ঢাকা, শুক্রবার, ২২ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ০৫ জুন ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

সংকট কাটাতে ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টার আহ্বান বাম জোটের

নিজস্ব প্রতিবেদক : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৩-৩১ ১১:৩৭:০৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৩-৩১ ১১:৩৭:০৬ পিএম

বৈশ্বিক মহামারি করোনা ভাইরাসের সংক্রমণ থেকে বাংলাদেশের জনগণকে রক্ষায় সকলের ঐক্যবদ্ধ প্রচেষ্টা দরকার বলে মনে করে বাম গণতান্ত্রিক জোট। এ জন্য সকল গণতান্ত্রিক রাজনৈতিক দলকে নিয়ে সর্বদলীয় বৈঠক করে সবার মতামত নিয়ে ঐক্যবদ্ধভাবে সমন্বিত পদক্ষেপ গ্রহণের জন্য সরকার তথা প্রধানমন্ত্রীর প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন বাম গণতান্ত্রিক জোটের কেন্দ্রীয় নেতারা।

মঙ্গলবার (৩১ মার্চ) দুপুর ১২টা থেকে ১টা পর্যন্ত বাম গণতান্ত্রিক জোট কেন্দ্রীয় পরিচালনা পরিষদের নেতারা ভিডিও কনফারেন্স থেকে এ আহ্বান জানান।

ভিডিও কনফারেন্সে যোগ দিয়ে বর্তমানে দেশের সর্বশেষ করোনা পরিস্থিতিতে চিকিৎসা ব্যবস্থার সংকট, সরকারের উদ্যোগহীনতা, শ্রমজীবী-হতদরিদ্র মানুষের দুর্দশা, জোটের করণীয় নিয়ে বক্তব্য রাখেন ও মতামত দেন বাম জোটের সমন্বয়ক বজলুর রশীদ ফিরোজ, সিপিবির সাধারণ সম্পাদক শাহ আলম, আবদুল্লাহ ক্বাফী রতন, ইউনাইটেড কমিউনিস্ট লীগের সাধারণ সম্পাদক মোশাররফ হোসেন নান্নু, বাসদ (মার্কসবাদী) নেতা মানস নন্দী, ওয়ার্কার্স পার্টির আকবর খান, গণতান্ত্রিক পার্টির শহিদুল ইসলাম সবুজ, সমাজতান্ত্রিক আন্দোলনের আহ্বায়ক হামিদুল হক ও গণসংহতি আন্দোলনের প্রধান সমন্বয়কারী কমরেড জুনায়েদ সাকী।

নেতারা করোনা ভাইরাস সংক্রমণ প্রতিরোধে সরকারের গৃহীত পদক্ষেপে অসন্তোষ প্রকাশ করে বলেন, শুরু থেকেই সরকার এ মহামারিকে গুরুত্ব না দেওয়ায় গত তিন মাসেও তেমন কোন প্রস্তুতি যে নেয়নি তা দেশের একটি মাত্র প্রতিষ্ঠানে করোনা পরীক্ষা এবং সেখানকার মুখপাত্র আক্রান্ত ও মৃতের যে পরিসংখ্যান দিচ্ছে, তা থেকে স্পষ্ট হয়ে গেছে। তারা সরাদেশে অন্তত প্রত্যেক জেলায় করোনা পরীক্ষার ল্যাব স্থাপন করে বিপুল সংখ্যায় পরীক্ষা করে সঠিক তথ্য জনগণকে জানানো এবং সচেতনতা গড়ে তুলে ভাইরাস প্রতিরোধে এগিয়ে আসার আহ্বান জানান।

বিবৃতিতে নেতৃবৃন্দ ডাক্তার, নার্স, চিকিৎসাসেবাকর্মী সকলের সুরক্ষা সামগ্রী এবং ঝুঁকি প্রণোদনা প্যাকেজ ঘোষণার জন্য সরকারের প্রতি দাবি জানান।

নেতারা বলেন, ‘সব হাসপাতালে করোনা কর্ণার বা ওয়ার্ড নয়, করোনার চিকিৎসার জন্য হাসপাতাল নির্দিষ্ট করে দিতে হবে, প্রয়োজনে আর্মি স্টেডিয়ামসহ সকল জেলা-উপজেলা স্টেডিয়ামে ফিল্ড হাসপাতাল স্থাপনের ব্যবস্থা করতে হবে। এজন্য প্রয়োজনীয় বরাদ্দ করতে হবে। দেশে দুই কোটির ওপর শ্রমজীবী হতদরিদ্র মানুষ আজ করোনা সংক্রমণের প্রাদুর্ভাবে গৃহবন্ধী অবস্থায় কর্মহীন হয়ে খাদ্যাভাব ও নগদ অর্থ সংকটে দিন কাটাচ্ছে। এই সাধারণ ছুটিতে মানুষ ঘরে বসে থাকতে চাইছে না। তারা বলছে করোনায় যেমন ভয় আছে, তেমনি ঘরে বসে থেকে তো না খেয়ে মরতে হবে। ’

করোনা পরিস্থিতিতে এবং এর পরে যেন কারো কর্মচ্যুতি না ঘটে তার জন্যও সরকারের বিশেষ উদ্যোগ নেয়া জরুরি বলে মনে করেন নেতারা।


ঢাকা/মামুন/সাজেদ