ঢাকা, রবিবার, ২০ আষাঢ় ১৪২৭, ০৫ জুলাই ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

ডব্লিউএইচও’র সঙ্গে সম্পর্ক ছিন্ন করলেন ট্রাম্প

আন্তর্জাতিক ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৫-৩০ ৮:৫৪:২৪ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৬-০৩ ৮:৩৯:১৭ এএম

করোনাভাইরাস নিয়ে চীনের পক্ষপাতিত্ব করায় আগেই বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থাকে (ডব্লিউএইচও) অর্থ সাহায্য বন্ধের ঘোষণা দিয়েছিল। এবার আরো এক ধাপ এগিয়ে তাদের সঙ্গে আনুষ্ঠানিক সম্পর্ক ছিন্ন করতে যাচ্ছে যুক্তরাষ্ট্র। জাতিসংঘের সংস্থাকে অভ্যন্তরীণ সংস্কারের প্রস্তাব দেওয়ার পর তাতে সাড়া না পাওয়ায় শুক্রবার এ কথা ঘোষণা করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প।

এই মাসের শুরুতে চীনের ওপর নির্ভরতা কাটিয়ে উঠতে ডব্লিউএইচওকে একাধিক অভ্যন্তরীণ সংস্কার আনার আল্টিমেটাম দেন ট্রাম্প। কিন্তু সংস্থাটি তা আমলে নেয়নি বললেন আমেরিকার প্রেসিডেন্ট। তার দাবি, বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থা সংস্কারে চূড়ান্ত ব্যর্থ হয়েছে এবং চীন নির্ভরতা কাটাতে পারেনি। এ কারণে সম্পর্ক ছিন্ন করার মতো কঠোর পদক্ষেপ নিতে হলো। প্রতিষ্ঠানকে এতদিন ধরে দেওয়া বার্ষিক ৪৫ কোটি ডলার এখন থেকে অন্য সংস্থার মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে জরুরি স্বাস্থ্য প্রকল্পে ব্যয় করা হবে জানালেন ট্রাম্প।

হোয়াইট হাউজের রোজ গার্ডেনে শুক্রবার ট্রাম্প বলেছেন, ‘তারা আমাদের অনুরোধ রাখতে ব্যর্থ হয়েছে এবং প্রয়োজনীয় সংস্কারও করেনি। তাই আজ আমরা বিশ্ব স্বাস্থ্য সংস্থার সঙ্গে আমাদের সম্পর্ক ছিন্ন করতে যাচ্ছি। আর তাদের দেওয়া ফান্ডগুলো অন্য সংস্থার মাধ্যমে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্তে জরুরি স্বাস্থ্য প্রকল্পে দেওয়া হবে।’

বৃহস্পতিবার করোনাভাইরাসকে ‘চীনের জঘন্য উপহার’ বলেছিলেন ট্রাম্প। এর একদিন পর আবারো চীনাদের দিকে আঙুল তুলে বললেন, ‘ভাইরাস নিয়ে চীনের কাছ থেকে জবাব চায় বিশ্ব, আমাদের অবশ্যই স্বচ্ছ থাকতে হবে।’ করোনাভাইরাস সম্পর্কে চীন ডব্লিউএইচওকে সঠিক তথ্য দেয়নি অভিযোগ করলেন ট্রাম্প এবং বললেন বিশ্বকে ভুল দিকে পরিচালিত করতে প্রতিষ্ঠানটিকে চাপ দিয়ে গেছে চীনারা।

ডব্লিউএইচও’র মুখপাত্র শুক্রবার সিএনএনকে বলেছেন, ‘এই মুহূর্তে আমাদের কোনো মন্তব্য নেই।’ এদিকে

এদিকে হংকং ইস্যুতেও কঠোর পদক্ষেপ নিতে চলেছেন ট্রাম্প। এতদিন ধরে হংকংয়ের ক্ষেত্রে বিশেষ ব্যবস্থা চালু ছিল মার্কিন প্রশাসনে। তাদের বিশেষ মর্যাদাটা তুলে নেওয়া হবে জানালেন প্রেসিডেন্ট। ফলে চীনের মূল ভূখণ্ডের মতোই সমান মর্যাদা পাবে হংকং।

‘এক দেশে, দুই নীতি’র হিসাবে হংকং চীনের অবিচ্ছেদ্য অঙ্গ হলেও পূর্ণ স্বাধীনতা ভোগ করে হংকং। তবে সম্প্রতি চীনারা নতুন জাতীয় নিরাপত্তা আইনের অনুমোদন দেওয়ায় হংকং স্বায়ত্তশাসন হারাবে। এরই প্রতিক্রিয়ায় হংকং ইস্যুতে মার্কিন নীতি বদলের ঘোষণা দিলেন ট্রাম্প।


ঢাকা/ফাহিম