ঢাকা, সোমবার, ৪ ফাল্গুন ১৪২৬, ১৭ ফেব্রুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

ভালোবাসা দিবসে ভুলেও যে উপহার দেবেন না

ইকবাল মাহমুদ ইকু : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০২-১৩ ১০:৫৩:০২ এএম     ||     আপডেট: ২০২০-০২-১৩ ১:৪১:৪৮ পিএম

উপহার ভালোবাসার মানুষকে দিতে পারে অনন্য অনুভূতি। আপনি তাকে ভালোবাসেন- কথাটি প্রকাশ করতে অনেক কাঠখড় পোড়াতে হবে এমন নয়, বরং খুব সহজেই সামান্য উপহার দিয়েও ভালোবাসা প্রকাশ করা যায়। 

তবে যেকোনো উপহার দেয়ার আগে ভাবুন- উপহারটি ভালোবাসা প্রকাশ না করে বরং অবহেলা প্রকাশ করছে না তো? এই বিড়ম্বনা থেকে বাঁচতে প্রতিবেদনে উল্লেখিত উপহারগুলো এড়িয়ে চলুন।

টাকাভর্তি খাম: ভালোবাসা দিবসে প্রিয়জনের প্রতি ভালোবাসা প্রকাশ করাই আপনার মূল উদ্দেশ্য হতে হবে। এজন্য আপনি কত টাকা খরচ করছেন মুখ্য নয়। সুতরাং টাকাভর্তি খাম কখনও আপনার ভালোবাসা প্রকাশ করতে পারে না বরং অবহেলা প্রকাশ করে। প্রিয়জনকে টাকা  না দিয়ে তার পছন্দের একটি উপহার কিনে দিন। প্রয়োজনে তাকে সঙ্গে নিয়ে কিনুন। এতে বেশি আন্তরিকতা প্রকাশ পাবে।  

ভ্যাকুয়াম ক্লিনার: যদি মনে করেন, ভ্যালেন্টাইন’স ডে-তে  একটি ভ্যাকুয়াম ক্লিনার উপহার দিয়ে আপনার জীবন সঙ্গিনীর দৈনন্দিন কাজকে আরো সহজ করে দেবেন, তাহলে ভুল ভাবছেন। তবে আমরা বলছি না, এমন কিছু আপনি কখনই উপহার দিবেন না। শুধু ভালোবাসা দিবসেই এগুলো এড়িয়ে চলুন। কেননা ভালোবাসা দিবসে দৈনন্দিন কাজের জিনিস নয় বরং এমন একটি উপহার দিন যেখানে লেখা থাকতে পারে- ‘ভালোবাসি’। 

অনেক বেশি দামি উপহার: আমরা নিষেধ করছি না কোনো দামি উপহার দিতে। তবে উপহার দেয়ার সময় অবশ্যই খেয়াল রাখবেন, দাম যেন মুখ্য বিষয় না হয়ে ওঠে। ভালোবাসাটাই এখানে প্রাধান্য পাবে। প্রিয়জনের মানসিকতা বুঝতে চেষ্টা করুন- কোন উপহার পেয়ে তিনি সবচেয়ে বেশি খুশি হবেন- ভাবুন। এরপর আপনি সেই উপহার তার জন্য বেছে নিন। 

হলুদ রঙের গোলাপ: যেখানে লাল রঙের গোলাপকে ভালোবাসার অন্যতম একটি প্রতীক হিসেবে দেখা হয়, সেখানে হলুদ রঙের গোলাপ উপহার দেয়া খুবই বোকামি। কেননা হলুদ রঙ শুধু বন্ধুত্বের প্রতীক হিসেবে দেখা হয়ে থাকে। তাই যদি গোলাপ দিতে চান, অবশ্যই লাল রঙের গোলাপ উপহার দিন।

