচনা করেন, আমার বিড়ালটিও ভারতীয়, যেটি আমার মেয়ের মতো এবং আমার সঙ্গে ১৬ বছর ধরে আছে।’


রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৩ জুলাই ২০১৯/শাহেদ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন