ঢাকা, সোমবার, ২৪ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

লিটনের সেঞ্চুরি, সোহানের ৩ রানের আক্ষেপ

ক্রীড়া প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-১০-১৯ ৯:৩২:৩০ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-১০-১৯ ২:৩৭:০৮ পিএম
সঙ্গীর অভাবে ৯৭ রানে অপরাজিত থাকতে হয়েছে নুরুল হাসান সোহানকে। ছবি: মিলটন আহমেদ

ওয়ালটন ২১তম জাতীয় ক্রিকেট লিগের দ্বিতীয় রাউন্ডে দেশের চার ভেন্যুতে লড়ছে আট দল।

আবার ব্যর্থ আশরাফুল-মোসাদ্দেক, নাঈমের ৪ উইকেট

নাঈম হাসানের দারুণ বোলিংয়ে বরিশালের বিপক্ষে প্রথম ইনিংসে ১৪০ রানের বড় লিড পেয়েছে চট্টগ্রাম বিভাগ। ফতুল্লায় দ্বিতীয় স্তরের এই ম্যাচে চট্টগ্রামের ৩৫৬ রানের জবাবে বরিশাল অলআউট হয়েছে ২১৬ রানে।

আবারো ব্যর্থ হয়েছেন মোহাম্মদ আশরাফুল ও মোসাদ্দেক হোসেন। প্রথম রাউন্ডে এক ইনিংস করে ব্যাটিংয়ের সুযোগ পেয়ে দুজনের কেউই দুই অঙ্কে যেতে পারেননি। দ্বিতীয় রাউন্ডে আজ দুজনই ৪ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করেছিলেন। আশরাফুল থেমেছেন ২১ রানে, মোসাদ্দেক আগের দিনের ৪ রানেই।

১৪২ রানে ৭ উইকেট হারানোর পর বরিশাল দুইশ পার করতে পারে মূলত নুরুজ্জামানের ৬০ রানের সুবাদে। শেষ ব্যাটসম্যান হিসেবে আউট হওয়ার আগে ১০৭ বলে ৫ চার ও ২ ছক্কায় ইনিংসটি সাজান নুরুজ্জামান।

চোট কাটিয়ে ফেরা নাঈম ৬২ রানে ৪ উইকেট নিয়ে চট্টগ্রামের সেরা বোলার। মেহেদী হাসান রানা, নোমান চৌধুরী ও মিনাহাজুল আবেদীন আফ্রিদি নেন ২টি করে উইকেট।

লিটনের দারুণ সেঞ্চুরি

জাতীয় লিগে নিজের প্রথম ম্যাচ খেলতে নেমেই সেঞ্চুরি তুলে নিয়েছেন লিটন দাস। অনেক দিন পর তিন অঙ্কের দেখা পেলেন কিপার ব্যাটসম্যান।

চট্টগ্রামে আগের দিনই ফিফটি পেয়েছিলেন, দিন শেষে লিটন অপরাজিত ছিলেন ৫১ রানে। আজ তৃতীয় দিনের দ্বিতীয় ঘণ্টায় সেটিকে সেঞ্চুরিতে রূপ দিয়েছেন ডানহাতি ব্যাটসম্যান।

৬০ বলে ফিফটি ছোঁয়া লিটনের পরের পঞ্চাশ করতে লেগেছে ৭৩ বল। ১৩৩ বলে ১৩ চারের সাহায্যে পূর্ণ করেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার ১৪তম সেঞ্চুরি।

লিটনের সঙ্গে ৮ রান নিয়ে দিন শুরু করে ফিফটি তুলে নিয়েছেন নাঈম ইসলাম। লিটনের মতো নাঈমও ফিফটিকে সেঞ্চুরিতে রূপান্তর করতে পারেন কি না, সেটাই দেখার।

লাঞ্চ বিরতিতে লিটন ১১১ ও নাঈম ৫১ রানে অপরাজিত আছেন। দুজন দ্বিতীয় উইকেটে ১৩০ রানের জুটিতে অবিচ্ছিন্ন আছেন। রংপুরের সংগ্রহ তখন ২ উইকেটে ১৭৪ রান। ঢাকার থেকে এখনো ৩৮২ রানে পিছিয়ে আছে রংপুর।



প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে চতুর্দশ সেঞ্চুরি পেয়েছেন লিটন দাস। ছবি: রেজাউল করিম 

 

সোহানের ৩ রানের আক্ষেপ

সঙ্গীর অভাবে মাত্র ৩ রানের জন্য সেঞ্চুরি পাননি নুরুল হাসান সোহান। খুলনার ব্যাটসম্যান রংপুরের বিপক্ষে অপরাজিত থাকেন ৯৭ রানে।