কৌতুকপূর্ণ উপহার: হ্যাঁ! এ ধরনের উপহার দিয়ে আপনার প্রিয়জনের মুখ হাস্যোজ্জ্বল করতে পারাটা চমৎকার বিষয় হলেও, এ ধরনের উপহার ভালোবাসা দিবসে মানানসই নয়। কেননা ভালোবাসা কখনো কৌতুকপূর্ণ হতে পারে না। ফলে ভালোবাসা দিবসে কৌতুকপূর্ণ কিছু না দিয়ে বরং নিজের আবেগ প্রকাশ করে এমন কিছু দেয়া উচিত। তবে ভালোবাসা দিবস ছাড়া অন্য সময়ে আপনি চাইলেই এ ধরনের উপহার দিতে পারেন।

অন্তর্বাস উপহার: অন্তর্বাস উপহারের মাধ্যমে মানুষ বুঝাতে চায়- একান্ত সময়ে প্রিয়জনকে সে এই পোশাকে দেখতে চায়। এ ধরনের উপহারের ক্ষেত্রে ভালোবাসার চেয়ে যৌন আবেগই বেশি প্রাধান্য পায়। ভালোবাসা শুধু দৈহিক ব্যাপার নয়। সুতরাং ভালোবাসা দিবসে এমন কোনো পোশাক উপহার দিন যা প্রিয়জন সবসময় পরতে পারে। 

আত্মউন্নয়নমূলক বই: হয়তো আপনি বিগত বেশ কিছুদিন ধরেই দেখছেন আপনার প্রিয় মানুষটি ওজন কমাতে চাচ্ছে অথবা কাজে মনোযোগ দিতে পারছে না এবং হতাশায় ভুগছে।আপনি চাইছেন ভালোবাসা দিবসে এমন একটি বই দিতে যা থেকে সে উপকৃত হবে। আপনার ভাবনা বেশ ভালো হলেও ভালোবাসা দিবসের সাথে মানানসই নয়। ভালোবাসা দিবসে বরং আপনি প্রিয়জনকে এমন কিছু উপহার দিন যার মাধ্যমে বুঝা যাবে সবসময় আপনি প্রিয়জনের পাশে থাকবেন এবং তাকে ভালোবাসবেন। তবে আত্মউন্নয়নমূলক বই আপনি চাইলে তাকে অন্য কোনো সময় উপহার দিতে পারেন।

চকলেট বক্স: একটি চকলেট বক্স হয়তো অনেক রোমান্টিক উপহার! তবে প্রিয়জন যদি ওজন নিয়ে চিন্তিত থাকেন তাহলে এই সময় তাকে চকলেট বক্স গিফট করাটা বোকামি। কেননা, এর মাধ্যমে তখন আর ভালোবাসা প্রকাশ হবে না বরং অতিরিক্ত ওজনের জন্য কিছুটা তাচ্ছিল্যও প্রকাশ হয়ে যেতে পারে। তাই এমন কিছু উপহার দিন যাতে সে খুশি হয়ে ওঠে। 

উপহার দেয়ার সাথে সাথে অনাগ্রহ প্রকাশ: ধরুন আপনি প্রিয়জনের জন্য উপহার নিয়ে এলেন, এরপর সেটা টেবিলে রেখে মুঠোফোন অথবা টেলিভিশন নিয়ে ব্যস্ত হয়ে পড়লেন, তাহলে কিন্তু প্রিয়জনের প্রতি আবেগটা আর প্রকাশ হচ্ছে না। কেননা মনে রাখবেন, ভালোবাসা দিবসে আবেগ গুরুত্বপূর্ণ, উপহারটি নয়। আপনি বরং উপহারটি অনেক আবেগের সাথে নাটকীয়ভাবে আপনার প্রিয়জনকে দিন। তাকে বুঝতে দিন, আপনি তার কাছে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ।

পড়ুন : ভালোবাসা দিবসের ফুল- প্রেম নাকি শুধুই বন্ধুত্ব?

 

ঢাকা/ফিরোজ/তারা