ঢাকা, সোমবার, ৩১ ভাদ্র ১৪২৬, ১৬ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

রূপায়ণ : কবি নজরুল ও আবু সাঈদ চৌধুরী

ড. জি এম শফিউর রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৮-২৭ ৯:৪৬:২৪ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৮-২৭ ১০:০৫:০১ পিএম
রূপায়ণ : কবি নজরুল ও আবু সাঈদ চৌধুরী
Walton E-plaza

ড. জি এম শফিউর রহমান : আজ জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের ৪৩তম মৃত্যুবার্ষিকী। ইংরেজী ১৯৭৬ সালের ২৯ আগস্ট (১২ ভাদ্র) প্রয়াত হন কবি। আরেক জন বাংলাদেশের সাবেক রাষ্ট্রপতি বিচারপতি আবু সাইদ চৌধুরী প্রয়াত হন ১৯৮৭ সালের ২ আগস্ট। দুজনেই এই আগস্টেই এই দুনিয়া থেকে পরপারে চলে যান।

দুজনেই শুধু এখানেই সম্পর্কিত নন। তাদের সম্পর্কটা অনেক অনেক বছর পূর্ব থেকেই, হ্যাঁ ১৯৪০ সাল থেকেই। কাজী নজরুল ইসলাম তখন বাংলা সাহিত্যের কবি হিসাবে ব্যাপক খ্যাতি অর্জন করেছিলেন। আর আবু সাঈদ চৌধুরী তখন টাঙ্গাইল থেকে পড়তে গিয়েছিলেন কলকাতায় প্রেসিডেন্সি কলেজে। অসাম্প্রদায়িক চেতনার মানুষ আবু সাঈদ চৌধুরী এতটাই শিক্ষার্থীদের মাঝে জনপ্রিয় ছিলেন যে, তিনি প্রেসিডেন্সি কলেজ ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক নির্বচিত হয়েছিলেন। সেই সময় কলেজ বার্ষিকীর ২৫ বছর পূর্তি উপলক্ষে একটি বিশেষ সংখ্যা প্রকাশের জন্য লেখা প্রয়োজন। সেই লেখা সংগ্রহের জন্য কবি কাজী নজরুল ইসলামের সাথে সাক্ষাৎ করেন আবু সাঈদ চৌধুরী এবং এর মাধ্যমেই কবির সাথে আবু সাঈদ চৌধুরীর যোগাযোগ শুরু হয় এবং বেশ সখ্যতা গড়ে উঠে।

পরবর্তীতে আবু সাঈদ চৌধুরী তার বন্ধু আব্দুর রউফকে নিয়ে প্রায়ই কবির সাথে দেখা করতে যেতেন। তখন বংলা ভাষায় ভারত বর্ষ, বিচিত্রা ও প্রবাসীর মতো জনপ্রিয় পত্রিকা প্রকাশিত হতো। কিন্তু উপরোক্ত পত্রিকায় হিন্দু লেখকদের লেখাই বেশি প্রকাশিত হতো। মুসলমানদের সম্পাদনায় কয়েকটি পত্রিকা প্রকাশিত হতো, যাতে মুসলিম লেখকদের লেখাই প্রাধান্য পেত। কবি নজরুল ইসলাম ছিলেন অসম্প্রদায়িক চেতনার অগ্রপথিক, তাই তিনি এমন একটি পত্রিকার প্রয়োজনীয়তা অনুভব করলেন যাতে হিন্দু মুসলমান উভয় সম্প্রদায়ের লেখকদের লেখা থাকবে।

কাজী নজরুল ইসলাম উপরোক্ত চিন্তা ভাবনা থেকেই আবু সাঈদ চৌধুরীকে একটি মাসিক পত্রিকা প্রকাশের পরামর্শ দেন। মাসিক পত্রিকাটির নাম রাখা হয় রূপায়ন। পত্রিকার নাম কবি কাজী নজরুলই ঠিক করে দেন। যদিও কবি নজরুল এর প্রায় ২০ বছর পূর্বে ‘ধুমকেতু’ নামের পত্রিকা প্রকাশ করেছিলেন, যেখানে হিন্দু মুসলমান উভয় সম্প্রদায়ের লেখকদের লেখা প্রকাশ করতে চেষ্টা করেছিলেন। কবির আহবান আবু সাঈদ চৌধুরী সানন্দে গ্রহণ করলেন এবং একটি প্রকাশনা ও সম্পাদনা কমিটি গঠন করলেন। তিনি সম্পাদকের দায়িত্ব গ্রহণ করলেন এবং বন্ধু আব্দুর রউফকে ব্যবস্থাপনা পরিচালকের দায়িত্ব দিলেন। তিনি পত্রিকার প্রকাশ ও লেখা সংগ্রহের জন্য তৎকালীন কয়েকজন তরুণ লেখকের সাথে আলোচনা করেছিলেন এবং অত্যন্ত আগ্রহ নিয়ে এগিয়ে এসেছিলেন আহসান হাবিব, শওকত ওসমান, আবুল হোসেন গোলাম কুদ্দুস।

