ঢাকা     শনিবার   ০৮ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২৪ ১৪২৭ ||  ১৮ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

‘স্পেনে করোনায় মারা যেত সাড়ে ৪ লাখ’

নিউজ ডেস্ক || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ০০:৩৯, ২১ জুন ২০২০  

করোনাভাইরাসের সংক্রমণ রুখতে ১৪ মার্চ লকডাউন ঘোষণা করে স্পেন। শনিবার (২০ জুন) মধ্যরাত থেকে সেখানে আর নেই লকডাউন কিংবা জরুরি অবস্থা। খুলে দেওয়া হচ্ছে সীমান্ত।

লকডাউন তোলার আগে স্পেনের প্রধানমন্ত্রী পেদ্রো সানচেজ দাবি করেছেন তারা ৪ লাখ ৫০ হাজার মানুষকে করোনায় মারা যাওয়ার হাত থেকে রক্ষা করতে পেরেছেন। পাশাপাশি তিনি এও সতর্ক করেছেন যে প্রাণঘাতী এই ভাইরাস পুনরায় ফিরে আসতে পারে। খবর আল জাজিরা ও আনাদোলু এজেন্সির।

পেদ্রো বলেছেন, ‘করোনাভাইরাসে আমরা নাকাল হয়েছিলাম। তবে আমরা ঘুরে দাঁড়িয়েছি। দেশের জরুরি অবস্থার প্রতি ধন্যবাদ। কারণ, জরুরি অবস্থা ও লকডাউন জারির মাধ্যমে আমরা ৪ লাখ ৫০ হাজার মানুষের জীবন বাঁচাতে পেরেছি। তবে এই ভাইরাসটি আবার ফিরে আসতে পারে। দ্বিতীয়বার আঘাত হানতে পারে। আমাদের এটা যেকোনো মূল্যে রুখতে হবে। সাবধান থাকতে হবে। স্বাস্থ্যবিধি ও অন্যান্য নিয়ম-কানুন মেনে চলতে হবে।’

স্পেনের সব জায়গার লকডাউন তুলে নেওয়া হলেও মাদ্রিদের লকডাউন থাকবে আরো কিছুদিন। সবার মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক থাকবে। যদিও ৩ ফিট দূরত্বের বিষয়টি মানা, না মানা নিয়ে কঠোরতা থাকছে না।

স্পেনে এ পর্যন্ত করোনাভাইরাসে ২৮ হাজার ৩২২ জনের মৃত্যু হয়েছে। আক্রান্ত হয়েছে ২ লাখ ৪৫ হাজার ৯৩৮ জন।

লকডাউন ও জরুরি অবস্থা পুরোপুরি তুলে নেওয়ার আগের দিন (শনিবার) বেড়েছে আক্রান্ত ও মৃতের সংখ্যা। গেল ২৪ ঘণ্টায় আক্রান্ত হয়েছে ৩৬৩জন। যা আগের দিনের চেয়ে কিছুটা বেশি। আর আগের দিনের চেয়ে ৭ জন বেশি মারা গেছে শনিবার।

 

ঢাকা/আমিনুল

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়