ঢাকা, শুক্রবার, ১৫ জ্যৈষ্ঠ ১৪২৭, ২৯ মে ২০২০
Risingbd
সর্বশেষ:

আ. লীগের ‘ত্রাণ কমিটি’ কতদূর?

এসকে রেজা পারভেজ : রাইজিংবিডি ডট কম
     
প্রকাশ: ২০২০-০৫-০৫ ১:৫৫:৪৬ পিএম     ||     আপডেট: ২০২০-০৫-০৫ ৩:৫৭:৫৯ পিএম

ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতা-কর্মীদের নিয়ে জেলায়-জেলায় ‘ত্রাণ সমন্বয় কমিটি’ গঠনের কাজ ৩ সপ্তাহেও শেষ হয়নি। তবে, তৃণমূলের নেতারা বলছেন, ৮০ ভাগ কাজ এগিয়েছে। ২/৩ দিনের মধ্যেই কমিটি গঠনের সম্পূর্ণ কাজ শেষ করবেন তারা। তবে, দেরির বিষয়ে তারা কেউ মন্তব্য করতে রাজি হননি।

প্রসঙ্গত, গত ১৫ এপ্রিল ভিডিও কনফারেন্সে দলীয় নেতাদের  সঙ্গে মতবিনিময়ের সময় জেলা থেকে ওয়ার্ড পর্যায় পর্যন্ত ত্রাণ কমিটি করার নির্দেশনা দেন আওয়ামী লীগের সভাপতি ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ওই নির্দেশনার পর ত্রাণ সমন্বয় কমিটি গঠনের কাজ শুরু হয়।

দলীয় সূত্রে জানা গেছে, এখন পর্যন্ত বেশিরভাগ জেলা এই কমিটি গঠনের কাজ শেষ করে আনতে পারেনি। তবে, কেন্দ্রীয় কমিটির দায়িত্বশীল নেতারা প্রতি দিনই বিষয়টি মনিটরিং করছেন। পাশাপাশি দ্রুত কমিটি গঠনের তাগাদাও দিচ্ছেন। 

জানা গেছে,  ৫০ লাখ হতদরিদ্র, দুস্থ, অসহায় ও কর্মহীন খেটে খাওয়া মানুষকে সরকারিভাবে রেশন কার্ডের আওতাভুক্ত করা হয়েছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে এসব মানেুষের ঘরে ঘরে ত্রাণ পৌঁছে দিতে সহযোগিতা করবে আওয়ামী লীগের ‘ত্রাণ সমম্বয় কমিটি’। সরকারের পাশাপাশি স্থানীয় আওয়ামী লীগের নিজস্ব অর্থায়নেও ত্রাণ কার্যক্রম চলবে।

‘ত্রাণ কমিটি’র অগ্রগতি বিষয়ে নেত্রকোনা জেলা কমিটির সাধারণ সম্পাদক আশরাফ আলী খান খসরু বলেন, ‘কাজ চলছে। তাড়াতাড়ি শেষ হবে।’

জানতে চাইলে নড়াইল জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি সুভাস চন্দ্র বোস ও সাধারণ সম্পাদক নিজামউদ্দিন খান নিলু বলেন, ‘মাঠ পর্যায়ে কমিটি গঠনের কাজ চলছে। ৮০ শতাংশ কাজ শেষ করে এনেছি। দুই-একদিনের মধ্যে বাকি কাজও শেষ করতে পারবো।’

লোহাগড়া উপজেলার সভাপতি মুন্সী আলাউদ্দিন ও সাধারণ সম্পাদক মশিউর রহমান বলেন,  ‘থানার ১২টি ইউনিয়ন ও একটি পৌরসভার মধ্যে ১০টি ইউনিয়নের তালিকা জমা হয়ে গেছে। বাকি কাজ শিগগিরই শেষ হবে।’

পিরোজপুর জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি একেএম আউয়াল জানান, জেলা, থানা, ইউনিয়নের কমিটি হয়ে গেছে। কেবল ওয়ার্ড পর্যায়ে কিছু বাকি আছে। সেগুলো দ্রুত  হয়ে যাবে।’

ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান ও সাধারণ সম্পাদক হয়েছেন মান্নান কচি বলেন, ‘দলীয় সভাপতির নির্দেশে ২১ সদস্য বিশিষ্ট ‘ত্রাণ সমন্বয় কমিটি’ করেছি। প্রত্যেক ওয়ার্ডে ২ হাজার পবিরারের তালিকা করেছি। এই তালিকা জেলা প্রশাসনে জমা দেবো।’

ঢাকা মহানগর দক্ষিণের সভাপতি আবু আহম্মদ মন্নাফি ও  সাধারণ সম্পাদক হুমায়ূন কবির বলেন, ‘ইতোমধ্যেই ৫৭ ওয়ার্ড ও ৮ ইউনিয়নের কমিটি হয়ে গেছে।’

কমিটির অগ্রগতি বিষয়ে জানতে চাইলে আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক বলেন, ‘ত্রাণ কমিটি গঠনে মাঠ-পর্যায়ের নেতাদের কর্মকাণ্ড মনিটরিং করছি। প্রতিদিনই বিষয়টি নিয়ে কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে আমরা বসছি।’ তিনি আরও বলেন, ‘দল-মত নির্বিশেষে ত্রাণের তালিকা করার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।’

একই তথ্য জানালেন আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম। তিনি বলেন, ‘তৃণমূল নেতাকর্মীদের সঙ্গে যোগাযোগ করে মাঠ পর্যায়ের খোঁজখবর নিচ্ছি।’ রোজা ও ঈদুল ফিতরকে সামনে ত্রাণ কার্যক্রম বাড়াতে প্রয়োজনীয় নির্দেশনা হয়েছে বলেও তিনি জানান।


ঢাকা/পারভেজ/এনই