ঢাকা, সোমবার, ১১ ভাদ্র ১৪২৬, ২৬ আগস্ট ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ইসিকে জাতীয় পরিষদ গঠনের প্রস্তাব দিল মুক্তিজোট

হাসিবুল ইসলাম : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৭-০৮-২৪ ৬:২৭:৪৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৭-০৮-২৫ ৮:৪৭:৪০ এএম
ইসিকে জাতীয় পরিষদ গঠনের প্রস্তাব দিল মুক্তিজোট
Walton E-plaza

নিজস্ব প্রতিবেদক : নিবন্ধিত রাজনৈতিক দলগুলোর প্রধানদের সমন্বয়ে জাতীয় পরিষদ গঠন করে বিধি-বিধান সংস্কার করতে নির্বাচন কমিশনকে (ইসি) প্রস্তাব দিয়েছে বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোট।

বৃহস্পতিবার বিকেল ৩টায় রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে ইসির সঙ্গে সংলাপকালে এ প্রস্তাব দেয় মুক্তিজোট।

সংলাপ শেষে মুক্তিজোটের নির্বাহী প্রধান মুহাম্মদ আমিনুর রহমান সাংবাদিকদের  এ কথা জানান।

তিনি বলেন, কমিশনের সঙ্গে রাজনৈতিক দলগুলোর পারস্পারিক সম্পর্কের প্রাতিষ্ঠানিক রূপ তথা জাতীয় পরিষদ গঠন করে বিধি-বিধান সংস্কার করলেই তা কেবল যথাযথ হতে পারে। সুষ্ঠু নির্বাচনের জন্য মুখ্য বিষয় হচ্ছে বিধি-বিধান। রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে কোনো প্রকার আলোচনা না করেই এই বিধি- বিধানগুলো করে থাকে ইসি। কিন্তু বিধি-বিধানগুলো তো রাজনৈতিক দলগুলোকে মেনে চলতে হয়। তাই রাজনৈতিক দলগুলোর সাথে প্রাতিষ্ঠানিক সম্পর্ক স্থাপনে আমরা জাতীয় পরিষদ গঠনের প্রস্তাব দিয়েছি।

তিনি আরো বলেন, রাজনৈতিক দলকে নিবন্ধন দেওয়ার সাথে সাথে উক্ত দলের প্রধানকে অথেনটিক মর্যাদায় নির্দিষ্ট করতে হবে। রাজনৈতিক দলগুলোর প্রধানদের সমন্বয়ে গঠিত হবে এই জাতীয় পরিষদ। এভাবে পদাধিকার বলে প্রত্যেক দলের প্রধান জাতীয় পরিষদের সদস্য হিসেবে রাষ্ট্র কর্তৃক অথেনটিক মর্যাদা পাবেন এবং জাতীয় পরিষদের সদস্যরা সংসদ সদস্যের সমমান বহন করবেন।

মুক্তিজোটের নির্বাহী প্রধান বলেন, জাতীয় পরিষদের আহ্বায়ক থাকবেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার। এ ছাড়া এই পরিষদের প্রধান তথা চূড়ান্ত নির্দেশকারী থাকবেন রাষ্ট্রপতি।

তিনি বলেন, প্রত্যেক নাগরিক তার স্থায়ী ঠিকানায় ভোটার থাকার প্রস্তাব দিয়েছি। এ ক্ষেত্রে প্রার্থী এবং প্রবাসী স্থায়ী ঠিকানায় ভোটার থাকলেও ভোটাধিকার প্রয়োগের ক্ষেত্রে তার ব্যত্যয় থাকবে।

আমিনুর রহমান বলেন, প্রথমে সল্প পরিসরে স্থানীয় নির্বাচনগুলোতে ই-ভোটিং এর প্রয়োগ করে পরবর্তীতে জাতীয় নির্বাচনে প্রসঙ্গে ভাবা যেতে পারে।

এ ছাড়া প্রবাসী ভোটারদের জন্য সংশ্লিষ্ট দেশে দূতাবাস মারফত ভোট কেন্দ্র স্থাপনপূর্বক ভোটের ব্যবস্থা করাসহ নির্বাচন কমিশনের জনবল বৃদ্ধির প্রস্তাব দেওয়া হয়েছে বলে জানান আমিনুর রহমান।

সংলাপ শেষে ইসির ভারপ্রাপ্ত সচিব হেলালুদ্দীন আহমেদ বলেন, মুক্তিজোট জাতীয় পরিষদ গঠন, স্থায়ী ঠিকানায় ভোটার হওয়া, প্রবাসীদের ভোটদানের সুযোগ দেওয়া, স্থানীয় নির্বাচনে ই-ভোটিং চালুর পর এটি জাতীয় নির্বাচনে প্রয়োগ করা, জাতীয় নির্বাচনের সময় ৫ দিন ছুটি প্রদান, নির্বাচনকালে জনপ্রশাসন ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়কে ইসির অধীনে রাখাসহ বিভিন্ন প্রস্তাব দিয়েছে।

সংলাপে উপস্থিত ছিলেন- বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের প্রধান আবু লায়েস মুন্না, যুগ্ম প্রধান আমিনা খাতুন ওমী শিকদার, নির্বাহী প্রধান মুহাম্মদ আমিনুর রহমান, জাতীয় স্টিয়ারিং কমিটি প্রধান শাহজামাল আমিরুল, কাঠামো পর্ষদ প্রধান নাজমুল হাসান, পরিচালনা বোর্ড প্রধান মাহমুদ হাসান আবেদ, কন্ট্রোল বোর্ড প্রধান অ্যাডভোকেট ক্রিস্টি মারিও শিল্পী দাস, এডিটোরিয়াল বোর্ড প্রধান বদরুজ্জামান রিপন, সিরাজুল ইসলাম, আজিবুন্নাহার ঝুমা, এ কে এম শাহনেওয়াজ গণি ও সাগর কুমার ভৌমিক।

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনকে সামনে রেখে রাজনৈতিক দলের সঙ্গে সংলাপ শুরু করেছে নির্বাচন কমিশন (ইসি)। প্রথম দিনে বাংলাদেশ সাংস্কৃতিক মুক্তিজোটের সঙ্গে সংলাপের মধ্যে ‍দিয়ে এ প্রক্রিয়া শুরু হলো।

অন্য যেসব দলের জন্য সংলাপের তারিখ নির্ধারণ করা হয়েছে সেগুলো হচ্ছে- ২৮ আগস্ট সকাল ১১টায় বাংলাদেশ মুসলিম লীগ (বিএমএল) ও বিকেল ৩টায় খেলাফত মজলিশ, ৩০ আগস্ট সকাল ১১টায় বাংলাদেশ বিপ্লবী ওয়ার্কার্স পার্টি ও বিকেল ৩টায় জাতীয় গণতান্ত্রিক পার্টি (জাগপা)।

ঈদের পর ১০ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় বাংলাদেশ ইসলামী ফ্রন্ট ও বিকেল ৩টায় ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ, ১২ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় বাংলাদেশ খেলাফত মজলিস ও বিকেল ৩টায় ইসলামী ঐক্যজোট এবং ১৪ সেপ্টেম্বর সকাল ১১টায় কল্যাণ পার্টি ও বিকেল ৩টায় ইসলামিক ফ্রন্ট বাংলাদেশের সঙ্গে সংলাপ হবে।

আরো পড়ুন : রাজনৈতিক দলের সঙ্গে ইসির সংলাপ শুরু


রাইজিংবিডি/ ঢাকা/২৪ আগস্ট ২০১৭/হাসিবুল/রফিক

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge