ঢাকা     শুক্রবার   ০৭ আগস্ট ২০২০ ||  শ্রাবণ ২৩ ১৪২৭ ||  ১৭ জ্বিলহজ্জ ১৪৪১

দ্বন্দ্বে দ্বন্দ্বে বছর পার ইসির

35 || রাইজিংবিডি.কম

প্রকাশিত: ১০:৪৭, ৩১ ডিসেম্বর ২০১৯  

বিদায় ২০১৯। একাদশ জাতীয় সংসদ, সিটি-উপজেলাসহ বিভিন্ন নির্বাচনে ভোটার উপস্থিতি, অনিয়ম, অস্বাভাবিক ভোট পড়ার হার নিয়ে বছরজুড়ে কঠোর সমালোচনার মুখে ছিল নির্বাচন কমিশন। এছাড়া সিইসি-সচিব ও নির্বাচন কমিশনারদের অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্ব সমালোচনার ঝড় তুলে ছিল রাজনৈতিক অঙ্গনে। সেই সঙ্গে রোহিঙ্গা নারীর এনআইডি পাওয়া নিয়ে তোলপাড় শুরু হয়।

একাদশ জাতীয় নির্বাচন

২০১৮ সালের ৩০ ডিসেম্বর একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনের পরে ইসি মাহাবুব তালুকদার এই নির্বাচনের ভোট গ্রহণ ও এর প্রক্রিয়া নিয়ে বাকি নির্বাচন কমিশনারদের বিরুদ্ধে সমালোচনা করেছিলেন।

শতভাগ ভোট

প্রথমবারের মতো জাতীয় নির্বাচনে ইসির নিবন্ধিত সকল দলের অংশগ্রহণে একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। আর প্রথমবারের মতো সংসদ নির্বাচনে ইভিএম ব্যবহার ৬টি আসনে। তবে কিছুটা বিতর্ক হয়েছে বেশকিছু কেন্দ্রে শতভাগ ভোট পড়া নিয়ে। তবে গেজেট প্রকাশের পর প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে এম নূরুল হুদা সাফ জানিয়ে দেন এ নিয়ে কমিশনের কিছু করার নেই।

টিআইবি ও ইসির পাল্টাপাল্টি জবাব

টিআইবীর নির্বাহী পরিচালক ইফতেখারুজ্জামান নির্বাচন কমিশনের ভূমিকা লজ্জাজনক বলে মন্তব্য করেন। এছাড়া প্রার্থীরা সমান সুযোগ না পাওয়ায় ভোট নিয়ে প্রশ্ন তুলেছিল টিআইবি। টিআইবির এমন প্রতিবেদনের পরে ইসি তা প্রত্যাখ্যান করে। সিইসি কে এম নূরুল হুদা বলেছিলেন এটা অসৌজন্যমূলক বক্তব্য। আর ইসির তৎকালীন সচিব হেলালুদ্দীন আহমদ এ ধরনের প্রতিবেদন প্রকাশ করে সরকার ও নির্বাচন কমিশনকে অপ্রস্তুত করাকে উদ্দেশ্যপ্রণোদিত বলেন।

ঢাকা উত্তর সিটি উপ-নির্বাচন

ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের নির্বাচনে সকল দল অংশ নেয়নি। যে কারণে ইসি অস্বস্তি প্রকাশ করেছিলেন। গত ২৮ ফেব্রুয়ারি ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের মেয়র পদে উপ-নির্বাচনে ভোট দিয়ে সাংবাদিকদের প্রধান নির্বাচন কমিশনারকে এম নূরুল হুদা বলেছিলেন, এই উপ-নির্বাচনে সব দল অংশ না নেওয়ায় কিছুটা অস্বস্তি কাজ করছে।

এনআইডি-জালিয়াতি

একটি পাসপোর্টের আবেদন যাচাই করতে গিয়ে ধরা পড়ে ওই রোহিঙ্গা নারী জালিয়াতি করে বাংলাদেশের জাতীয় পরিচয়পত্র পেয়েছেন। এরই মধ্যে আগস্টে এক রোহিঙ্গা নারীর এনআইডি পাওয়াকে কেন্দ্র করে নানা ধরনের সমালোচনা শুরু হয়। তখন তদন্ত করলে বেরিয়ে আসে টাকার বিনিময়ে কীভাবে জাল এনআইডি পায় রোহিঙ্গারা। দালাল চক্রের সঙ্গে জড়িত ইসির কর্মকর্তা-কর্মচারীদের নামও বেরিয়ে আসে। জালিয়াত চক্রের খোঁজে মাঠে নামে ইসি, পুলিশ, দুদক।

