ঢাকা, সোমবার, ৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

সৌন্দর্য বাড়াতে কফি গুঁড়ার ছয় ব্যবহার

এস এম গল্প ইকবাল : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-০২ ৩:৫৪:৪২ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-০২ ৪:০৪:০১ পিএম

সকালে অথবা দিনের অন্যসময়ে নিজেকে চাঙা করার অন্যতম জনপ্রিয় পানীয় হচ্ছে কফি। গরম পানিতে কফি গুঁড়া ঢেলে এ পানীয় তৈরি করা হয়, যা ক্লান্তি দূর করতে শক্তির যোগান দেয় ও মনোযোগের মাত্রা বৃদ্ধি করে।

কিন্তু আপনি জেনে খুশি হবেন যে শুধু পানীয় হিসেবে নয়, সৌন্দর্যচর্চার উপকরণ হিসেবেও কফি গুঁড়া ব্যবহার করা যায়। এখানে ত্বকের সৌন্দর্য বাড়াতে কফি গুঁড়ার ছয় ব্যবহার উল্লেখ করা হলো।

চুলের রঙ গাঢ় করতে

আপনার কালো-বাদামী চুলের রঙ আরো গাঢ় করতে কেমিক্যাল ব্যবহার করতে হবে এমন কোনো কথা নেই, আপনি চাইলে একাজে কফি গুঁড়াও ব্যবহার করতে পারেন। এক বা দুই চামচ কফির গুঁড়া (পরিমাণ নির্ভর করছে চুলের ঘনত্ব ও দৈর্ঘ্যের ওপর) একমুঠো কন্ডিশনারে মিশিয়ে শ্যাম্পু করা চুলে প্রয়োগ করুন। এভাবে পাঁচ মিনিট অপেক্ষা করে ঠান্ডা পানি দিয়ে ভালোভাবে ধুয়ে ফেলুন। দেখবেন চুলের রঙ আগের চেয়ে উজ্জ্বল বা গাঢ় হয়েছে। কফি গুঁড়ার এ ব্যবহার হালকা রঙের চুলের ক্ষেত্রে প্রযোজ্য নয়।

চুলের বৃদ্ধি ও উজ্জ্বলতা বাড়াতে

চুলের ময়লা দূর করার সর্বোত্তম উপায় হচ্ছে নিয়মিত চুল ধোয়া, কিন্তু মাসে অন্তত দু’বার (১৫ দিন পরপর) আপনার স্কাল্প বা মাথার ত্বককে ডিপ ক্লিন করা উচিত। আপনার স্কাল্পকে ভালোভাবে পরিষ্কার করে চুলের বৃদ্ধি ও উজ্জ্বলতা বাড়াতে কফি গুঁড়া দিয়ে প্যাক তৈরি করতে পারেন। চুলের এ প্যাক খুবই সহজ- ঠান্ডা পানিতে কফি গুঁড়া মেশালেই হবে। এরপর এ প্যাক স্কাল্পে প্রয়োগ করে ৬০ সেকেন্ড রেখে ঠান্ডা পানিতে ধুয়ে ফেলতে হবে। তারপর আপনি যে শ্যাম্পু ও কন্ডিশনার ব্যবহার করেন তা ব্যবহার করুন। ২০১৪ সালে ব্রিটিশ জার্নাল অব ডার্মাটোলজিতে প্রকাশিত গবেষণা অনুসারে, স্কাল্পে নিয়মিত কফি গুঁড়া ব্যবহার করলে সময়ের আবর্তনে চুলের উজ্জ্বলতা ও বৃদ্ধি বেড়ে যায়, যার জন্য ধন্যবাদ পাবে কফিতে উপস্থিত ক্যাফেইনের স্টিমিউলেটিং ইফেক্ট।

ঠোঁট নরম করতে

ঠোঁট ফাটার লক্ষণ দেখা দিলে এবং লিপস্টিক ও গ্লস ব্যবহারের পূর্বে মসৃণ ও কার্যকর লিপ স্ক্রাবের জন্য কফি গুঁড়া ও মধু ব্যবহার করতে পারেন। হাফ চা-চামচ কফি গুঁড়ার সঙ্গে হাফ চা-চামচ মধু মিশিয়ে আপনার ঠোঁটের ওপর ৩০ সেকেন্ড ঘষুন। তারপর একটি ভেজা কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। এরপর লিপ বাম ব্যবহার করুন।

ঘ্রাণেন্দ্রিয় তীক্ষ্ম করতে

সিগনেচার সেন্ট খুঁজতে গিয়ে অনেকের একের পর এক সুগন্ধি সামগ্রী স্প্রে করে শোঁকার প্রবণতা রয়েছে। কিন্তু এতে কিছু গন্ধের পার্থক্য বোঝার ক্ষমতা হারিয়ে যেতে পারে, যাকে নাসাল ফ্যাটিগ বলা হয়- বাংলায় বলতে গেলে নাসিক্য ক্লান্তি বলতে পারেন। ভয় নেই, আপনি কফি গুঁড়া ব্যবহার করে এ সমস্যা এড়াতে পারেন। ইউসি বার্কেলের একটি গবেষণায় নিউরোসায়েন্টিস্ট নোয়াম সোবেল পেয়েছেন, নাকের ঘ্রাণ পার্থক্য করার ক্ষমতা ধরে রাখতে কফি গুঁড়ার ঘ্রাণ শুঁকলে উপকার পাওয়া যায়। তাই পরেরবার সুগন্ধি সামগ্রী কিনতে গেলে সঙ্গে একটি ট্রাভেল মগে কফি গুঁড়া নিয়ে যেতে পারেন, যেন স্যাম্পল থেকে স্যাম্পল চেক করার সময় ঘ্রাণ পৃথকীকরণ ক্ষমতা পুনরুদ্ধার করতে পারেন।

চোখের নিচে ফোলা কমাতে

জেনেটিক, অ্যালার্জি, শরীরে পানি ও ঘুমের অভাবে মুখমণ্ডলে সৌন্দর্যহানি হতে পারে, যার অন্যতম উদাহরণ হচ্ছে চোখের নিচে কালো দাগ ও ফোলা। এ কদর্যতা দূর করতে ঠান্ডা পানিতে কফি গুঁড়া মিশিয়ে প্রয়োগ করে ১০ মিনিট রেখে ভালোভাবে ধুয়ে নিতে পারেন। ক্যাফেইনের প্রদাহরোধী গুণ রক্তনালিকে বিস্ময়করভাবে সংকুচিত করে চোখের নিচে ফোলা কমাতে ভূমিকা রাখে।

ত্বককে উজ্জ্বল করতে

খুব সহজে দুটি উপায়ে ত্বকের বিষাক্ত পদার্থ ও ময়লা দূর করে লোমকূপ খোলা রাখতে পারেন, যথা- অ্যান্টিঅক্সিড্যান্ট সমৃদ্ধ কফি গুঁড়া ও ফ্যাটি অ্যাসিড সমৃদ্ধ অলিভ অয়েল। ত্বকের সুস্থতা ও উজ্জ্বলতা অটুট রাখতে দুই টেবিল চামচ অলিভ অয়েলের সঙ্গে দুই টেবিল চামচ কফি গুঁড়া মিশিয়ে আপনার মুখমণ্ডলের ত্বকে প্রয়োগ করতে পারেন, কিন্তু চোখের অংশ এড়িয়ে চলুন। ৩০ সেকেন্ড অপেক্ষা করে ভেজা কাপড় দিয়ে মুছে ফেলুন। অলিভ অয়েল ত্বকে আর্দ্রতা সরবরাহ করবে।

 

ঢাকা/ফিরোজ