ঢাকা, সোমবার, ১৮ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০১ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

২৬০ কোটি টাকা লোপাট, দুদকের চার্জশিট

এম এ রহমান মাসুম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৮-২৬ ৬:৫৯:৩৭ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৮-২৬ ৮:১৬:২৯ পিএম

নিজস্ব প্রতিবেদক : ঋণের নামে বাংলাদেশ কৃষি ব্যাংকের কারওয়ানবাজার শাখা থেকে ২৬০ কোটি ১৮ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে চার ব্যাংক কর্মকর্তাসহ সাতজনের বিরুদ্ধে চার্জশিট অনুমোদন দিয়েছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

সোমবার দুদকের প্রধান কার্যালয়ে কমিশন থেকে ওই চার্জশিট অনুমোদন দেয়া হয়েছে। শিগগিরই চার্জশিট আদালতে দাখিল করা হবে বলে দুদকের জনসংযোগ কর্মকর্তা প্রনব কুমার ভট্টাচার্য্য রাইজিংবিডিকে জানিয়েছেন।

২০১৭ সালের ৪ অক্টোবর দুদকের উপ-সহকারী পরিচালক মোহাম্মদ শাহজাহান মিরাজ বাদী হয়ে সাতজনের বিরুদ্ধে রাজধানীর তেজগাঁও থানায় মামলা করেন।

মামলার আসামিরা হলেন- কৃষি ব্যাংকের কারওয়ানবাজার করপোরেট শাখার সাবেক ডিজিএম মো. জুবায়ের মনজুর, সাবেক এজিএম মো. সারোয়ার হোসেন, সাবেক এসপিও মো. আবুল হোসেন ও গোলাম রসুল, ফেয়ার ইয়ার্ন প্রসেসিং লিমিটেডের এমডি জসিম আহমেদ, পরিচালক মিসেস ইয়াসমীন আহমেদ এবং মেসার্স রোজবার্গ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের এমডি মো. হযরত আলী।

তদন্ত প্রতিবেদন সূত্রে জানা যায়, আসামিরা পরস্পর যোগসাজশে ডকুমেন্ট তৈরি করে একোমডেশনের মাধ্যমে ঋণের নামে কৃষি ব্যাংকের কারওয়ানবাজার শাখা থেকে  ফান্ডেড ও নন-ফান্ডেড মিলিয়ে ২৬০ কোটি ১৮ লাখ ৪ হাজার ৪৪৯ টাকা আত্মসাত করেছেন। এর মধ্যে কৃষি ব্যাংকের কারওয়ানবাজার শাখার গ্রাহক মেসার্স রোজবার্গ ইন্ডাস্ট্রিজ লিমিটেডের অনুকূলে আটটি এলসির বিপরীতে এক্সসেপ্টেড বিলের নন-ফান্ডেড ৩ কোটি ৮৮ লাখ ৯ হাজার ৩১২ টাকা, অপর গ্রাহক মেসার্স ফেয়ার ইয়ার্ন   প্রসেসিং লিমিটেডের অনুকূলে ২৮টি এলসির বিপরীতে ফান্ডেড ৩৫ কোটি ৯৮ লাখ ৫২ হাজার ৬৩৩ টাকা, একই প্রতিষ্ঠানের অনুকূলে ১৩ এলসির ১৬টি বিলের নন-ফান্ডেড ৬ কোটি ৩৯ লাখ ৬৩ হাজার টাকাসহ বিভিন্ন সময়ে মোট ২৬০ কোটি ১৮ লাখ ৪ হাজার ৪৪৯ টাকা আত্মসাত করে।

দুদকের তদন্তে অপরাধ প্রমাণিত হওয়ায় আসামিদের বিরুদ্ধে দণ্ডবিধি ৪০৯/৪৬৭/৪৬৮/৪৭১/৪২০/১০৯ এবং ১৯৪৭ সালের দুর্নীতি প্রতিরোধ আইনের ৫(২) ধারায় চার্জশিট অনুমোদন হয়।


রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৬ আগস্ট ২০১৯/এম এ রহমান/রফিক