খুলনায় সোহান ৩৫ ও আব্দুর রাজ্জাক ৭ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করেছিলেন। দিনের শুরুতে দ্রতই ফিরে যান রাজ্জাক ও রুবেল হোসেন। রুবেল যখন অষ্টম ব্যাটসম্যান হিসেবে ফেরেন, সোহানের রান তখন কেবল ৪২।

এরপর তাকে কিছুটা সঙ্গ দেন মুস্তাফিজুর রহমান। তাতে সোহান তুলে নেন ফিফটি, ৮২ বলে। ফিফটির পর দ্রুত রান তুলে সেঞ্চুরির দিকে এগোতে থাকেন সোহান। তার রান যখন ৬৯, তখন মুস্তাফিজ আউট হয়ে যান ৯ রানে।

শেষ ব্যাটসম্যান আল-আমিন হোসেনকে সঙ্গী করে সোহান এগোচ্ছিলেন প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে তার অষ্টম সেঞ্চুরির দিকে। গত বছরের জানুয়ারিতে বিসিএলে সেঞ্চুরির পর আর তিন অঙ্কের দেখা পাননি।

আজ সেটি পাবেন বলেই মনে হচ্ছিল। কিন্তু মোহর শেখের ওভারটাই যেন কাল হলো। আগের ওভারে সানজামুলকে ছক্কা হাঁকানো সোহান মোহরের ওভারটা দিলেন মেডেন।

পরের ওভারে আল-আমিন সানজামুলের প্রথম দুই বলে সামলে নিলেও তৃতীয় বলে ক্যাচ দেন জুনায়েদ সিদ্দিককে। অন্য প্রান্তে ৯৭ রানে অপরাজিত থাকতে হয় সোহানকে। ১২৭ বলে ১০ চার ও ৪ ছক্কায় ইনিংসটি সাজান কিপার ব্যাটসম্যান।

সোহান সেঞ্চুরি না পেলেও প্রথম ইনিংসে ৪৮ রানের লিড পেয়েছে খুলনা। প্রথম ইনিংসে রাজশাহীর ২৬১ রানের জবাবে খুলনা করেছে ৩০৯ রান।

তৃতীয় দিনের খেলা শুরু

শনিবার সকাল সাড়ে নয়টায় শুরু হয় তৃতীয় দিনের খেলা।

 

খুলনায় স্বাগতিক খুলনা ও রাজশাহী ম্যাচের একটি দৃশ্য। ছবি: মিলটন আহমেদ

 

ঢাকা-রংপুর

চট্টগ্রামে প্রথম স্তরের এই ম্যাচে দ্বিতীয় দিন শেষে প্রথম ইনিংসে রংপুরের সংগ্রহ ছিল ২ উইকেটে ৭১ রান। লিটন দাস ৫১ ও নাঈম ইসলাম ৮ রান নিয়ে তৃতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে নামেন। এর আগে সাইফ হাসানের অপরাজিত ডাবল সেঞ্চুরিতে ঢাকা প্রথম ইনিংস ঘোষণা করে ৮ উইকেটে ৫৬৬ রানে।

রাজশাহী-খুলনা

খুলনায় প্রথম স্তরের এই ম্যাচে আগের দিনের ৬ উইকেটে ২২৭ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করেছে খুলনা। নুরুল হাসান সোহান ৩৫ ও আব্দুর রাজ্জাক ৭ রানে ব্যাটিংয়ে নামেন। রাজশাহী তাদের প্রথম ইনিংসে করেছিল ২৬১ রান।

ঢাকা মেট্রো-সিলেট

বগুড়ায় দ্বিতীয় স্তরের এই ম্যাচে দ্বিতীয় ইনিংসে আগের দিনের বিনা উইকেটে ৯ রান নিয়ে তৃতীয় দিন শুরু করেছে ঢাকা মেট্রো। মোহাম্মদ নাঈম ৮ ও রাকিন আহমেদ ১ রানে ব্যাটিং শুরু করেন। এর আগে প্রথম ইনিংসে ঢাকা মেট্রোর ২৪৬ রানের জবাবে সিলেট করে ৩১৯ রান।

চট্টগ্রাম-বরিশাল

ফতুল্লায় দ্বিতীয় স্তরের এই ম্যাচে দ্বিতীয় দিন শেষে প্রথম ইনিংসে বরিশালের সংগ্রহ ছিল ৪ উইকেটে ১০৪ রান। মোহাম্মদ আশরাফুল ও মোসাদ্দেক হোসেন- দুজনই ৪ রান নিয়ে তৃতীয় দিনে ব্যাটিংয়ে নামেন। এর আগে চট্টগ্রাম প্রথম ইনিংসে করেছিল ৩৫৬ রান।

 

ঢাকা/পরাগ 

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন