ঢাকা, সোমবার, ৭ আশ্বিন ১৪২৬, ২৩ সেপ্টেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:

নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সুষ্ঠু রাখায় প্রশংসা পেয়েছে পুলিশ

আসাদ আল মাহমুদ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০১-১৪ ৮:০৮:৪৩ এএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০২-০২ ৯:০৪:৫৭ পিএম
নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সুষ্ঠু রাখায় প্রশংসা পেয়েছে পুলিশ

আসাদ আল মাহমুদ: একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি সুষ্ঠু রাখায় প্রশংসা পেয়েছে বাংলাদেশ পুলিশ।

পুলিশ মহাপরিদর্শকের নির্দেশনায় গত সপ্তাহে সারাদেশে থানা ও পুলিশলাইনগুলোতে প্রীতিভোজ এবং সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। রাজারবাগ পুলিশ লাইনেও প্রীতিভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এ বিষয়ে পুলিশ সদরদপ্তরের মিডিয়া উইংয়ের সহকারী মহাপরিদর্শক (এআইজি) সোহেল রানা বলেন, নির্বাচন ঘিরে আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে বাড়তি চাপে থাকতে হয়েছে পুলিশকে। পুলিশ পেশাদারিত্বের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করায় বিচ্ছিন্ন কয়েকটি ঘটনা ছাড়া সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

তিনি বলেন, পুলিশ সুপারদের প্রশংসা করে সদরদপ্তর থেকে বার্তা দেওয়া হয়েছে। সংসদ নির্বাচন ছাড়াও থার্টিফার্স্ট নাইটে পুলিশ সতর্ক থাকায় কোনো অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি। পুলিশ সদস্যরা দায়িত্ব পালন করতে গিয়ে তেমন বিশ্রাম ও অবকাশযাপনের সুযোগ পাননি। তাই পুলিশ সদস্যদের চিত্তবিনোদনের জন্য এই প্রীতিভোজ ও অনুষ্ঠানের ব্যবস্থা করা হয়েছে।

সূত্র জানায়, সুষ্ঠুভাবে জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হওয়ায় দেশের সব জেলার পুলিশ সুপারদের (এসপি) প্রশংসা করে চিঠি দিয়েছেন বাহিনীর সদরদপ্তরের ডিআইজি (প্রশাসন) হাবিবুর রহমান। চিঠিতে এসপিদের উদ্দেশে তিনি লিখেন- সুষ্ঠু, শান্তিপূর্ণ ও উৎসবমুখর পরিবেশে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন সম্পন্ন করার জন্য আপনাকে আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন। সুষ্ঠু ও সুন্দর পরিবেশে স্বচ্ছ এবং আন্তর্জাতিক মানসম্পন্ন জাতীয় নির্বাচন অনুষ্ঠানে যে অবদান রেখেছেন, তা জনগণের প্রতি আপনার দায়বদ্ধতা, দেশপ্রেম ও পেশাদারিত্বের সর্বোত্তম প্রতিফলন। একবিংশ শতাব্দীর উন্নত বাংলাদেশ বিনির্মাণে আপনার জনকল্যাণকর ভূমিকার সফলতা কামনা করছি।

এ বিষয়ে পুলিশ সদর দপ্তরের এক কর্মকর্তা বলেন, সারাদেশে ৬৩৩ থানায় প্রীতিভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করার নির্দেশ দেওয়া হয়। গত সপ্তাহে (বুধবার থেকে শনিবার) থানা ও পুলিশ লাইনগুলোতে এই প্রীতিভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়। তবে অনুষ্ঠানে পুলিশ বাহিনীর বাইরের কোনও অতিথি ছিল না। দেশের থানাগুলোতে কর্মরত সব পুলিশ সদস্য, ফাঁড়ি পুলিশ ও সংশ্লিষ্ট থানায় কর্তব্যরত আনসার বাহিনীর সদস্যরা এতে অংশ নিয়েছেন।

এ বিষয়ে মিরপুর মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) দাদন ফকির বলেন, এই উদ্যোগে মাঠ পর্যায়ে কর্মরত পুলিশ বাহিনীর সদস্যরা খুশি হয়েছেন। আমরা মিরপুর মডেল থানার ছাদে প্রীতিভোজ ও সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের আয়োজন করেছি।

সূত্র জানায়, সংসদ নির্বাচনে সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণ পরিবেশ বজায় রাখার পুরস্কার হিসেবে পুলিশ কর্মকর্তাদের পদক দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে। এ পদক দেওয়ার উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে পুলিশের সব রেঞ্জ ডিআইজি, পুলিশ কমিশনার ও জেলা পুলিশ সুপারদের। এ ব্যাপারে একটি প্রস্তাব স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে পাঠানো হচ্ছে। প্রস্তাবটি অনুমোদন পেলে পুলিশ সপ্তাহের অনুষ্ঠানে সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের হাতে এ পদক তুলে দেওয়া হবে।



রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৪ জানুয়ারি ২০১৯/আসাদ/শাহনেওয়াজ

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন