ঢাকা, বৃহস্পতিবার, ১৮ চৈত্র ১৪২৬, ০২ এপ্রিল ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

দাঁড়িয়ে আছে মৃত্যু ফাঁদ (ভিডিও)

মাকসুদুর রহমান : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৩-০৮ ৬:০০:৩৩ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৩-০৮ ৮:৪৯:০৭ পিএম

ল্যাম্পপোস্ট। রাস্তায় মানুষের চলাচলে রাতের বেলায় পথচারীদের অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। কিন্ত এই পোষ্ট এখন মৃত্যু ফাঁদে পরিণত হয়েছে। তেমনই একটি পোস্ট দাঁড়িয়ে আছে কমলাপুর এলাকায়। যেকোন সময় সেটি পড়ে মানুষের জীবন কেড়ে নেওয়ার বড় দুর্ঘটনা ঘটতে পারে বলে স্থানীয়রা শঙ্কা জানিয়েছেন।

সরেজমিন দেখা যায়, কমলাপুর পুরনো বাজার এলাকার মসজিদ সংলগ্ন রাস্তার সামনে অন্য ল্যাম্পপোস্টের সঙ্গে ৩৮৫ নম্বর পোস্ট দাঁড়িয়ে আছে, সেটি জং এবং মরিচা ধরে নিচ থেকে পুরোপুরি ভেঙ্গে গেছে। তবে পোস্টটি মাটির নিচে থাকা অংশের সঙ্গে প্লাস্টিকের দড়ি এবং বড় একটি ইটের সঙ্গে বেঁধে রাখা হয়েছে। এর পাশ দিয়ে প্রতিনিয়ত শত শত যানবাহন যাচ্ছে।

আশপাশের দোকানদের সঙ্গে আলাপে জানা গেছে, প্রায় ৮ মাসের মতো হলো পোস্টটি এ অবস্থায় পড়ে আছে। সকাল থেকে রাত পর্যন্ত পোস্টের দুই পাশের রাস্তা দিয়ে প্রতিনিয়ত যানবাহন চলাচল করে। শুধু রাজধানীতে চলাচলকারি নয়, দূরপাল্লার বাসগুলোও এ রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করে। এছাড়া মতিঝিল মডেল স্কুল ও কলেজ, আইডিয়াল স্কুল অ্যান্ড কলেজ, মতিঝিল সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, টিঅ্যান্ডটি কলেজসহ আশপাশের আরও অনেক শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের শিক্ষার্থীরা এ রাস্তা দিয়ে যাতায়াত করে।

জিলাপি দোকানদার মালেক মিয়া বলছিলেন, ‘এক মাস আগে মতিঝিল থানার এক পুলিশ সদস‌্যের মাধ‌্যমে বিদ্যুৎ অফিসে খবর দেওয়া হয়। কিন্ত এখনও ঠিক হয়নি। ভেঙ্গে যেকোন সময় বড় ধরনের দুর্ঘটনা ঘটতে পারে।’

এ সময় তার মতো অনেকেই বলছিলেন, পোস্টটির সঙ্গে রয়েছে বিদ্যুতের তার। এটি ভেঙ্গে পড়লে বিদ্যুতের তার ছিঁড়ে যাবে। সেক্ষেত্রে ব্যাপক আকারে হতাহতের ঘটনা ঘটতে পারে। এ কারণে এখানে দ্রুত একটি নতুন ল্যাম্পপোস্ট স্থাপনের কোন বিকল্প নেই।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, এলাকাটি পড়েছে মানিকনগর বিদ্যুৎ অফিসের অধীনে। এই এলাকায় সন্ধ্যার পর অনেক পোস্টে বাতি নেই বা অকেজো হয়ে আছে, সন্ধ‌্যা থেকেই অন্ধকার। এ কারণে সন্ধ্যার পরে নানা ধরনের অপরাধমূলক ঘটনা ঘটছে। বিদ্যুৎ অফিস থেকে মাঝে-মধ্যে বৈদ‌্যুতিক তার ও বাতি ঠিক করতে আসলেও ওই পোস্টটি ঠিক করছে না।

এ বিষয়ে রোববার বিকেলে (৮ মার্চ) কথা হয় মানিকনগর পাওয়ার স্টেশনের নির্বাহী প্রকৌশলী দেলোয়ার হোসেনের সঙ্গে। তিনি রাইজিংবিডিকে বলেন, ‘এটি আমার এলাকা নয়। মতিঝিল স্টেশন পোস্টটির দেখভালের দায়িত্বে আছে। তারাই এ বিষয়ে বিস্তারিত বলতে পারবে।’

তবে এ বিষয়ে মতিঝিল স্টেশন অফিসের কোন কর্মকর্তা কথা বলতে রাজি হননি।

 

ঢাকা/মাকসুদ/সাজেদ