ঢাকা, সোমবার, ২৩ অগ্রহায়ণ ১৪২৬, ০৯ ডিসেম্বর ২০১৯
Risingbd
সর্বশেষ:
আ.লীগের কাউন্সিল

আসবে চমক, পাল্টাবে হিসাব

এসকে রেজা পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০১৯-০৭-১৮ ৭:১৮:০৯ পিএম     ||     আপডেট: ২০১৯-০৭-২৪ ১০:৩৯:৩০ পিএম

এসকে রেজা পারভেজ : সাংগঠনিক কার্মকাণ্ডে সফল-বিফল বিবেচনায় দলীয় বিভিন্ন পদে বড় ধরনের রদবদল আসছে আওয়ামী লীগের আসন্ন কাউন্সিলে। হিসাব-নিকাশে বড় পরিবর্তন হবে, যা নেতাকর্মীদের কাছে চমক হিসেবে দেখা দেবে- এমনটাই জানাচ্ছে দলটির বিভিন্ন সূত্র।

আগামী অক্টোবরে দলটির ২১তম জাতীয় সম্মেলনে অনেকের যেমন পদাবনতি হবে, তেমনি অনেকের উত্থান হবে। বিশেষ করে, তরুণ নেতাদের উত্থানের এই তালিকা হতে পারে বেশ লম্বা। আগামী দিনে সরকার ও দলে তরুণদের সুযোগ দিতে বড় ধরনের রদবদলের পক্ষে আওয়ামী লীগের নীতিনির্ধারকরা।   

দলীয় সূত্র বলছে, অক্টোবরে কাউন্সিল করতে চাইছে আওয়ামী লীগ। যদিও এ সিদ্ধান্ত এখনো প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। তবে এরইমধ্যে প্রত্যাশিত পদ পেতে নেতারা দলের নিজেদের কার্যকারিতা ও অপহরিহার্যতা তুলে ধরতে কাজ করছেন। দলীয় সভানেত্রীর দৃষ্টি আকর্ষণ করতে দলীয় কর্মকাণ্ডে সম্পৃক্ততা বাড়াচ্ছেন।

দলটির শীর্ষ পর্যায়ের বেশ কয়েকজন নেতার সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, টানা তৃতীয় মেয়াদে ক্ষমতায় থাকা আওয়ামী লীগের পরিকল্পনা এখন সুদূরপ্রসারী। দীর্ঘ মেয়াদে যারা দলকে সেবা দিতে পারবেন, এমন নেতাদের উঠিয়ে আনতে চাইছে দলটি। তাছাড়া, আগামী কাউন্সিল আওয়ামী লীগের জন্য অনেক গুরুত্বপূর্ণ। কারণ, এ কমিটির নেতৃত্বেই ২০২০ সালে জাতির জনক বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের জন্মশতবার্ষিকী ও ২০২১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী পালন করা হবে।

দলীয় সূত্র বলছে, আওয়ামী লীগের সভানেত্রী শেখ হাসিনা বিশ্রাম চাইলেও তার বিকল্প এখনো তৈরি হয়নি। নেতাকর্মীদের কাছে তুমুল জনপ্রিয়তা এবং সরকারে তার অপরিহার্যতার কারণে তাকে ফের নৌকার হাল ধরতে হবে। কাউন্সিলে সভাপতি পদে তার কোনো বিকল্প নেই। তবে দলের দ্বিতীয় গুরুত্বপূর্ণ সধারণ সম্পাদক পদে কে আসছেন, সে বিষয়টি এখন নেতাকর্মীদের আলোচনার কেন্দ্রবিন্দুতে রয়েছে। এই পদে বর্তমান সাধারণ সম্পাদক ওবায়দুল কাদেরের সঙ্গে প্রতিদ্বন্দ্বিতায় রয়েছেন প্রেসিডিয়াম সদস্য ড. আবদুর রাজ্জাক, যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক মাহবুব-উল আলম হানিফ, জাহাঙ্গীর কবীর নানক, প্রচার সম্পাদক ড. হাছান মাহমুদ ও সাংগঠনিক সম্পাদক খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। ওবায়দুল কাদের অসুস্থ না হলে তিনি এই পদে আবার আসতেন বলে দলে গুঞ্জন রয়েছে। তবে সাম্প্রতিক সময়ে তার অসুস্থতা এবং হার্টের অপারেশনের পর বিষয়টি নিয়ে শঙ্কা রয়েছে। কারণ, অনেকে মনে করেন পদ্মা সেতু ও মেট্রো রেলের মতো চ্যালেঞ্জিং প্রজেক্টে সময় দিয়ে আবার দলকে সময় দেয়া তার শরীরের জন্য কঠিন হতে পারে। সেক্ষেত্রে তার বিকল্প ভাবা হতে পারে। তবে সিঙ্গাপুর থেকে চিকিৎসার পর দেশে এসে তিনি মন্ত্রী ও দলের সাধারণ সম্পাদক হিসেবে বেশ সময় দিয়ে দল ও সরকারে নিজের কার্যকারিতা প্রমাণ করছেন।

এদিকে, দলের পদ পেয়ে দলীয় কর্মকাণ্ডে অপেক্ষাকৃত নিষ্ক্রিয়রা বাদ পড়ছেন এবারের কাউন্সিলে। গত দুই জাতীয় কাউন্সিলে তেমন কোনো পরির্বতন না হলেও এবার সাংগঠনিক সম্পাদক পদে আসতে পারে বেশ পরিবর্তন। যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক পদে আসতে পারে নতুন মুখ। পরিবর্তন আসবে দলের সাংগঠনিক পদেও। এই পদে অপেক্ষাকৃত তরুণদের প্রাধান্য দেয়া হতে পারে। দলের সর্বোচ্চ নীতিনির্ধারণী ফোরাম প্রেসিডিয়ামেও পরিবর্তনের আভাস রয়েছে।

এবারের কাউন্সিলে বর্তমান উপদেষ্টা পরিষদ নিয়ে নতুন চিন্তা রয়েছে আওয়ামী লীগের। উপদেষ্টা পরিষদকে আরো কার্যকর করার বিষয়ে কাউন্সিলে দিকনির্দেশনা থাকবে বলে ইঙ্গিত মিলেছে। গত ১২ জুলাই আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সভায় দলীয় সভানেত্রী শেখ হাসিনা উপদেষ্টা পরিষদকে আরো কার্যকর হওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন।     

কাউন্সিলের বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সভাপতিমণ্ডিলীর সদস্য মোহাম্মদ নাসিম রাইজিংবিডিকে বলেন, কাউন্সিলের ব্যাপারে এখনো সবকিছু প্রাথমিক পর্যায়ে রয়েছে। আগে আমরা জেলা ও উপজেলার মেয়াদোত্তীর্ণ কমিটি ভেঙে নতুন কমিটি করতে চাই। এরইমধ্যে বিভাগীয় পর্যায়ে টিম করে দেয়া হয়েছে। তারা কাজ করছেন। সংগঠনকে শক্তিশালী করতে এবং নতুনদের সুযোগ করে দিতে আমরা সঠিক সময়ে কাউন্সিল করতে চাইছি। এতে অবশ্যই দলের জন্য কার্যকর ও নিবেদিতরা প্রাধান্য পাবেন।


রাইজিংবিডি/ঢাকা/১৮ জুলাই ২০১৯/রেজা/রফিক

ইউটিউব সাবস্ক্রাইব করুন