ঢাকা, সোমবার, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

বঙ্গবন্ধু ও বাঙালি জাতি অভিন্ন সত্তা : অর্থমন্ত্রী

কেএমএ হাসনাত : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৮-২৬ ৯:৫৩:০৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৮-২৭ ৮:২৭:২৫ এএম
বঙ্গবন্ধু ও বাঙালি জাতি অভিন্ন সত্তা : অর্থমন্ত্রী
Walton E-plaza

বিশেষ প্রতিবেদক : অর্থমন্ত্রী আ হ ম মুস্তফা কামাল বলেছেন, বঙ্গবন্ধু ও বাঙালি জাতি এক ও অভিন্ন সত্তা। তিনি আমাদের মাঝে চির জাগরুক। তাকে কোনোদিন হৃদয় থেকে মুছে ফেলা যাবে না।

সোমবার সচিবালয়ে এক আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে এসব কথা বলেন তিনি।

জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৪তম শাহাদাতবার্ষিকী ও জাতীয় শোক দিবস উপলক্ষে এ আলোচনা সভার আয়োজন করে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অর্থ বিভাগ এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগ কর্মকর্তা-কর্মচারী কল্যাণ সমিতি।

অর্থ বিভাগ এবং আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের কর্মকর্তা-কর্মচারী কল্যাণ সমিতির সভাপতি মো. এনামুল হকের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় আরো উপস্থিত ছিলেন- আর্থিক প্রতিষ্ঠান বিভাগের জ্যেষ্ঠ সচিব মো. আসাদুল ইসলাম, অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের সচিব মনোয়ার আহমেদ এবং অর্থ বিভাগের সচিব আব্দুর রউফ তালুকদার।

অর্থমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু আমাদের আজ ও আগামীর দিনের মধ্যে সেতুবন্ধন। তিনি তার জীবনে অল্প সময়ে আমাদের আগামীর সকল নির্দেশনা দিয়ে গিয়েছেন। অতি অল্প দিনে আমাদেরকে দিয়েছেন একটি সংবিধান, যেখানে সবকিছু রয়েছে। আমাদের আগামীর পরিকল্পনা- শহর-গ্রামের ভেদাভেদ থাকবে না, ধনী-দরিদ্রের ভেদাভেদ থাকবে না, উন্নয়ন অগ্রযাত্রায় সব শ্রেণিকে সম্পৃক্ত করতে হবে, যাদের জন্য উন্নয়ন তারা যেন বঞ্চিত না হয় সেদিকে নজর রেখেই তাদেরকে সম্পৃক্ত উন্নয়ন কর্মকাণ্ড পরিচালনা করতে হবে।

তিনি বলেন, যারা বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করেছিল, তারা ভেবেছিল, তারা বাঙালির মন থেকে বঙ্গন্ধুকে মুছে দেবে। কিন্তু তারা ভুল করেছিল। কারণ, তারা বুঝতে পারেনি, বঙ্গবন্ধুর মতো নেতাকে মুছে দেয়া যায় না। যতদিন এ পৃথিবী থাকবে, যতদিন সূর্য উঠবে, ততদিন তিনি থাকবেন সূর্যের মতো দেদীপ্যমান।

মুস্তফা কামাল বলেন, আমেরিকার মায়েরা তাদের সন্তানদের কোলে নিয়ে বলেন, বাবা তুমি বড় হয়ে জর্জ ওয়াশিংটন হবে; দক্ষিণ আফ্রিকার মায়েরা বলেন, বাবা তুমি বড় হয়ে নেলসন ম্যান্ডেলা হবে; কিন্তু আমাদের দুর্ভাগ্য যে, আমাদের মায়েরা বলতে পারে না যে, তুমি বড় হয়ে বঙ্গবন্ধু হবে। কারণ, কিছু কুচক্রী আমাদেরকে সেই জায়গাটাতে পৌঁছাতে দেয়নি। কিন্তু তারা জানে না, জাতির জনককে কখনো জাতির কাছ থেকে দূরে রাখা যায় না। বঙ্গবন্ধুকে আমাদের কাছ থেকে দূরে সরিয়ে রাখা যাবে না। তিনি আছেন, তিনি থাকবেন।

অর্থমন্ত্রী বলেন, জাতির জনক আমাদের বিশ্বাস, তিনিই লাল-সবুজের বাংলাদেশ। তিনি প্রতিটি ক্ষেত্রে ঘুরে-ফিরে আমাদের মাঝে ধরা দেবেন। শুধু আমাদের মাঝে নয়, শত শত বছর পরেও যারা পৃথিবীতে আসবেন তাদের মাঝেও তিনি থাকবেন। বঙ্গবন্ধু একটি নাম, বঙ্গবন্ধু একটি দেশ, বঙ্গবন্ধু একটি স্বপ্ন, বঙ্গবন্ধু আমাদের জীবনসত্তা, বঙ্গবন্ধুর কখনো মৃত্যু হতে পারে না। আসুন, আমরা জাতির পিতা হারানোর শোককে শক্তিতে পরিণত করি। তার ত্যাগ এবং তিতিক্ষার দীর্ঘ সংগ্রামী জীবনাদর্শ ধারণ করে সবাই মিলে একটি অসাম্প্রদায়িক, ক্ষুধা ও দারিদ্র্যমুক্ত সমৃদ্ধ বাংলাদেশ গড়ে তুলি। প্রতিষ্ঠা করি জাতির জনকের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ।

অর্থমন্ত্রী বলেন, এক সময় আমাদের দেশের অনেকেই দেশের বাইরে নিজেদের পরিচয় দিত না। বলত, আমরা ভারতের। কারণ, তখন আমাদের পরিচয় ছিল ভিক্ষুক বা মিসকিন হিসেবে। আজকে আমাদের সে পরিচয় আর নেই। জাতির জনকের রেখে যাওয়া নির্দেশনাগুলো বাস্তবায়নেই এটা সম্ভব হয়েছে।

তিনি বলেন, আমাদের কাজ এখনো শেষ হয়নি। আমাদের কাজ শেষ হবে ২০৪১ সাল দেশকে উন্নত দেশে রূপান্তরিত করার মধ্য দিয়ে। প্রধানমন্ত্রীও ঘোষণা দিয়েছেন, ২০৪১ সালে একটি উন্নত, সুন্দর বাংলাদেশ গঠন করার। যেখানে শোষণ থাকবে না, বঞ্চনা থাকবে না, মানুষকে কষ্ট করতে হবে না। থাকবে না কেউ বেকার। সব মানুষকে অর্থনীতির মূল স্রোতধারায় নিয়ে আসতে পারব। জাতির জনকের স্বপ্নকে বাস্তবে রূপান্তর করাই হচ্ছে আমাদের একমাত্র দায়িত্ব। 

অর্থমন্ত্রী বলেন, বঙ্গবন্ধু ছিলেন একজন সাধারণ মানুষের মতো। তার চিন্তা-চেতনায় ছিল এ দেশের মানুষ ও মানুষের অর্থনৈতিক মুক্তি, এ দেশের মানুষের স্বাধীনতা। জীবনের বেশিরভাগ সময় তিনি দেশের মনুষের জন্য চিন্তা করে পার করেছেন। তার স্বপ্নের বাস্তবায়ন হলেই এ দেশের মানুষ অর্থনৈতিক মুক্তির সঙ্গে পূর্ণাঙ্গ স্বাধীনতা উপভোগ করতে পারবেন।


রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৬ আগস্ট ২০১৯/হাসনাত/রফিক

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       
Walton AC
Marcel Fridge