রূপায়নের প্রথম সংখ্যা প্রকাশিত হয় ইংরেজী ১৯৪০ বা বাংলা ১৩৪৭ সালের অগ্রাহায়ণ মাসে। প্রথম সংখ্যার প্রথম পৃষ্ঠায় কবি কাজী নজরুল ইসলামের একটি সুফিবাদী কবিতা ‘অভেদম্’ প্রকাশিত হয়। দ্বিতীয় সংখ্যায় প্রকাশিত হয় ‘অভয় সুন্দর’ নামে কবিতা। বসন্ত সংখ্যা বা তৃতীয় সংখ্যায় প্রকাশিত হয় খুবই জনপ্রিয় গান ‘তুমি সুন্দর তাই চেয়ে থাকি প্রিয় সে কি মোর অপরাধ’। এভাবে পত্রিকার তিনটি সংখ্যা প্রকাশিত হয়। ১৯৪১ সালে শেষ সংখ্যাটি সপ্তম সংখ্যা হিসাবে আংশিক মুদ্রিত হয়, সেই সংখ্যায় থাকে ‘আর জিজ্ঞাসা করিব না কোন কথা’ নামে কবি নজরুলের কবিতাটি। কিন্তু সপ্তম সংখ্যা আর প্রকশিত হয়নি, তার সাথে এ কবিতাটিও আর কোথাও প্রকাশিত হয়নি।

কবি নজরুল অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে পত্রিকাটি গ্রহণ করেছিলেন। রূপায়ন নামের স্বল্পায়ু পত্রিকাটি বন্ধ হয়ে যাওয়া নিয়ে সম্পাদক আবু সাঈদ চৌধুরী বলেছেন ‘পত্রিকা বন্ধ হয়ে যাওয়ার আরেকটি বড় কারণ নজরুল ইসলামের অসুস্থ হয়ে পড়া। এতে আমাদের প্রাণ শক্তির উৎসই গেল বন্ধ হয়ে’। রূপায়ন পত্রিকায় কবি নজরুল ছাড়াও যাদের লেখা ছাপা হয় তারা হলেন আনন্দ বাজার পত্রিকার প্রতিষ্ঠাতা সম্পাদক সত্যেন্দ্রনাথ মজুমদার, অনুশীলন পার্টির নেতা অনিল চন্দ্র রায়, প্রেসিডেন্সি কলেজের অধ্যাপক শশাঙ্ক শেখর বাগচী, বিষ্ণুদাস বসু, কমল রয় চৌধুরীসহ আরো অনেক হিন্দু লেখকের। মুসলিম লেখকগণদের মধ্যে যাদের লেখা প্রকাশিত হতো তারা হলেন- আবুল মনসুর আহম্মদ, জসীম উদ্দীন, হুমায়ুন কবীর, আহসান হাবীব, মোহাম্মদ মোদাব্বের, কামাল চৌধুরী, গোলাম কুদ্দস, আবু রূশদ, হবীবুল্লাহ বাহার, আজিজুর রহমান, আব্দুর রউফ, মোতাহার হোসেন চৌধুরী, জহুর হোসেন চৌধুরী, শামসুর নাহার মাহমুদ, শওকত ওসমান, ফররুখ আহমদ প্রমুখ। আবু সাইদ চৌধুরী ছদ্দনাম ‘রূপকুমার’ ব্যবহার করে সম্পাদকীয় লিখতেন।

আজকের এই দিনে কবি কাজী নজরুলসহ প্রয়াত আবু সাঈদ চৌধুরীকে শ্রদ্ধায় স্মরণ করছি এবং তাদের আত্মার শান্তি কামনা করছি।

লেখক : চেয়ারম্যান ও প্রফেসর
ম্যাটেরিয়ালস সায়েন্স অ্যান্ড ইঞ্জিনিয়ারিং বিভাগ
রাজশাহী বিশ^বিদ্যালয়



রাইজিংবিডি/ঢাকা/২৭ আগস্ট/২০১৯/এনএ

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       
Walton AC
Marcel Fridge