ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ৪ আশ্বিন ১৪২৬, ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

স্কুল সংস্কার ও সড়ক নির্মাণের অর্থ লোপাট

এম এ রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-২৩ ৬:১৯:৫৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-২৩ ৬:১৯:৫৮ পিএম
স্কুল সংস্কার ও সড়ক নির্মাণের অর্থ লোপাট
Walton E-plaza

নিজস্ব প্রতিবেদক : সরকারি স্কুল ও সড়ক নির্মাণের অর্থ আত্মসাতের প্রমাণ পেয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশনের (দুদক) এনফোর্সমেন্ট টিম।

দুদকের অভিযানে পঞ্চগড়ের দেবীগঞ্জে বিদ্যালয় সংস্কার ও কুষ্টিয়া হাউজিং এস্টেটের সড়ক নির্মাণে দুর্নীতির এ তথ্য বেরিয়ে আসে। দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য এ তথ্য জানিয়েছেন।

দুদক জানায়, দুদকের অভিযোগকেন্দ্রে প্রাপ্ত অভিযোগের পরিপ্রেক্ষিতে দিনাজপুর সমন্বিত জেলা কার্যালয়ের উপ-পরিচালক আবু হেনা আশিকুর রহমানের নেতৃত্বে বৃহস্পতিবার অভিযান চালানো হয়। দুদকের টিম অভিযানকালে তথ্য পায়, ২০১৭ সালে দেবীগঞ্জ উপজেলার ঝলঝলী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় সংস্কারের জন্য ১ লাখ ৩০ হাজার টাকা বরাদ্দ দেওয়া হয়। কিন্তু উক্ত বিদ্যালয়ে নামমাত্র কাজ করে অবশিষ্ট টাকা আত্মসাৎ করা হয়েছে বলে সরেজমিন অভিযানে প্রমাণ পাওয়া যায়। এ অনিয়মের সঙ্গে প্রকল্পের সভাপতি, প্রকল্প বাস্তবায়ন অফিসের (পিআইও) উপ-সহকারী প্রকৌশলী ও প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা প্রাথমিকভাবে জড়িত প্রাথমিক প্রমাণ পাওয়ায় অভিযানকারী টিম এ বিষয়ে অনুসন্ধানের সুপারিশ করেছে।

কুষ্টিয়া হাউজিং এস্টেটের সড়ক নির্মাণে নিম্নমানের সামগ্রী ব্যবহার ও অনিয়মের অভিযোগে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদকেরর কুষ্টিয়া সমন্বিত জেলা কার্যালয়। অভিযানকালে নমুনাস্বরুপ রাস্তার পুরুত্ব, দৈর্ঘ্য ও প্রস্থ পরিমাপ করা হয় এবং পরিমাপে রাস্তার পুরুত্ব কম পাওয়া যায়। আপাতদৃষ্টিতে রাস্তার কাজের গুণগত মান সন্তোষজনক হয়নি মর্মে দুদক টিমের নিকট প্রতীয়মান হয়। নির্মাণকাজে প্রকৃত অনিয়ম ও দুর্নীতির উদঘাটনের নিমিত্তে এ বিষয়ে অনুসন্ধানের অনুমোদন চেয়ে কমিশনে প্রতিবেদন উপস্থাপন করা হয়েছে।

একই সঙ্গে একই টিম কুষ্টিয়ার কুমারখালী পল্লী বিদ্যুৎ অফিসে ব্যাপক গ্রাহক হয়রানির অভিযোগে অভিযান পরিচালনা করেছে। অভিযান পরিচালনাকালে গ্রাহকের আবেদন, দৈনন্দিন কার্যক্রম ও সেবা প্রদানের তালিকা যাচাই করা হয়। টিম দেখতে পায়, আবাসিক সংযোগের ক্ষেত্রে আবেদনের তারিখ হতে ২/৩ দিনের মধ্যে লাইন সংযোগ প্রদানসহ যাবতীয় কার্যক্রম সম্পান্ন করার কথা থাকলেও বেশকিছু ক্ষেত্রে আবেদন অনুমোদন হলেও সরেজমিনে সংযোগ প্রদান করা হয়নি। দুদক টিমের পর্যবেক্ষণকে আমলে নিয়ে উক্ত দপ্তরের উপ-মহাব্যবস্থাপক তাৎক্ষণিকভাবে দায়ী দুই ওয়্যারিং পরিদর্শকের বিরুদ্ধে বিভাগীয় শাস্তি প্রদানের জন্য কারণ দর্শানোর নোটিশ প্রদান করেন।

অন্যদিকে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের কর্মচারীদের বদলিতে অনিয়মের অভিযোগে পরিচালক (স্বাস্থ্য), ঢাকা বিভাগের মতিঝিল কার্যালয়ে অভিযান পরিচালনা করেছে দুদক। দুদক অভিযোগকেন্দ্রে অভিযোগ আসে, উক্ত দপ্তরের পরিসংখ্যানবিদ খলিলুর রহমান ও ল্যাব অ্যাটেনডেন্ট এ বদলি সিন্ডিকেটের সাথে প্রত্যক্ষভাবে জড়িত। দুদকের টিমের উপস্থিতিতে পরিচালক (স্বাস্থ্য) অভিযুক্ত কর্মচারীদের সতর্ক করেন। টিম পরিচালকের দপ্তর হতে বদলি সম্পর্কিত সকল তথ্য সংগ্রহ করে এবং সকল তথ্য বিশ্লেষণপূর্বক কমিশনে বিস্তারিত প্রতিবেদন উপস্থাপন করবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৩ মে ২০১৯/এম এ রহমান/রফিক

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন