ঢাকা, সোমবার, ২৯ আষাঢ় ১৪২৭, ১৩ জুলাই ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

গবেষণা: বয়স্করা করোনা নিয়ে মাথা ঘামান না

নিউজ ডেস্ক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৬-০২ ৮:১৬:৫১ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৬-০৫ ১০:৫৭:৩৭ এএম

করোনাভাইরাস বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে পড়ার পর মানুষের জানার আগ্রহের কেন্দ্রবিন্দুতে ছিল কোন শ্রেণির মানুষ সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে আছে? গবেষকরা জানিয়েছিলেন করোনাভাইরাসে সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে আছেন বয়স্করা। এখন পর্যন্ত বিশ্বব্যাপী বয়স্ক মানুষেরই বেশি মৃত্যু হয়েছে।

তবে জর্জিয়া স্টেট ইউনিভার্সিটির এক গবেষণায় উঠে এসেছে বয়স্করা করোনাভাইরাস নিয়ে কম দুশ্চিন্তা করেন। অর্থাৎ তারা প্রাণঘাতী এই ভাইরাসটি নিয়ে মাথা ঘামান না। এমনকি তোয়াক্কা করেন না স্বাস্থ্যবিধি ও নিয়ম-কানুনের।

গবেষকরা অনলাইনে মার্চের মাঝামাঝিতে এই গবেষণা শুরু করেন। সেখানে ১৮ থেকে ৩৫ ও ৬৫ থেকে ৮১ বছর বয়সীদের নিয়ে গবেষণা চালান।

তারা অনলাইনে নির্দিষ্ট কিছু প্রশ্ন ছুড়ে দিয়ে তাদের কাঙ্খিত উত্তর খোঁজার চেষ্টা করেছেন। প্রশ্নগুলোর মধ্যে ছিল—করোনাভাইরাস নিয়ে তারা কতোটা উদ্বিগ্ন, তাদের পরিবার-পরিজন ও প্রিয়জনদের সুরক্ষা নিয়ে কতোটা চিন্তিত, করোনাভাইরাস রুখতে কি কি করছেন? ইত্যাদি, ইত্যাদি।

সেখানে দেখা গেছে ১৮-৩৫ বছর বয়সীরা এটি নিয়ে বেশি উদ্বিগ্ন ও দুশ্চিন্তাগ্রস্ত। তারা করোনা রুখতে মাস্ক পরিধান করছে, স্যানিটাইজার ব্যবহার করছে, জনসমাগম এড়িয়ে চলছে, কারো সঙ্গে দেখা হলে নির্দিষ্ট দূরত্ব বজায় থাকছে এবং হ্যান্ডশেক করছে না।

তরুণদের মধ্যে ৬০ শতাংশ জনসমাগম এড়িয়ে চলার বিষয়টি উল্লেখ করেছে। ৮০ শতাংশ জনাকীর্ণ এলাকার পাশাপাশি হ্যান্ডশেকও এড়িয়ে চলার বিষয়টি জানিয়েছে।

কিন্তু ৬৫ থেকে ৮১ বছর বয়সীদের মধ্যে করোনা নিয়ে খুব একটা দুশ্চিন্তার চিত্র উঠে আসেনি। এমনকি করোনাভাইরাস রুখতে যেসকল স্বাস্থ্যবিধি ও নিয়ম-কানুন মানতে বলা হয়েছে সেগুলো নিয়েও খুব একটা আগ্রহ নেই তাদের।

তবে বয়স্করা যেহেতু করোনা নিয়ে কম চিন্তা করছেন, সেহেতু এটার একটা ভালো প্রভাব তাদের মধ্যে রয়েছে। কিছু কিছু ক্ষেত্রে বয়স্কদের দুশ্চিন্তা না করা এবং উদ্বিগ্ন না হওয়াটা ভালো দিক।

 

ঢাকা/আমিনুল