ঢাকা, মঙ্গলবার, ৬ মাঘ ১৪২৬, ২১ জানুয়ারি ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

শান্ত ১৯৪, মিজানুর ১৭৫

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-১২-২২ ৬:৫৮:২৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-১২-২২ ৮:৩৩:৫৭ পিএম
ডাবল সেঞ্চুরির সুযোগ হাতছাড়া করেছেন নাজমুল হোসেন শান্ত ও মিজানুর রহমান। ছবি: কবির তুহিন

ক্রীড়া প্রতিবেদক : সেঞ্চুরি পেলেন দুজনই। কিন্তু সেটিকে ডাবল সেঞ্চুরিতে রূপ দিতে পারলেন না কেউই। নাজমুল হোসেন শান্তর হতাশাটা একটু বেশিই, আউট হয়েছেন ১৯৪ রানে। তার আগেই মিজানুর রহমান ফিরেছেন ১৭৫ রান করে। এই দুজনের দেড়শ ছাড়ানো দুটি ইনিংসে ঢাকা মেট্রোর বিপক্ষে রানের পাহাড় গড়েছে রাজশাহী।

ওয়ালটন ১৯তম জাতীয় ক্রিকেট লিগের শেষ রাউন্ডে তৃতীয় দিনের খেলা শেষে প্রথম ইনিংসে রাজশাহীর সংগ্রহ ৫ উইকেটে ৪৬০ রান। লিড ১৩২ রানের। প্রথম ইনিংসে বরিশাল করেছিল ৩২৮। দ্বিতীয় স্তরের এই ম্যাচটি চলছে ড্রয়ের পথে। রাজশাহীর প্রথম স্তরে ওঠা নিশ্চিত হয়েছে আগেই। 

রাজশাহীর শহীদ কামরুজ্জামান স্টেডিয়ামে দ্বিতীয় দিনের বিনা উইকেটে ৯০ রান নিয়ে শুক্রবার তৃতীয় দিনের খেলা শুরু করেছিল রাজশাহী। মিজানুর ব্যাটিং শুরু করেন ৪৭ রান নিয়ে, শান্ত ৪৩ রানে।


দিনের শুরুতেই মিজানুর ফিফটি পূর্ণ করেন ৬২ বলে, শান্ত ৭৫ বলে। দুজন সেঞ্চুরিও পেয়ে যান লাঞ্চের আগেই। ১১৯ বলে ২১ চার ও এক ছক্কায় তিন অঙ্ক স্পর্শ করেন মিজানুর। প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে ৩০ বছর বয়সি এই ব্যাটসম্যানের এটি সপ্তম সেঞ্চুরি। আর শান্ত প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে পঞ্চম সেঞ্চুরি পূর্ণ করেন ১৪৫ বলে, ১৫ চারের সাহায্যে।

লাঞ্চ বিরতিতে রাজশাহীর সংগ্রহ বিনা উইকেটে ২২৮। দ্বিতীয় সেশনেও রাজশাহীর উদ্বোধনী জুটি ভাঙতে পারেনি ঢাকা মেট্রো। এরই মধ্যে নিজেদের সেঞ্চুরিকে দেড়শতে পরিণত করেন মিজানুর ও শান্ত, দুজনের সামনেই তখন ক্যারিয়ারের প্রথম ডাবল সেঞ্চুরির হাতছানি।


কিন্তু চা বিরতির পরপরই মিজানুর বিদায় নেন ব্যক্তিগত ১৭৫ রানে। বাঁহাতি স্পিনার নিহাদুজ্জামানের বলে উইকেটরক্ষক জাবিদ হোসেনকে ক্যাচ দেন মিজানুর। ২১০ বলে ৩০ চার ও ২ ছক্কায় ইনিংসটি সাজান তিনি। তার বিদায়ে ভাঙে ৩৪১ রানের উদ্বোধনী জুটি।

তিনে নামা জুনায়েদ সিদ্দিক ফিরেছেন দ্রুতই। ওই নিহাদের বলেই আসিফ আহমেদকে ক্যাচ দিয়ে ফেরা জুনায়েদ করেন ৮। তৃতীয় উইকেটে ফরহাদ হোসেনকে সঙ্গে নিয়ে ১০১ রানের জুটি গড়েন শান্ত। ফরহাদ তুলে নেন ফিফটি, শান্ত ততক্ষণে ১৯০-এর ঘরে। কিন্তু ‘নার্ভাস নাইন্টি’র শিকার হয়ে ফেরেন জাতীয় দলের হয়ে একটি টেস্ট খেলা তরুণ এই ব্যাটসম্যান।

দুজনই ফিরেছেন পরপর দুই ওভারে। আগের ওভারে নিহাদের বলে আবু হায়দার রনিকে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ফরহাদ (৬৫)। পরের ওভারে আবু হায়দার বোলিংয়ে এসে ফিরিয়ে দেন শান্তকে। ডাবল সেঞ্চুরি থেকে ৬ রান দূরে থাকতে আসিফকে ক্যাচ দেন শান্ত। ২৯৬ বলে ২১টি চারের সাহায্যে ক্যারিয়ার সেরা ১৯৪ রানের ইনিংসটি সাজান বাঁহাতি এই ব্যাটসম্যান।


শেষ বিকেলে রাজশাহী মূলত পরপর তিন ওভারে উইকেট হারিয়েছে তিনটি। ফরহাদ-শান্তর বিদায়ের পরের ওভারে তাসকিন আহমেদের বলে এলবিডব্লিউ হওয়া সাব্বির রহমান ডাক মেরেছেন। মুশফিকুর রহিম ৩ ও অধিনায়ক জহুরুল ইসলাম অমি ১ রানে অপরাজিত থেকে দিন শেষ করেছেন।

১৫৩ রানে ৩ উইকেট নিয়ে দিনের সেরা বোলার নিহাদ্দুজামান। তাসকিন ও আবু হায়দার নিয়েছেন একটি করে উইকেট।

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/২২ ডিসেম্বর ২০১৭/পরাগ