এনআইডি জালিয়াতিতে সম্পৃক্ততার অভিযোগে চট্টগ্রাম নির্বাচন কার্যালয়ের এক অফিস সহায়ককে দুই সহযোগীসহ আটক করা হয়। এ ঘটনায় চট্টগ্রামের কোতোয়ালি থানায় মামলা করা হয়। মামলাটির তদন্তে নেমে কাউন্টার টেরোরিজম ইউনিট ইসির কিছু কর্মচারী-কর্মকর্তার সম্পৃক্ততা পায়। এনআইডি জালিয়াতি ও দুর্নীতি বন্ধে শুদ্ধি অভিযান এর ঘোষণা দেয় এনআইডি উইং।

নির্বাচন কমিশনে আগুন

গত ৯ সেপ্টেম্বর মধ্যরাতে সর্টসার্কিট থেকে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনের নিচতলায় আগুন লাগে। অগ্নিকাণ্ডের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ফায়ার সার্ভিসের ১০টি ইউনিট কাজ করে। অগ্নিকাণ্ডে পুড়ে যায় ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনসহ অন্যান্য জিনিসপত্র।

অগ্নিকাণ্ডের ঘটনায় গঠিত ছয় সদস্যের তদন্ত কমিটির প্রধানের দায়িত্বে থাকা ইসির অতিরিক্ত সচিব মো. মোখলেছুর রহমান সংবাদ সম্মেলন করে জানিয়েছিলেন আগুনে আর্থিক ক্ষতি হয়েছে ৩ কোটি ৭৭ লাখ ২১ হাজার ১৬৯ টাকা।

তিনি জানান, এই আগুনে ইভিএম কন্ট্রোল ইউনিট ৫৯টি, ব্যাটারি ৪৭টি, ব্যালট ৭৮৯, মনিটর ১ হাজার ২৩৩টি, ক্যাবল ৫৫৭ সেট, মনিটরের ব্যাটারি ৬৪টি, ল্যাপটপ একটি ও বার কোড স্ক্যানার দুটি ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

প্রবাসী বাংলাদেশিদের অনলাইন নিবন্ধন ও স্মার্ট কার্ড

প্রবাসী বাংলাদেশিদের ভোটার করতে নানা উদ্যোগ নেওয়া হয় ১০ বছর ধরে। কিন্তু নানা জটিলতায় তা সম্ভব হচ্ছিল না। সব জটিলতা পেরিয়ে অবশেষে ৫ নভেম্বর মালয়েশিয়া প্রবাসী বাংলাদেশিদের জন্য অনলাইন ভোটার নিবন্ধন সেবা চালু করা হয়।

প্রবাসীকল্যাণ ও বৈদেশিক কর্মসংস্থান মন্ত্রী ইমরান আহমদ মালয়েশিয়া থেকে এই কার্যক্রমের সূচনা করেন। ঢাকার আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবন থেকে তার সঙ্গে ভিডিও কনফারেন্সে যুক্ত হয়ে সিইসি নূরুল হুদা এর উদ্বোধন করেন।

সিইসি ও ইসি সচিবের একক কর্তৃত্ব

নির্বাচন কমিশন সচিবালয় আইন হওয়ার পর সিইসি ও ইসি সচিবের একক কর্তৃত্ব নিয়ে বিতর্ক সৃষ্টি হয় কমিশনে। কিছু বিষয়ে কমিশনারদের পাশ কাটিয়ে সিইসি ও সচিবের এ কর্তৃত্ব নিয়ে দ্বন্দ্বে জড়ান কমিশনের সদস্যরা।

ইসি মাহবুব তালুকদার ও ইসি সচিবের পাল্টাপাল্টি অভিযোগ

তৃতীয় ও চতুর্থ শ্রেণির প্রায় সাড়ে তিনশ কর্মী নিয়োগ প্রক্রিয়া নিয়ে নির্বাচন কমিশনার মাহবুব তালুকদার সচিবের বিরুদ্ধে স্বেচ্ছ্বাচারিতার অভিযোগ তোলেন। এই অভিযোগের জবাবে ইসির জ্যেষ্ঠ সচিব মো. আলমগীর বলেন, এই অভিযোগ আমি প্রত্যাখ্যান করছি। কর্মচারী নিয়োগ সংক্রান্ত বিষয়টি নির্বাচন কমিশনারদের অবগত করার বিষয় নয়। যা হয়েছে তা হানড্রেড পার্সেন্ট সংবিধান, আইন, বিধি ও নিয়মকানুন ফলো করে করা হয়েছে।


ঢাকা/হাসিবুল/সাইফ

রাইজিংবিডি.কম

সম্পর্কিত বিষয়:

আরো পড়ুন  

সর্বশেষ

পাঠকপ্রিয়