ঢাকা, সোমবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

এটিএম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত

রাহাত সাইফুল : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৫-১০ ২:৪৬:৪৮ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৫-১০ ৯:১৯:৩৫ পিএম
এটিএম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থা অপরিবর্তিত

বিনোদন প্রতিবেদক : বরেণ্য অভিনেতা এটিএম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থা এখনও অপরিবর্তিত রয়েছে বলে রাইজিংবিডিকে জানিয়েছেন তার মেজ মেয়ে কোয়েল আহমেদ।

গত শুক্রবার এটিএম শামসুজ্জামানের লাইফ সাপোর্ট খুলে দেয়া হয়। কিন্তু পুনরায় শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় গত সোমবার সকাল থেকে আবার তাকে লাইফ সাপোর্ট দেয়া হচ্ছে। রাজধানীর আজগর আলী হাসপাতালের ইনটেনসিভ কেয়ার ইউনিটে (আইসিইউ) চিকিৎসাধীন রয়েছেন দেশবরেণ্য এই অভিনেতা।

কোয়েল আহমেদ রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘বাবার শারীরিক অবস্থা আগের মতই আছে। এখনও লাইফ সাপোর্টে আছেন। বিদেশে উন্নত চিকিৎসার পরিকল্পনা রয়েছে। এ বিষয়ে সরকারের কাছ থেকেও ইতিবাচক সারা পেয়েছি। তাকে অন্য কোনো হাসপাতা‌লে স্থানান্তর করা হ‌বে না‌কি বিদেশে নেয়া হবে- মাননীয় প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশে ফিরলেই এ ব্যাপারে চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। প্রধানমন্ত্রী ১১ মে দে‌শে ফির‌বেন।

কোয়েল আহমেদ জানান, এটিএম শামসুজ্জামানের শারীরিক অবস্থার খোঁজ নিতে আজ শুক্রবার হাসপাতালে যাচ্ছেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ (ঢামেক) হাসপাতালের বার্ন অ্যান্ড প্লাস্টিক সার্জারি ইউনিটের সমন্বয়ক ডা. সামন্ত লাল সেন।তার সঙ্গে যাবেন প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারী বিপ্লব বড়ুয়া।

গত ২৬ এপ্রিল, রাত ১২টার দিকে অসুস্থ বোধ করায় এটিএম শামসুজ্জামানকে আজগর আলী হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। এরপর হঠাৎ করেই তার রেচন প্রক্রিয়ায় জটিলতা দেখা দেয়। গত ২৭ এপ্রিল তার অস্ত্রোপচার সম্পন্ন হয়। ২৮ এপ্রিল সকালে তাকে কেবিনে স্থানান্তর করা হয়। কিন্তু ৩০ এপ্রিল শারীরিক অবস্থার অবনতি হওয়ায় তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়েছিল।

এটিএম শামসুজ্জামান পাঁচবার জাতীয় চলচ্চিত্র পুরস্কার পেয়েছেন। শিল্পকলায় অবদানের জন্য ২০১৫ সালে পেয়েছেন রাষ্ট্রীয় সর্বোচ্চ সম্মাননা একুশে পদক। ১৯৬১ সালে পরিচালক উদয়ন চৌধুরীর ‘বিষকন্যা’ চলচ্চিত্রে সহকারী পরিচালক হিসেবে কাজ শুরু করেন তিনি। প্রথম কাহিনি ও চিত্রনাট্য লিখেন ‘জলছবি’ চলচ্চিত্রের জন্য। এ পর্যন্ত শতাধিক চিত্রনাট্য ও কাহিনি লিখেছেন। প্রথম দিকে কৌতুক অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্র জীবন শুরু করেন। অভিনেতা হিসেবে চলচ্চিত্র পর্দায় তার আগমন ১৯৬৫ সালে। ১৯৭৬ সালে চলচ্চিত্রকার আমজাদ হোসেনের ‘নয়নমণি’ চলচ্চিত্রে খলনায়কের চরিত্রে অভিনয়ের মাধ্যমে আলোচনায় আসেন তিনি।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১০ মে ২০১৯/রাহাত/তারা

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন