ঢাকা, বুধবার, ২৮ কার্তিক ১৪২৬, ১৩ নভেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

‘কাউন্সিলের আগেই সহযোগী-ভাতৃপ্রতিম সংগঠনে নতুন কমিটি’

এসকে রেজা পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৬-১৯ ৫:৩৩:২৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-২০ ৫:১৪:৩৪ পিএম

জ্যেষ্ঠ প্র‌তি‌বেদক : অক্টোবরে আওয়ামী লীগের কাউন্সিলের আগেই সহযোগী-ভাতৃপ্রতিম সংগঠনগুলোতে নতুন কমিটি আসবে বলে জানিয়েছেন দলটির সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদের। মেয়াদোত্তীর্ণ সংগঠনগুলোর সম্মেলন দলের জাতীয় সম্মেলনের আগেই করার নির্দেশনা দিয়েছেন তিনি।

বুধবার দুপুরে বঙ্গবন্ধু অ্যাভিনিউয়ে আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের বর্ধিত সভায় এ নির্দেশনার কথা জানান তিনি।

গঠনতন্ত্র অনুযায়ী আওয়ামী লীগের সংগঠন স্বেচ্ছাসেবক লীগ, যুবলীগ, কৃষক লীগ ও জাতীয় শ্রমিক লীগের মেয়াদ দুই বছর হলেও চার বছরে নতুন কমিটি পায়নি।

মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি নিয়ে চলা নেতাকর্মীরা আগামী অক্টোবরে আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় সম্মেলনের আগেই নতুন কমিটি পাচ্ছেন বলে জানান আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক।

তিনি বলেন, ‘আমাদের সহযোগী সংগঠনগুলো যাদের মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে, তাদেরকে আমরা ইতিমধ্যে নির্দেশনা দিয়েছি। শুধু সহযোগী সংগঠন নয়, আওয়ামী লীগের জেলা মহানগর, উপজেলা, থানা শাখা সংগঠনের যেসকল কমিটির মেয়াদ উত্তীর্ণ হয়েছে তাদের স্ব স্ব সম্মেলন সম্পন্ন করার জন্য আমরা কেন্দ্র থেকে সার্কুলার দিয়ে নির্দেশনা দিয়েছি।’

‘যেসব কমিটির মেয়াদোত্তীর্ণ হয়েছে তাদের জাতীয় সম্মেলনের আগে সম্মেলন দেওয়ার জন্য আমরা নির্দেশনা দিয়েছি। আবারও সাংবাদিক বন্ধুদের মাধ্যমে এই বার্তা দিচ্ছি। আপনাদের মাধ্যমে আজকে আবার নির্দেশনা দিচ্ছি, মেয়াদ উত্তীর্ণ সবগুলো কমিটির সম্মেলন শেষ করুন।’

কমিটি করতে গিয়ে নিজের লোক না খোঁজার নির্দেশনা দিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘কমিটি করতে গিয়ে নিজের লোক খুঁজবেন না, দলের লোক খুঁজবেন। কেউ নিজের থাকবে না। সবাই আওয়ামী লীগের, সবাই শেখ হাসিনার সঙ্গে থাকবে।’

‘নিজের লোক কখনও চিরস্থায়ী থাকে না। দলের জন্য কাজ করুন। দুঃসময়ের দলের নেতাকর্মীদের অবহেলা করবেন না। যারা অসহায় অসচ্ছল তাদের পাশে দাঁড়ান।’

আওয়ামী লীগের বিদ্রোহী প্রার্থীদের কঠোর নির্দেশনা আসছে জানিয়ে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘এবার আমাদের বিদ্রোহীর সংখ্যা একেবারেই কম ছিল। তবুও বিদ্রোহীদের ব্যাপারে শৃঙ্খলা কমিটির মিটিংয়ে আমরা শৃঙ্খলার বেপারে আরো কঠোর হবো। আগামী কার্যনির্বাহী সভায় এ ব্যাপারে আলোচনা হবে।’

বিএনপি নেত্রী খালেদা জিয়ার মুক্তি সরকারের জন্য আটকে আছে বিএনপির এমন বক্তব্যের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, ‘খালেদা জিয়ার মুক্তি কেবল আদালতই দিতে পারে। এখানে সরকারের কোনো হস্তক্ষেপ নেই। আওয়ামী লীগ সরকার কখনওই আদালতের ওপর হস্তক্ষেপ করে না। বিএনপির এই সকল অভিযোগ অবান্তর ও হাস্যকর।’

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি এ কে এম রহমতউল্লার সভাপতিত্বে বক্তব্য রাখেন সাধারণ সম্পাদক সাদেক খান।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৯ জুন ২০১৯/রেজা/সাইফ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন