ঢাকা, বুধবার, ৮ শ্রাবণ ১৪২৬, ২৪ জুলাই ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

ভুতুড়ে ব্যাটিংয়ের পর শ্রীলঙ্কাকে জেতালেন প্রদীপ-মালিঙ্গা

আবু হোসেন পরাগ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৬-০৫ ১২:৩০:১৫ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৬-০৫ ৯:১২:০৬ এএম
ভুতুড়ে ব্যাটিংয়ের পর শ্রীলঙ্কাকে জেতালেন প্রদীপ-মালিঙ্গা
Voice Control HD Smart LED

আবু হোসেন পরাগ : কার্ডিফের সোফিয়া গার্ডেন এমননিতেই শ্রীলঙ্কার জন্য ‘অপয়া’। এই মাঠে আগে কখনো তারা ওয়ানডে জিততে পারেনি। বিশ্বকাপে প্রথম ম্যাচে এখানেই নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে ১৩৬ রানে অলআউট হয়ে ম্যাচ হারে ১০ উইকেটে। একই মাঠে আফগানিস্তানের বিপক্ষে ভুতুড়ে ব্যাটিং প্রদর্শনীতে আরেকটি হারের শঙ্কায় পড়েছিল তারা। তবে দুর্দান্ত বোলিংয়ে লঙ্কানদের উদ্ধার করেছেন নুয়ান প্রদীপ আর লাসিথ মালিঙ্গা।

মঙ্গলবার আফগানিস্তানকে ডাকওয়ার্থ ও লুইস পদ্ধতিতে ৩৪ রানে হারিয়েছে শ্রীলঙ্কা। আগে ব্যাট করতে নেমে একটা সময় শ্রীলঙ্কার স্কোর ছিল ১ উইকেটে ১৪৪ রান। কিন্তু নাটকীয় ব্যাটিং ধসে সেটি হয়ে যায় ৮ উইকেটে ১৮০!

৩৩ ওভার শেষে শ্রীলঙ্কার স্কোর যখন ৮ উইকেটে ১৮২, তখনই বৃষ্টিতে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। ঘণ্টা তিনেক পর আবার খেলা শুরু হলে ম্যাচের দৈর্ঘ্য নেমে আসে ৪১ ওভারে। তবে ৩৬.৫ ওভারে শ্রীলঙ্কা গুটিয়ে যায় ২০১ রানে। ডাকওয়ার্থ ও লুইস পদ্ধতিতে ১৮৭ রানের লক্ষ্য পেয়ে আফগানিস্তান থামে ১৫২ রানে।

প্রথম ম্যাচে প্রদীপকে খেলায়নি শ্রীলঙ্কা। সেই প্রদীপই এদিন দলে ফিরে হলেন জয়ের নায়ক। ডানহাতি পেসার ৯ ওভারে ৩১ রানে নিয়েছেন ৪ উইকেট। জিতেছেন ম্যাচসেরার পুরস্কারও। ৩৯ রানে ৩ উইকেট নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন মালিঙ্গা। অভিজ্ঞ এই পেসার শ্রীলঙ্কার হয়ে সবশেষ ওয়ানডে জিতেছিলেন ২০১৭ সালের সেপ্টেম্বর।

এরপর তাকে নিয়ে খেলা ২২ ওয়ানডের ২১টিই হারে শ্রীলঙ্কা, অন্যটির ফল হয়নি। দেড় বছরের বেশি সময় পর আবার তিনি শ্রীলঙ্কার হয়ে কোনো ওয়ানডে জিতলেন। কার্ডিফে ছয়বারের চেষ্টায় প্রথম কোনো ওয়ানডে জিতল শ্রীলঙ্কা।

সোফিয়া গার্ডেনে টস জিতে শ্রীলঙ্কাকে ব্যাটিংয়ে পাঠিয়েছিল আফগানিস্তান। কিন্তু আগে বোলিং নেওয়ার সিদ্ধান্তের যথার্থতা প্রমাণ করতে পারেননি আফগান বোলাররা। বরং ওয়াইড আর ওয়াইডে দুই হাতে অতিরিক্ত রান বিলিয়েছেন তারা। এর সঙ্গে কুশল পেরেরার দুর্দান্ত ব্যাটিংয়ে শ্রীলঙ্কা পায় উড়ন্ত সূচনা।

প্রথম ১০ ওভারেই শ্রীলঙ্কার স্কোরবোর্ডে বিনা উইকেটে ৭৯ রান। দিমুথ করুনারত্নেকে ফিরিয়ে ৯২ রানের উদ্বোধনী জুটি ভাঙেন আফগান স্পিনার মোহাম্মদ নবী। বেরিয়ে এসে খেলতে গিয়ে করুনারত্নে মিড অফে ক্যাচ দিয়ে ফেরেন ব্যক্তিগত ৩০ রানে।

এরপর শ্রীলঙ্কাকে এগিয়ে নিচ্ছিলেন পেরেরা ও লাহিরু থিরিমান্নে। ২১ ওভার শেষে শ্রীলঙ্কার রান ছিল ১ উইকেটে ১৪৪ রান। এরপরই ধসের শুরু। নবী একই ওভারে তুলে নেন থিরিমান্নে (২৫), কুশল মেন্ডিস আর অ্যাঞ্জেলো ম্যাথুসের উইকেট। প্রথম ম্যাচের পর ম্যাথুস রানের খাতা খুলতে পারেননি এদিনও।

পরের ওভারে পেসার হামিদ হাসানের শিকার ধনঞ্জয়া সিলভা। ১ উইকেটে ১৪৪ থেকে দুই ওভারের ব্যবধানে শ্রীলঙ্কার স্কোর তখন ৪ উইকেটে ১৪৯!

এরপর টেকেননি থিসারা পেরেরা আর ইসুরু উদানা। লেগ স্পিনার রশিদ খানকে রিভার্স সুইপের চেষ্টায় ফেরেন এক প্রান্ত আগলে রাখা পেরেরাও। তাতে শ্রীলঙ্কার স্কোর হয়ে যায় ৮ উইকেটে ১৮০। ওই ওভার শেষেই বৃষ্টিতে বন্ধ হয়ে যায় খেলা। দীর্ঘ সময় পর আবার খেলা শুরু হলে শ্রীলঙ্কার ইনিংস বেশিক্ষণ স্থায়ী হয়নি।

নবী ৯ ওভারে ৩০ রানে নেন ৪ উইকেট। রশিদ ১৭ রানে ও দৌলত ৩৪ রানে নেন ২টি করে উইকেট। 

লক্ষ্য তাড়ায় আফগানিস্তান ৩৪ রানের উদ্বোধনী জুটিতে শুরুটা ভালোই করেছিল। তবে স্কোরটা ৫৭ তে যেতেই তারা হারিয়ে ফেলে ৫ উইকেট। প্রথম চার ব্যাটসম্যানের মধ্যে দুই অঙ্কে যেতে পারেন শুধু হজরতউল্লাহ জাজাই (৩০)। পাঁচে নামা নবী করেন ১১ রান।

ষষ্ঠ উইকেটে প্রতিরোধ গড়েন গুলবাদিন নাইব ও নজিবুল্লাহ জাদরান। প্রথম ম্যাচে অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষে ৭৭ রানে ৫ উইকেট হারানোর পর ৮৩ রানের জুটি গড়েছিলেন এই দুজন। এদিনও দুজন গড়ে ফেলেন ৬৪ রানের জুটি। আফগানিস্তান তখন জয়ের স্বপ্নই দেখছিল।

তবে দারুণ এক ডেলিভারিতে নাইবকে (২৩) এলবিডব্লিউ করে জুটি ভাঙেন প্রদীপ। এরপর রশিদ আর দৌলতও ফেরেন দ্রতই। শেষ ভরসা হয়ে টিকে ছিলেন নজিবুলাহ। তবে ৪৩ রান করে নজিবুল্লাহ রান আউটে কাটা পড়লে আফগানিস্তানের আশাও শেষ হয়ে যায়। হামিদ হাসানকে দারুণ এক ইয়র্কারে বোল্ড করে ম্যাচের ইতি টানেন মালিঙ্গা।   

 

 

রাইজিংবিডি/ঢাকা/৪ জুন ২০১৯/পরাগ

Walton AC
ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন
       

Walton AC
Marcel Fridge